channel 24

সর্বশেষ

  • ঠেলা দিয়ে বিমান সরাচ্ছে যাত্রীরা, ভিডিও ভাইরাল

  • শ্রেণিকক্ষে ঢুকে পড়ল বাঘ, শিক্ষার্থীকে আক্রমণ (ভিডিও)

  • বিশ্বে আবারও বাড়লো করোনায় আক্রান্ত ও মৃ ত্যুর সংখ্যা

  • টিকা নেয়ার পরও আক্রান্ত, ২৭ দেশে ওমিক্রন শনাক্ত

  • গ্যাস সিলিন্ডারে দগ্ধ ভাই-বোন মারা গেছেন

  • অভিমানে চেয়ারম্যানের দেয়া উপহার আগুনে পোড়ালেন সমর্থক

  • বিজয় দিবসে দেশব্যাপী শপথ বাক্য পাঠ করাবেন প্রধানমন্ত্রী

  • করোনার টিকা নিতে হবে টানা কয়েক বছর: ফাইজার প্রধান

  • চার বছর পর হিলি দিয়ে কয়লা আমদানি শুরু

  • নারী কেলেঙ্কারি: নাচোলের চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে থানায় এজাহার

  • টাঙ্গাইলে দক্ষিণ আফ্রিকাফেরত ৬ প্রবাসী হোম কোয়ারেন্টিনে

  • নির্ধারিত সময়ে ২৭ শতাংশ আয়কর রিটার্ন জমা

  • এবার মার্কিন পুলিশের গু লিতে প্রাণ হারালেন হুইলচেয়ারে বসা বৃদ্ধ

  • বাবরের একাদশে পাকিস্তানের চেয়ে ভারতের ক্রিকেটার বেশি

  • চাকরি দিচ্ছে বিকেএসপি

‘এনার্জিপ্যাক ও শান্ত মরিয়ম বিশ্ববিদ্যালয়কে ধন্যবাদ জানাতে চাই’

‘এনার্জিপ্যাক ও শান্ত মরিয়ম বিশ্ববিদ্যালয়কে ধন্যবাদ জানাতে চাই’

এ প্রজন্মের জনপ্রিয় ফ্যাশন ডিজাইনার নাহারিন চৌধুরী। তিনি পড়াশোনায় একজন গোল্ড মেডেলিস্ট। শান্ত মরিয়ম ইউনিভার্সিটি থেকে তিনি ফ্যাশন ডিজাইনিংয়ে অনার্স এবং মাস্টার্স কমপ্লিট করেছেন। সাত বছরের ক্যারিয়ারে তিনি দায়িত্ব পালন করেছেন মার্চেন্ডাইজার হিসেবে। তারপর ডিজাইন ডিপার্টমেন্টের ম্যানেজার হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছিলেন তিনি। 

দীর্ঘদিন তিনি ওকোডের হেড অফ ইনোভেশন হিসেবে কর্মরত ছিলেন। বর্তমানে তিনি ওকোড বাই এনার্জিপ্যাকের হেড অফ অপারেশন এন্ড ইনোভেশন হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। এবার তিনি যুক্ত হলেন সান্ত মরিয়ম ইউনিভারসিটিতে শিক্ষকতা পেশায়। 

এ প্রসঙ্গে নাহারিন চৌধুরী বলেন, ‘গত ১৬ই নভেম্বর হতে আমি শান্ত মারিয়াম বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লাস নেয়া শুরু করেছি। এমনিতে নিজের একটা প্রফেশন আছে, আমি চার বছর হলো এনার্জিপ্যাক পরিবারের সঙ্গে আছি। এখন আর একটা নতুন দায়িত্ব শুরু হলো নতুন প্রজন্মকে শিখানোর। আমি আসা করি এই দুইটি দায়িত্বই যেন আমি সুন্দরভাবে পালন করতে পারবো। আমার বিশ্ববিদ্যালয় আমাকে বিশ্বাস করেছে, তারা আমাকে নতুন প্রজন্মের কাছে আমার জ্ঞান শেয়ার করার সুযোগ করে দিয়েছে। আশা করি, আমি তাদের বিশ্বাসের মূল্য দিতে পারবো।’ 

তিনি আরও বলেন, ‘আমি আমার বিশ্ববিদ্যালয়ের সবার কাছে অনেক কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি, আমাকে যোগ্য ভাবার জন্য। এই বিশ্ববিদ্যালয় আমার খুব পরিচিত, আমি এখানে আমার সাত বছর কাটিয়েছি। আমি এনার্জিপ্যাককেও ধন্যবাদ জানাতে চাই, আমি যখন তাদের সঙ্গে এই সুযোগটি শেয়ার করি, তারা এটির প্রশংসা করে এবং আমাকে এই পেশায় যোগ দিতে আরও উৎসাহিত করেছেন। আমি আমার প্রতিষ্ঠান এনার্জিপ্যাক এবং শান্ত মারিয়াম বিশ্ববিদ্যালয়কে ধন্যবাদ জানাতে চাই। আশা করি, আমি আমার উভয় দায়িত্ব আমার পূর্ণ প্রচেষ্টার সঙ্গে পরিচালনা করতে পারবো।’

এস/

সর্বশেষ সংবাদ

মতামত খবর