channel 24

সর্বশেষ

  • স্কুল বন্ধ থাকাকালীন ৫০ শতাংশ বেতন নেয়াসহ ৪ দফা দাবি অভিভাবকদের

  • ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ, গাজীপুর ও চট্টগ্রামে পশুর হাট স্থাপন না করার সুপারিশ

  • ৭২ ঘন্টার মধ্যে স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের অপসারণের দাবি

  • করোনা সংক্রমণ বাড়ছেই, বড় কারণ অসতর্কতা

  • কুমিল্লা মেডিকেলে করোনা চিকিৎসা নিয়ে নানা প্রশ্ন

  • সাহারা খাতুনের দাফন সম্পন্ন

  • চলতি বছরেই শুরু দিনাজপুরের বিরল স্থলবন্দরের কার্যক্রম

  • এখনও স্থবিরতা কাটেনি রাজধানীর শপিং মলগুলোতে কেনাকাটায়

  • গত অর্থবছরে রপ্তানি আয়ে ভয়াবহ বিপর্যয়; একমাত্র বেড়েছে পাট পণ্যের চাহিদা

  • করোনা পরীক্ষায় র‍্যাপিড অ্যান্টিজেন ও অ্যান্টিবডি টেস্ট পদ্ধতি চালু করতে চায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

  • রিজেন্ট হাসপাতালে বিল নিয়ে বাহাস ছিল নিত্যদিনের ঘটনা

  • সাহেদের প্রতারণায় নিঃস্ব চট্টগ্রামের অনেক ব্যবসায়ী

  • সাহারা খাতুনের মরদেহ ঢাকায়, জানাজা শেষে দাফন করা হবে বনানী কবরস্থানে

  • তিস্তার পানি ফের বিপৎসীমার উপরে

  • 'সাহারা খাতুন ছিলেন রাজপথে আন্দোলনের বলিষ্ঠ কণ্ঠ'

কৃষকের ধান কেটে নেয়া ওসিকে ৭ দিনের মধ্যে আত্মসমর্পণের নির্দেশ

কৃষকের ধান কেটে নেয়া ওসিকে ৭ দিনের মধ্যে আত্মসমর্পণের নির্দেশ

কৃষকের জমি থেকে বেআইনিভাবে ধান কেটে নিজে বিক্রি করে টাকা ফেরত দিতে ঘুষগ্রহণের অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) মামলায় যশোরের মণিরামপুর থানার সাবেক ওসি ছয়রুদ্দিনকে বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

হাইকোর্টের আদেশের কপি হাতে পাওয়ার ৭ দিনের মধ্যে তাকে আত্মসমর্পণ করতে বলা হয়।

একই সঙ্গে তাকে দুর্নীতির মামলা থেকে অব্যাহতি দেওয়ার আদেশ কেন বাতিল করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন আদালত।

বুধবার (২২ জানুয়ারি) বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কে এম হাফিজুল আলমের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এই আদেশ দেন।

আদালতে দুদকের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী একেএম ফারহান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক ও সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল হেলেনা বেগম চায়না।

মামলাসুত্রে জানা যায়, যশোরের মণিরামপুর থানার নেহালপুর মৌজায় জনৈক প্রভাষ চন্দ্র ঘোষ ধান চাষ করেন। সেই জমিতে বিরোধ দেখা দিলে মণিরামপুর থানার ওসি মো. ছয়রুদ্দিন আহমেদের হুকুমে প্রভাষ চন্দ্র ঘোষের ৫ একর জমির মধ্য থেকে ৫ বিঘা জমির ৬১ মণ ৫০০ কেজি ধান কেটে নিয়ে নেহালপুর বাজারে হাটচান্দিতে মাড়াই করে গোডাউন ভাড়া করে রাখা হয়। আদালতের অনুমতি না নিয়ে, নিলাম না ডেকে, ৪১ হাজার ৫০০ টাকা বিক্রি করা হয় সেই ধান। ওই ধান ও পরবর্তীতে  টাকা ফেরত চাইলে ছয়রুদ্দিন ৫০ হাজার টাকা ঘুষ দাবি করেন। বাদী নিরুপায় হয়ে ২০ হাজার টাকা ঘুষ দেন। পরে ছয়রুদ্দিন প্রভাষকে ১৭ হাজার ৫০০ টাকা দেন। এই ঘটনায় প্রভাষ চন্দ্র ২০১১ সালের ২৯ নভেম্বর যশোর জেলা ও দায়রা জজ আদালতে মামলা দায়ের করেন। মামলাটি দুদকের সহকারী পরিচালক মো. ওয়াজেদ আলী গাজী তদন্ত করে ২০১৬ সালের ৩০ আগস্ট প্রতিবেদন দাখিল করেন।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর