channel 24

সর্বশেষ

  • শ্রীলঙ্কা ফেরত ক্রিকেটাররা অনুশীলনে যোগ দেবেন কাল

  • বাংলাদেশে আসছে না শ্রীলঙ্কার সিনিয়র ক্রিকেটাররা

  • ছন্দে ফিরতে চান মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন

  • ঈদ কেনাকাটায় মানুষের ঢল

  • চট্টগ্রামে ইবাদত বন্দেগির মাধ্যমে পালিত হচ্ছে জুমাতুল বিদা

  • সরকার আন্তরিক হলেও খালেদা জিয়াকে বিদেশ নেয়া সময় সাপেক্ষ

  • কুড়িগ্রামের শপিংমলে ক্রেতা সমাগম; মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্যবিধি

  • সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে গাছ কাটার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ

  • দেশে করোনায় ৫ সপ্তাহের মধ্যে সর্বনিম্ন মৃত্যু

  • চট্টগ্রামে প্রতিবন্ধীদের মাঝে ঈদ উপহার

  • বন্দরনগরীর মার্কেটগুলোতে প্রচুর ক্রেতা সমাগম

  • সফল মেকআপ আর্টিস্ট প্রতিবন্ধী হান্না ওলেটেজুর

  • ব্যাকটেরিয়ার আক্রমণ চিংড়ি হ্যাচারিতে; ক্ষতির মুখে মালিকরা

  • হালিশহরে অজ্ঞাত যুবকের মরদেহ উদ্ধার

  • কুষ্টিয়ায় ট্যাংকের বিষক্রিয়ায় ২ শ্রমিকের মৃত্যু

চট্টগ্রামে ব্যাংক কর্মকর্তার আত্মহত্যা: বিচার না পাওয়ার শঙ্কায় স্বজনরা

চট্টগ্রামে ব্যাংক কর্মকর্তার আত্মহত্যা: বিচার না পাওয়ার শঙ্কায় স্বজনরা

চট্টগ্রামে ব্যাংক কর্মকর্তা মোরশেদের আত্মহত্যায় প্ররোচনা মামলার আসামিরা এখনও ধরাছোঁয়ার বাইরে। অভিযোগ পাওনা পরিশোধের পরও বাড়তি টাকার জন্য প্রভাবশালীদের ক্রমাগত চাপে আত্মহত্যায় বাধ্য হয়েছেন মোরশেদ। যাতে জড়িত রাজনৈতিক নেতারাও। তাই অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ নিয়ে শঙ্কায় পরিবার।

চট্টগ্রামের হিলভিউ এলাকার বাসিন্দা ব্যাংক কর্মকর্তা মোরশেদ চৌধুরীর ঝুলন্ত মরদেহ মেলে গত ৭ এপ্রিল। পাওয়া যায় একটি সুইসাইডাল নোট। 

পরিবারের দাবি, ফুফাতো ভাই পারভেজ ইকবাল ও তার ভাই জাবেদ ইকবালের সাথে ব্যবসা করতেন মোরশেদ। মুনাফাসহ তাদের সব পাওনা পরিশোধের পরও বাড়তি টাকার জন্য তারা মানসিক ও শারিরীক নির্যাতন চালান মোরশেদের ওপর। 

২০১৯ সালের সেপ্টেম্বর মাসের এক সিসিটিভি ফুটেজেও দেখা যায়, দলবল নিয়ে মোর্শেদ চৌধুরীর বাসায় যান অভিযুক্তরা। ধারাবাহিক এই নির্যাতনের কারণেই আত্মহননের পথ বেছে নেন মোরশেদ।

শুধু পারভেজ ও জাবেদই নয়, এরসাথে জড়িত ক্ষমতাসীন দলের নেতাসহ আরও কয়েকজন। তাদেরই অন্যতম যুবলীগ নেতা শহিদুল হক রাসেল। পারভেজের বাড়িতে গিয়ে তাকে পাওয়া না গেলেও ফোনে রাসেলের দাবি, তিনি কোন চাপ দেননি।  

মোরশেদের মৃত্যুর আগে দু'পক্ষের বিরোধ মেটাতে চেয়েছিলেন তার আত্মীয় ও সংসদ সদস্য দিদারুল আলম। কিন্তু পারভেজদের অনীহায় পারেননি।

এদিকে মামলার দুই সপ্তাহ পরও কোন আসামী গ্রেপ্তার হয়নি। যদিও চেষ্টার কথা বলছে পুলিশ। আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগে এই মামলায় আসামী করা হয়েছে চারজনকে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চট্টগ্রাম 24 খবর