channel 24

সর্বশেষ

  • বান্দরবান পর্যটন কেন্দ্রগুলোতে বাড়ছে পর্যটক, মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্যবিধি

  • আতঙ্ক নয়, সচেতনতাই করোনা প্রতিরোধে মুখ্য ভূমিকা রাখবে: তাপস

  • পরাজিত হলে শান্তিপূর্ণভাবে ক্ষমতা হস্তান্তরের প্রতিশ্রুতি প্রত্যাখ্যান ট্রাম্পের

  • টানা বৃষ্টিতে তিস্তাসহ কয়েকটি নদীর পানি বৃদ্ধি

  • প্রতি ভরিতে স্বর্ণের দাম কমলো ২৪৪৯ টাকা

  • নানা সংস্কারের ফলে পুঁজিবাজার নিয়ে সবার প্রত্যাশা বেড়েছে

  • রপ্তানি পণ্যে যুক্ত হলো প্রক্রিয়াজাত কাজুবাদাম

  • ইংলিশ লিগ কাপ: রাতে নামছে লিভারপুল ও ম্যান সিটি

  • উয়েফা সুপার কাপ: রাতে মুখোমুখি বায়ার্ন-সেভিয়া

  • উয়েফার বর্ষসেরা ফুটবলারের সংক্ষিপ্ত তালিকা

  • সাত বছর ধরে চাঁদাবাজি মামলার আসামি মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল আওয়াল

  • থুতু ছিটিয়ে নিষেধাজ্ঞায় ডি মারিয়া

  • চোখের জলে বার্সেলোনাকে বিদায় জানালেন সুয়ারেজ

  • আইপিএল: কলকাতাকে ৪৯ রানে হারালো মুম্বাই

  • টিকিট পেতে সৌদি এয়ারলাইন্সে আজও প্রবাসীদের ভিড়

বগুড়ার সারিয়াকান্দিতে দেড় কিলোমিটার এলাকায় ১৪টি প্রাথমিক বিদ্যালয়

বগুড়ার সারিয়াকান্দিতে দেড় কিলোমিটার এলাকায় ১৪টি প্রাথমিক বিদ্যালয়

একটি-দুটি নয়, বগুড়ার সারিয়াকান্দিতে বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের দেড় কিলোমিটার এলাকায় রয়েছে ১৪টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। জনবসতি কম হওয়ায় এসব বিদ্যালয়ের কোনোটিতেই তেমন শিক্ষার্থী নেই। উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার দাবি, বারবার নোটিশ দিলেও, শিক্ষকদের অনীহার কারণে সরানো যাচ্ছে না স্কুলগুলো।

বগুড়ার সারিয়াকান্দির যমুনা নদীর বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ। বরইকান্দি থেকে কতুবপুর বাজার পর্যন্ত এই বাঁধের মাত্র দেড় কিলোমিটারের মধ্যে রয়েছে ১৪টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।

বছর তিনেক আগে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হয় চরের স্কুলগুলো। এরপর একে একে সেগুলো নিয়ে আসা হয় বাঁধ এলাকায়। এমনিতেই বাঁধের ওপর জনবসতিও কম, তারওপর এক জায়গায় এতো স্কুল। ফলে শিক্ষার্থী মিলছে না কোনো স্কুলেই। আগের স্থানে স্কুলগুলো ফিরিয়ে না নেয়ায়, শিক্ষা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে চরের শিশুরা।

বাঁধের ধারে এক বা দুই কক্ষের বিদ্যালয়ের কোনোটিতেই নেই খেলার মাঠ। নেই অবকাঠামোগত সুবিধাও।

উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা বলছেন, বিদ্যালয়গুলো সরিয়ে নিতে নোটিশ দেয়া হয়েছে। তবে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের দাবি, স্কুল সরাতে এখনও মেলেনি কোনো বরাদ্দ।

২০১৭ সালে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হলে বাঁধ এলাকায় চলে আসে, ১০টি প্রাথমিক বিদ্যালয়। আর আগে থেকেই ছিল ৪টি।

 

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর