channel 24

সর্বশেষ

  • ডাকঘরে সঞ্চয় স্কিমে সুদের হার কমানোর সিদ্ধান্তে দুশ্চিন্তায় নিম্ন ও মধ্যবিত্তরা

  • গানে গানে বাংলা ভাষাকে ছড়িয়ে দিচ্ছেন জাপানিজ দম্পতি

  • করোনা আতঙ্কে ভুতুড়ে নগরী দক্ষিণ কোরিয়ার দায়েগু

  • দৌলতদিয়াতে আরেক যৌনকর্মীর জানাজা অনু‌ষ্ঠিত

  • চাঁপাইনবাবগঞ্জে ধর্ষণ ও হত্যায় অভিযুক্ত বন্দুকযুদ্ধে নিহত

  • কল্পনার রং আর নকশার কারুকাজে শহীদ মিনারের প্রতিটি সড়ক একেকটি ক্যানভাস

  • মাগুরায় ছাত্রলীগ-ছাত্রদলের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া

  • একুশের প্রথম প্রহরে ভাষা শহীদদের প্রতি রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

  • নারীর গৃহস্থালী কাজকে সরাসরি জাতীয় আয়ে যুক্ত করার সুযোগ এখনো নেই: অর্থমন্ত্রী

  • শুক্রবার থেকে পাওয়া যাবে বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে টেস্ট টিকিট

  • ফরিদপুরে ওবায়দুর রহমানের আত্মার শান্তি কামনায় দোয়া মাহফিল

  • ফের ঢাকার বাতাস বিশ্বের সবচেয়ে দূষিত

  • একুশের প্রথম প্রহরে ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধা জানাতে প্রস্তুত গোটা দেশ

  • বাংলা ওয়েবসাইট চালু করলো মার্কিন দূতাবাস

  • চুড়িহাট্টায় আগুনে ক্ষতিগ্রস্তদের পর্যাপ্ত ক্ষতিপূরণসহ ৮ দফা দাবি

কৃষকের ধান কেটে নেয়া ওসিকে ৭ দিনের মধ্যে আত্মসমর্পণের নির্দেশ

কৃষকের ধান কেটে নেয়া ওসিকে ৭ দিনের মধ্যে আত্মসমর্পণের নির্দেশ

কৃষকের জমি থেকে বেআইনিভাবে ধান কেটে নিজে বিক্রি করে টাকা ফেরত দিতে ঘুষগ্রহণের অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) মামলায় যশোরের মণিরামপুর থানার সাবেক ওসি ছয়রুদ্দিনকে বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

হাইকোর্টের আদেশের কপি হাতে পাওয়ার ৭ দিনের মধ্যে তাকে আত্মসমর্পণ করতে বলা হয়।

একই সঙ্গে তাকে দুর্নীতির মামলা থেকে অব্যাহতি দেওয়ার আদেশ কেন বাতিল করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন আদালত।

বুধবার (২২ জানুয়ারি) বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কে এম হাফিজুল আলমের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এই আদেশ দেন।

আদালতে দুদকের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী একেএম ফারহান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক ও সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল হেলেনা বেগম চায়না।

মামলাসুত্রে জানা যায়, যশোরের মণিরামপুর থানার নেহালপুর মৌজায় জনৈক প্রভাষ চন্দ্র ঘোষ ধান চাষ করেন। সেই জমিতে বিরোধ দেখা দিলে মণিরামপুর থানার ওসি মো. ছয়রুদ্দিন আহমেদের হুকুমে প্রভাষ চন্দ্র ঘোষের ৫ একর জমির মধ্য থেকে ৫ বিঘা জমির ৬১ মণ ৫০০ কেজি ধান কেটে নিয়ে নেহালপুর বাজারে হাটচান্দিতে মাড়াই করে গোডাউন ভাড়া করে রাখা হয়। আদালতের অনুমতি না নিয়ে, নিলাম না ডেকে, ৪১ হাজার ৫০০ টাকা বিক্রি করা হয় সেই ধান। ওই ধান ও পরবর্তীতে  টাকা ফেরত চাইলে ছয়রুদ্দিন ৫০ হাজার টাকা ঘুষ দাবি করেন। বাদী নিরুপায় হয়ে ২০ হাজার টাকা ঘুষ দেন। পরে ছয়রুদ্দিন প্রভাষকে ১৭ হাজার ৫০০ টাকা দেন। এই ঘটনায় প্রভাষ চন্দ্র ২০১১ সালের ২৯ নভেম্বর যশোর জেলা ও দায়রা জজ আদালতে মামলা দায়ের করেন। মামলাটি দুদকের সহকারী পরিচালক মো. ওয়াজেদ আলী গাজী তদন্ত করে ২০১৬ সালের ৩০ আগস্ট প্রতিবেদন দাখিল করেন।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর