channel 24

সর্বশেষ

  • টেকনাফে ভোটে লড়তে জেল ফেরত ইয়াবা কারবারিদের গণসংযোগ

  • তিনটি শক্তিশালী ভূমিকম্পে কেঁপে উঠলো নিউজিল্যান্ড, সুনামি সতর্কতা জারি

  • ঘোলাটে হচ্ছে রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় পরিস্থিতি, ভিসির কুশপুত্তলিকা পোড়ালো ছাত্রলীগ

  • দিনাজপুরে আইনজীবী সমিতির দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ১০

  • বনানী কবরস্থানে চিরশয়নে এইচ টি ইমাম

  • তিস্তা নিয়ে ভারতের অবস্থান অপরিবর্তিত: ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী

  • তদন্তে লেখক মুশতাকের মৃত্যু স্বাভাবিক: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

  • প্রধানমন্ত্রীর সাথে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্করের সৌজন্য সাক্ষাত

  • দক্ষিণাঞ্চলে আরেকটি পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ করা হবে: প্রধানমন্ত্রী

  • অপরাধ যাই হোক, শিশুদের সাজা সর্বোচ্চ ১০ বছর: হাইকোর্ট

  • দক্ষ নাবিক তৈরিতে চট্টগ্রামে আধুনিক শিপ ব্রিজ সিমুলেটর স্থাপন

  • করোনার ভ্যাকসিন নিলেন প্রধানমন্ত্রী

  • খাগড়াছড়িতে শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ চেষ্টা মামলায় শিক্ষক কারাগারে

  • ধনঞ্জয়ের হ্যাটট্রিক ছাপিয়ে কাইরন পোলার্ডের ছয় ছক্কা

  • আবারও কথিত 'ক্রসফায়ারে' রামুতে যুবকের মৃত্যু, মাদক কারবারি দাবি র‍্যাবের

চট্টগ্রাম সিটি নির্বাচনে কাউন্সিলর প্রার্থী শীর্ষ সন্ত্রাসী কাদের

চট্টগ্রাম সিটি নির্বাচনে কাউন্সিলর প্রার্থী শীর্ষ সন্ত্রাসী কাদের

আবারও আলোচনায়, চট্টগ্রাম মহানগরের এক সময়ের তালিকাভুক্ত শীর্ষ সন্ত্রাসী আবদুল কাদের ওরফে মাছ কাদের। এক সময় ২৯টি মামলা থাকলেও রাজনৈতিক অনুকম্পায় ২৮টিতেই অব্যাহতি পান। দীর্ঘদিন জেল খেটে বেরিয়ে, গত নির্বাচনে বনে যান জনপ্রতিনিধি। সিটি নির্বাচনে কাউন্সিলর প্রার্থী হয়ে, প্রতিদ্বন্দ্বির সাথে সংঘাতে জড়িয়ে খুনের মামলায় এখন কারাগারে।

গত ১২ জানুয়ারি রাতে পাঠানটুলির মগপুকুর পাড়ে দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘাতে নিহত হন আওয়ামী লীগ নেতা আজগর আলী বাবুল। অভিযোগ, দলটির বিদ্রোহী প্রার্থী আবদুল কাদের ওরফে মাছ কাদেরের কর্মীদের গুলিতে প্রাণ গেছে তার।

ঘটনার পরপরই ২৫ সহযোগীসহ আটক হন কাদের। নিহতের স্বজনদের অভিযোগ, কাদেরের পরিকল্পনায় পরিকল্পিতভাবে বাবুলকে হত্যা করা হয়েছে। কেননা, গত সিটি নির্বাচনে বাবুল ছিলেন কাদেরের পক্ষে।

মামলার তদন্ত সংস্থা নগর গোয়েন্দা পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার মনজুর মোরশেদ বলছে, খুনের প্রকৃত রহস্য জানার চেষ্টা চলছে।

কাদের এলাকায় যেন ত্রাস। ক্ষমতাসীন দলের নাম ভাঙ্গিয়ে চাঁদাবাজি, কিশোর গ্যাঙ, মাদক ব্যবসাসহ নানা অপরাধ কর্মকান্ডের নেতৃত্ব দেয়ার অভিযোগ তার বিরুদ্ধে।

এক সময়ের সিএমপির শীর্ষ সন্ত্রাসী কাদের নয়বছর ছিলেন কারাগারে। বের হয়ে, ২০১৫ সালে নির্বাচনে জিতে হয়ে যান কাউন্সিলর। এবার দলের মনোনয়ন না পেলেও দাঁড়িয়ে যান বিদ্রোহী হিসেবে।

কাদেরের বিরুদ্ধে ছিল হত্যাসহ ২৯টি মামলা। কিন্তু রাজনৈতিক অনুকম্পায় ১টি ছাড়া সব মামলাতেই খালাস পান।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চট্টগ্রাম 24 খবর