channel 24

সর্বশেষ

  • কাল বিকেএসপিতে বাংলাদেশের দ্বিতীয় প্রস্তুতি ম্যাচ

  • রবি ঠাকুরের নায়িকা হতে চান শাওন

  • বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের ভেন্যু থাকছে টঙ্গি স্টেডিয়াম

  • বছরে ১০টি ভারতীয় ছবি প্রদর্শিত হবে দেশের প্রেক্ষাগৃহে

  • দেশের দ্রুততম মানব-মানবী ইসমাইল ও শিরিন

  • বাড়ির উঠান থেকে শিশু অপহরণ, ৩ দিন পর মিললো লাশ

  • ৬০ পৌরসভার ভোট ঘিরে উত্তাপ, কেন্দ্রে কেন্দ্রে নিরাপত্তা জোরদার

  • ভারতের বিপক্ষে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে ব্যর্থ অস্ট্রেলিয়া

  • দিনাজপুরে ধানের দাম কমলেও প্রভাব নেই চালের বাজারে

  • শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি বাড়লো ৩০ জানুয়ারি পর্যন্ত

  • হোয়াইট হাউসের শীর্ষ পদে বাংলাদেশি বংশোদ্ভুত জায়ান সিদ্দিক

  • প্রতিবন্ধী হওয়ায় মাস্টার্স পাশ করেও চাকরি পাননি আকলিমা

  • বাংলাদেশ নৌবাহিনীর বার্ষিক মহড়া 'সেফগার্ড' অনুষ্ঠিত

  • ট্রাম্পের অভিশংসনে ভোট দেয়ায় রিপাবলিকান কংগ্রেসম্যানদের হত্যার হুমকি

  • প্রিমিয়ার লিগে রাতে শুরু হচ্ছে শেখ রাসেল-ব্রাদার্সের মিশন

মরদেহের পরিচয় নিয়ে ধুম্রজাল

মরদেহের পরিচয় নিয়ে ধুম্রজাল

১৭ মাস আগে চট্টগ্রামের হালিশহরে পাওয়া দগ্ধ মরদেহের পরিচয় আসলে কী? হাইকোর্টের এক আদেশের পর নতুন করে এ প্রশ্ন সামনে এসেছে। কেননা, এটা যার মরদেহ বলে পুলিশ দাবি করেছিল, সম্প্রতি তিনি ফিরে আসায় রহস্য দানা বেধেছে। এ ঘটনায় দুজন হত্যার দায় স্বীকার করে যে জবানবন্দি দিয়েছে তা নিয়েও উঠেছে গুরুতর অভিযোগ।

চট্টগ্রাম নগরীর হালিশহর খালপাড়য় থেকে ২০১৯ সালের ২১ এপ্রিল উদ্ধার হয় অজ্ঞাতপরিচয় দগ্ধ একটি মরদেহ।

পাঁচদিন পর পুলিশ জীবন আর দুর্জয় নামে দুই যুবককে আটকের পর দাবি করে, নিহত ব্যক্তির নাম দিলীপ। এ দুজনই হত্যা করেছে তাকে। আদালতে জবানবন্দিও দিয়েছে তারা, এমন দাবিও করে পুলিশ।

তবে মঙ্গলবার এই মামলায় এক আসামীর উচ্চআদালতে জামিন শুনানীতে প্রকাশ হয়, যে দিলীপকে হত্যার কথা বলা হয়েছে, তিনি জীবিত আছেন। শুনে বিস্ময় প্রকাশ করেন আদালত।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, যে দিলীপকে হত্যার কথা বলা হচ্ছে, তার সাথেই একটি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করতেন জীবন আর দুর্জয়। স্বজনদের অভিযোগ, পুলিশ আটকের পর নির্যাতন করে দুজনকে স্বীকারোক্তি দিতে বাধ্য করেছে।

অভিযোগ, পুলিশের সোর্স পলাশই ফাঁসিয়ে দিয়েছে জীবন আর দুর্জয়কে। তবে তা অস্বীকার করেন পলাশ।

দুজনকে আটকে নেতৃত্ব দেন হালিশহর থানার তৎকালীন এসআই মাহবুব মোরশেদ। তিনি এখন হবিগঞ্জে। আর জীবিত দিলীপকে হাজির করেন বর্তমানে সিলেটে কর্মরত হালিশহর থানার সাবেক কর্মকর্তা সাইফ উল্লাহ।

প্রশ্ন উঠেছে, তাহলে যে মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে সেটি কার?

তবে যে দিলীপকে ঘিরে এত কথা, নানা জায়গায় খোঁজ নিয়েও তার সন্ধান মেলেনি। এই মামলায় ২২ অক্টোবর দুই আসামী ও দিলীপসহ তদন্ত কর্মকর্তাকে হাজির হতে বলেছেন হাইকোর্ট।

বিস্তারিত দেখুন ভিডিও লিংকে:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চট্টগ্রাম 24 খবর