channel 24

সর্বশেষ

  • ছেলের জীবন বাঁচাতে নিজের কিডনি দিলেন মা

  • কক্সবাজারে ইউপি নির্বাচনে সহিংসতা নিহত ২, আহত ৩০

  • ব্রিটেন-আমেরিকার সাবমেরিন কিনছে অস্ট্রেলিয়া, ক্ষুব্ধ ফ্রান্স

  • ভারতীয় গ্র্যান্ডমাস্টারকে হারিয়ে নাসিরের চমক

  • মেসির সঙ্গে কোচের দ্বন্দ্ব?

  • বিগ বস: প্রতি সপ্তাহে ১২ কোটি পারিশ্রমিক বাড়ালেন সালমান খান

  • স্বাস্থ্যের গাড়িচালক মালেকের ৩০ বছরের জেল

  • কুমিল্লা-৭ আসনে প্রাণ গোপালকে বিজয়ী ঘোষণা

  • আদালতে ওসি প্রদীপ, তৃতীয় দফায় সাক্ষ্য শুরু

  • হঠাৎ ব্যাপক ধারপাকড় চালাচ্ছে ইসরায়েল

  • নির্বাচনি সহিংসতায় মহেশখালীর কুতুবজোমে নিহত ১, আহত ৪

  • আমিরাতের অনুমতি পেলেই শাহজালালে পিসিআর ল্যাব

  • ৩১ জনকে চাকরি দিচ্ছে বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড

  • মাদারীপুরে প্রতিমা তৈরিতে মৃৎশিল্পীদের ব্যস্ততা বেড়েছে

  • রাজধানীতে মাদকসহ গ্রেপ্তার ৫০

কক্সবাজারে পাহাড় ধসে দুদিনে ১৩ জনের মৃত্যু

কক্সবাজারে পাহাড় ধসে দুদিনে ১৩ জনের মৃত্যু

টানা বর্ষণে বিপর্যস্ত কক্সবাজার-বান্দরবান। কক্সবাজারে পাহাড়ধসে দুদিনে প্রাণ গেছে ১৩ জনের। আরও ধসের শঙ্কা থাকলেও সরছে না ঝুঁকি নিয়ে বসবাসকারীরা। এমন দুর্যোগকে আরও ভয়ংকর করে তুলছে বন্যা। তলিয়ে গেছে দুই জেলার বহু গ্রাম। কক্সবাজারে পানি ডুবে আলাদা ঘটনায় মারা গেছেন ৬ যুবক। আর বান্দরবানের ঘুমধুমে মৃত্যু হয়েছে এক শিশুর।

কয়েকদিনের টানা বৃষ্টিতে ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে আছে কক্সবাজারের অনেক পাহাড়। ফলে পরপর দুদিনে ধস হলো অন্তত দশটি স্থানে। বুধবার ভোররাতে টেকনাফের নীলা ইউনিয়নের পানখালিতে পাহাড়ধসে মারা যায় একই পরিবারের ৫ শিশু। ঘুমন্ত অবস্থায় তাদের ওপর মাটিচাপা পরলে ঘটনাস্থলেই মারা যায় তারা। প্রায় একই সময়ে আরেকটি পাহাড়ধসের ঘটনা ঘটে মহেশখালির হোয়ানকে। সেখানে এক বৃদ্ধ ছাড়াও মারা যায় কয়েকটি গবাদিপশু। 

মঙ্গলবারও উখিয়া, টেকনাফ ও মহেশখালিতে পাহাড়ধসে মারা যায় ৭ জন। এমন ধসের শঙ্কা আছে আরও। কিন্তু এরপরও পাহাড়ে ঝুঁকিপূর্ণ বসবাসকারীদের সরিয়ে নিতে পারছেনা প্রশাসন।

আরও পড়ুন: উৎপাদন বন্ধ থাকলেও সেবা দিতে অক্সিজেন প্ল্যান্ট চালু

শুধু পাহাড়ধসই নয়, বাঁকখালি ও মাতামুহুরি নদীর পানি বেড়ে বন্যায় বিপর্যস্ত জেলার অর্ধশতাধিক গ্রাম। পানিবন্দি লক্ষাধিক মানুষ। যাদের ভোগান্তির শেষ নেই। এছাড়া ইদগাওয়ে মাছ ধরতে গিয়ে ঢলে নিখোঁজ তিন যুবক।

এদিকে ভারিবৃষ্টিপাতে বিপর্যস্ত বান্দরবানের জনজীবন। আলীকদম, লামা, নাইক্ষ্যংছড়িসহ বিভিন্ন উপজেলায় প্লাবিত হয়েছে অনেক গ্রাম। কয়েকটিস্থানে বন্ধ সড়ক যোগাযোগ। ঘুমধুমে পানিতে ভেসে গিয়ে মৃত্যু হয়েছে এক শিশুর।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চট্টগ্রাম 24 খবর