channel 24

সর্বশেষ

  • চালু হচ্ছে অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট

  • মহানগর ছাত্রলীগ সভাপতির বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও গর্ভপাতের অভিযোগ

  • ফেভারিট শ্রীলঙ্কার সামনে স্বপ্ন দেখছে বাংলাদেশও

  • কচুরিপানায় ভাগ্য বদলেছে দুই শতাধিক নারীর

  • মামুনুলের নজর ছিলো ধর্মকে পুঁজি করে ক্ষমতা দখলে: পুলিশ

  • ফোর্বসের 'থার্টি আন্ডার থার্টি এশিয়া' তালিকায় ৯ বাংলাদেশি

  • তিনে ওঠার হাতছানি নিয়ে রাতে মাঠে নামছে চেলসি

  • সুপার লিগের বিপক্ষে জোট বেঁধেছে পুরো বিশ্ব

  • করোনায় মারা গেলেন কর কমিশনার আলী আজগর

  • চট্টগ্রামে সাতটি এলাকাকে উচ্চ সংক্রমিত ঘোষণা করলেও নেই তৎপরতা

  • চট্টগ্রামে ভয়ংকর হয়ে উঠেছে করোনা, বাড়ছে প্রাণহানি

  • করোনার ভ্যাকসিনে মিলছে সুফল, সিভাসুর গবেষণা

  • ধান সংকটে স্থবির কুষ্টিয়ার বৃহত্তম চালের মোকাম

  • কুমিল্লায় কাভার্ডভ্যান-লরি সংঘর্ষে ৩ জনের প্রাণহানি

  • লঙ্কা টেস্টে টাইগারদের ঘুরে দাঁড়ানোর সম্ভাবনা দেখছেন ফাহিম

মরদেহের পরিচয় নিয়ে ধুম্রজাল

মরদেহের পরিচয় নিয়ে ধুম্রজাল

১৭ মাস আগে চট্টগ্রামের হালিশহরে পাওয়া দগ্ধ মরদেহের পরিচয় আসলে কী? হাইকোর্টের এক আদেশের পর নতুন করে এ প্রশ্ন সামনে এসেছে। কেননা, এটা যার মরদেহ বলে পুলিশ দাবি করেছিল, সম্প্রতি তিনি ফিরে আসায় রহস্য দানা বেধেছে। এ ঘটনায় দুজন হত্যার দায় স্বীকার করে যে জবানবন্দি দিয়েছে তা নিয়েও উঠেছে গুরুতর অভিযোগ।

চট্টগ্রাম নগরীর হালিশহর খালপাড়য় থেকে ২০১৯ সালের ২১ এপ্রিল উদ্ধার হয় অজ্ঞাতপরিচয় দগ্ধ একটি মরদেহ।

পাঁচদিন পর পুলিশ জীবন আর দুর্জয় নামে দুই যুবককে আটকের পর দাবি করে, নিহত ব্যক্তির নাম দিলীপ। এ দুজনই হত্যা করেছে তাকে। আদালতে জবানবন্দিও দিয়েছে তারা, এমন দাবিও করে পুলিশ।

তবে মঙ্গলবার এই মামলায় এক আসামীর উচ্চআদালতে জামিন শুনানীতে প্রকাশ হয়, যে দিলীপকে হত্যার কথা বলা হয়েছে, তিনি জীবিত আছেন। শুনে বিস্ময় প্রকাশ করেন আদালত।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, যে দিলীপকে হত্যার কথা বলা হচ্ছে, তার সাথেই একটি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করতেন জীবন আর দুর্জয়। স্বজনদের অভিযোগ, পুলিশ আটকের পর নির্যাতন করে দুজনকে স্বীকারোক্তি দিতে বাধ্য করেছে।

অভিযোগ, পুলিশের সোর্স পলাশই ফাঁসিয়ে দিয়েছে জীবন আর দুর্জয়কে। তবে তা অস্বীকার করেন পলাশ।

দুজনকে আটকে নেতৃত্ব দেন হালিশহর থানার তৎকালীন এসআই মাহবুব মোরশেদ। তিনি এখন হবিগঞ্জে। আর জীবিত দিলীপকে হাজির করেন বর্তমানে সিলেটে কর্মরত হালিশহর থানার সাবেক কর্মকর্তা সাইফ উল্লাহ।

প্রশ্ন উঠেছে, তাহলে যে মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে সেটি কার?

তবে যে দিলীপকে ঘিরে এত কথা, নানা জায়গায় খোঁজ নিয়েও তার সন্ধান মেলেনি। এই মামলায় ২২ অক্টোবর দুই আসামী ও দিলীপসহ তদন্ত কর্মকর্তাকে হাজির হতে বলেছেন হাইকোর্ট।

বিস্তারিত দেখুন ভিডিও লিংকে:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চট্টগ্রাম 24 খবর