channel 24

সর্বশেষ

  • ভারতের মাদক নিয়ন্ত্রণ ব্যুরোর হাতে অর্ধশত তারকার তালিকা

  • পাবনা-৪ উপনির্বাচনে জয় পেল আ. লীগ প্রার্থী

  • ঢাকার ক্লাবগুলোর সাথে নির্বাচনী প্রচারণায় সমন্বয় পরিষদ

  • করোনা টিকার সুষম বণ্টন করতে হবে; জাতিসংঘ সাধারণ অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রী

  • কাল শুরু ১৩ তম ফ্রেঞ্চ ওপেন

  • অলিম্পিকে ব্যয় সংকোচন নীতিতে হাঁটছে টোকিও

  • শেখ হাসিনা আন্তর্জাতিক দাবায় চ্যাম্পিয়ন ইন্দোনেশিয়ার সুশান্ত

  • কোয়ারেন্টিন থেকে আপাতত মুক্তি ক্রিকেটারদের

  • গণফোরাম সভাপতি ড. কামালকে ছাড়াই বিদ্রোহীদের বৈঠক

  • এমসি কলেজে ছাত্রলীগ কর্মীদের ধর্ষণ বর্বরতায় গ্রেপ্তার নেই ২৪ ঘণ্টায়ও

  • শেখ হাসিনার সরকার দেশে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করেছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

  • মাদক বিষয়ক হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপের এডমিন দীপিকা

  • খুলনায় নলকূপ বসানোর গর্ত থেকে বের হচ্ছে গ্যাস

  • পাবনা-৪ উপনির্বাচনে চলছে ভোট গণনা

  • বাড়ছে নদ-নদীর পানি; শেষ সম্বল নিয়ে নিরাপদে ছুটছে মানুষ

বেসরকারি হাসপাতাল মালিকদের কাছে জিম্মি চট্টগ্রামের স্বাস্থ্যখাত

বেসরকারি হাসপাতাল মালিকদের কাছে জিম্মি চট্টগ্রামের স্বাস্থ্যখাত

বেসরকারি হাসপাতাল মালিকদের কাছে এক প্রকার জিম্মি হয়ে পড়েছে চট্টগ্রামের স্বাস্থ্যখাত। করোনাকালে মানুষকে চিকিৎসা দিতে প্রশাসনের দফায় দফায় নির্দেশও মানছেন না তারা। এমনকি ভেঙেছে নিজেদের অঙ্গীকারও। যাতে চরম দুর্ভোগে বন্দরনগরীর মানুষ। কেউ কেউ মারা যাচ্ছেন চিকিৎসা না পেয়ে। তাদের এমন আচরণকে চরম ধৃষ্টতা আখ্যা দিয়ে নাগরিক সমাজের অভিমত, স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনায় কোন সমন্বয় না থাকায় এমন পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে।

অন্তত ছয়টি বেসরকারি হাসপাতাল ঘুরে নিজের মায়ের চিকিৎসা করাতে না পেরে গত ২৮'মে চট্টগ্রাম ছাড়েন বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক হাসান শাহরিয়ার কবির। চিকিৎসা নেন ঢাকায় গিয়ে।

এরপর গত চারদিনে একজন শীর্ষস্থানীয় ব্যবসায়ী ও বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকসহ কয়েকজন মারা যান চিকিৎসা না পেয়ে। বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা না পাওয়ার এমন করুণগাঁথা যোগ হচ্ছে প্রতিদিনই।

প্রথমে ১২টি হাসপাতালকে স্বাস্থ্য বিভাগের নির্দেশনা,  এরপর সরকারি নির্দেশ। সবশেষ প্রশাসনের সাথে বৈঠকে হাসপাতাল মালিকদের অঙ্গীকার এবং পুলিশের হুশিয়ারি, সবকিছুকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে অসুস্থ মানুষকে দুয়ার থেকে ফিরিয়ে দিচ্ছে এসব হাসপাতাল।

বেসরকারি হাসপাতাল মালিকদের কাছে অনেকটা জিম্মি হয়ে পড়েছে বন্দরনগরীর স্বাস্থ্যখাত। তাদের নিয়ন্ত্রণে আনতে না পারাকে স্বাস্থ্যবিভাগের চরম ব্যর্থতা এবং সমন্বয়হীনতার নজির বলছেন নাগরিক সমাজ।

এসব হাসপাতালে চিকিৎসা নিশ্চিত করতে প্রশাসন যে কমিটি করেছে তাতে রাখা হয়েছে বিএমএ ও হাসপাতাল মালিকদের দুই নেতাকে। যাদের বিরুদ্ধে বেশি অভিযোগ রয়েছে বেসরকারি হাসপাতালগুলোকে রক্ষায়।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চট্টগ্রাম 24 খবর