channel 24

সর্বশেষ

  • মানবদেহে সীসা দূষণের প্রধান উৎস সীসাযুক্ত পেইন্ট

  • সম্মিলিত চেষ্টায় দারিদ্র্য জয় সম্ভব: প্রধানমন্ত্রী

  • বেশি দামে আলু বিক্রির অভিযোগে রাজধানীতে র‍্যাবের অভিযান

  • আগামীকাল থেকে সুন্দরবনে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার হচ্ছে

  • বাগান থেকে কাঁথায় মোড়ানো নবজাতক উদ্ধার

  • গ্রাম্য সালিশে মুক্তিযোদ্ধাকে পিটিয়ে হত্যা

  • তুরস্ক ও গ্রিসে শক্তিশালী ভূমিকম্পে প্রাণহানি বেড়ে ২৬

  • ফ্রান্সে মহানবীকে অবমাননা: ইতালিতে বাংলাদেশিদের বিক্ষোভ

  • পরের ৩ ম্যাচে নেইমারকে পাবে না পিএসজি

  • অবশেষে করোনামুক্ত ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো

  • ইউরোপিয়ান ফুটবলের খবর

  • তরুণ ও সংখ্যালঘু ভোটে জয়ের স্বপ্ন ডেমোক্রেটদের

  • করোনা পরীক্ষায় অনুমোদিত অ্যান্টিজেন কিটের ফের মান যাচাই নিয়ে মতভেদ

  • চেক ডিজঅনারের ৬৬ মামলায় ব্যবসায়ীর ৫০ বছরের সাজা

  • আগুনে পুড়লো কল্যাণপুরের নতুনবাজার বস্তি; দগ্ধ ২

চট্টগ্রামে স্বাস্থ্যকর্মীদের আত্মরক্ষামূলক পোশাক তৈরিতে নেয়া হয়েছে উদ্যোগ

চট্টগ্রামে স্বাস্থ্যকর্মীদের আত্মরক্ষামূলক পোশাক তৈরিতে নেয়া হয়েছে উদ্যোগ

মাস্ক ও চিকিৎসকদের আত্মরক্ষামূলক পোশাক সংকট দূর করতে এগিয়ে এসেছে চট্টগ্রামের কয়েকটি তৈরি পোশাক কারখানা। মাস্ক বানিয়ে বিনামূল্যে দিচ্ছে সাধারণ মানুষকে। তৈরির উদ্যোগ নেয়া হয়েছে স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য আত্মরক্ষামূলক পোশাক। তবে এজন্য দরকার, বিজিএমইএ আর সরকারের সহযোগিতা।

করোনা ভাইরাসে বিশ্বজুড়ে এখন নাজুক পরিস্থিতি। যার ছোবলে আক্রান্ত আর প্রাণহাণি হচ্ছে বাংলাদেশেও।

করোনা আতঙ্কে জনমনে বেড়েছে উদ্বেগ। তাতে মাস্কসহ নানা নিরাপত্তা উপকরণের ব্যবহার যেমন বেড়েছে, তেমিন বাড়তি চাহিদার সুযোগ নিচ্ছে একশ্রেণির ব্যবসায়ী।  

পরিস্থিতি বিবেচনায় এগিয়ে এসেছে চট্টগ্রামের কিছু তৈরি পোশাক কারখানা। নিয়মিত উৎপাদন কমিয়ে মনোযোগ দিয়েছে মাস্ক তৈরিতে। বিনামূল্যে যা বিতরণ করা হচ্ছে মানুষের মাঝে। পরিকল্পনা আছে স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য পারসোনাল প্রটেকশন ইকুইপমেন্ট তৈরীর।

ক্লিফটন গ্রুপের সিইও এম ডি এম মহিউদ্দিন চৌধুরী বলেন, আমাদের কারখানায় যতখুলো লাইন আছে তাঁর থেকে ২/১টা লাইন বন্ধ করে আমরা ওখানে মাস্ক তৈরির কাজ করছি। সেই সাথে সাধারণ মানুষের কাছে বিলি করছি। আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে কমপক্ষে ১ লাখ মাস্ক আমরা তৈরি করবো, তএ ফেব্রিক যদি এদে দিতে পারে তবে আমরা আরও প্রোডাকশ্ন দিতে পারবো।

মেলো ফ্যাশন লিমিটেডের এমডি সাইফুল্লাহ মনসুর বলেন, রাষ্ট্র যদি চায়, প্রশাসন যদি চায় যে এটা আমাদের প্রয়োজন এই মূহুর্তে তবে আমি মনে করি বিজিএমই এর পক্ষে এটা করা সম্ভব।

অবশ্য পোশাক কারখানা মালিকদের সংগঠনটি বলছে, দেশের এ ক্রান্তিকালে সব ধরনের সহযোগিতা করতে প্রস্তুত বিজিএমইএ। এর সহসভাপতি এ এম সেলিম চৌধুরী বলেন, এখানে মানুষ মানুষের জন্য আর এই বিষয় নিয়েই আমরা কাজ করছি। পিপিই তৈরির জন্য স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অনুমতির দরকার হয়, সেটা নিয়েও আমরা কাজ করছি।

এদিকে, এখন যে মাস্কগুলো তৈরি হচ্ছে, সেগুলোকে কিভাবে জীবাণুমক্ত করা যায় চলছে সে গবেষণাও।

চট্টগ্রামে ৩শ ২০টিসহ সারাদেশ তৈরি পোশাক কারখানা চালু আছে ২ হাজারের মতো।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চট্টগ্রাম 24 খবর