channel 24

সর্বশেষ

  • বরিশাল মেডিকেলে করোনা ইউনিটে থাকা একজনের মৃত্যু

  • দেশে করোনা মোকাবিলায় নেই পর্যাপ্ত অবকাঠামো সুবিধা: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

  • ইতালিতে প্রাণহানি ছাড়ালো ১০ হাজার, সংক্রমণ শীর্ষে যুক্তরাষ্ট্র

  • করোনা প্রতিরোধে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার নির্দেশনা মানছেন না অনেকেই

  • রাস্তায় পড়ে থাকা ফিনল্যান্ডের নাগরিককে হাসপাতালে নিলো পুলিশ

  • করোনায় শুধু মানুষই নয় বিপাকে পশু-পাখি

  • বিশ্বজুড়ে ৩০ হাজারের বেশি মানুষের প্রাণহানি

  • পর্যটকদের স্বর্গরাজ্যগুলো আজ জনমানবহীন

  • ক্রমেই অসহায় হয়ে উঠছে বিশ্ব

  • স্বাস্থ্যকর্মীদের সুরক্ষা সরঞ্জাম দিলো স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস

  • আকিজ গ্রুপের হাসপাতাল তৈরিতে জনতার ক্ষোভ

  • জনগণকে সচেতন হবার আহ্বান জানিয়েছেন মাহমুদউল্লাহ

  • শৈশব থেকেই বলিষ্ঠ নেতৃত্বের অধিকারী ছিলেন বঙ্গবন্ধু

  • স্পেনে আরও ৮৩২ জনের প্রাণহানি

  • কাল থেকে সংসদ টেলিভিশনে শ্রেণী ভিত্তিক পাঠদান চলবে

কাপ্তাই হ্রদের পানি কমছে ধীরগতিতে, ফসল নিয়ে দুঃচিন্তায় চাষীরা

কাপ্তাই হ্রদের পানি কমছে ধীরগতিতে, ফসল নিয়ে দুঃচিন্তায় চাষীরা

রাঙ্গামাটিতে কাপ্তাই হ্রদের পানি কমছে ধীরগতিতে। ফলে দেরিতে শুরু হয়েছে জলে ভাসা জমিতে চাষাবাদ। এ কারণে জুন মাসের আগে ধান কাটা শেষ হবে কিনা তা নিয়ে দুঃচিন্তায় চাষীরা। তাদের শঙ্কা বর্ষা মৌসুমে পানি বাড়লে তলিয়ে যাবে ফসল। এতে উৎপাদনও কম হওয়ার আশঙ্কা তাদের। যদিও স্বল্প মেয়াদী জাতের ধান চাষের পরামর্শ দিচ্ছে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর।

রাঙ্গামাটিতে শুষ্ক মৌসুমে পানি কমলে নভেম্বর-ডিসেম্বরে কাপ্তাই হ্রদে চাষাবাদ করেন স্থানীয় কৃষকরা। বর্ষা মৌসুমের আগেই ঘরে উঠে ফসল। যাকে বলা হয় জলে ভাসা জমিতে চাষাবাদ।

তবে এবার পানি কমছে ধীরগতিতে। তাই সময়মতো বীজতলা তৈরি করা যায়নি। যতটুকু পানি কমেছে সেখানে কিছু কিছু চাষাবাদ হলেও বেশিরভাগই ফাঁকা। ফলে এবার দেরিতে চাষাবাদ হচ্ছে বলে ফলনও মিলবে দেরিতে। তাতে বর্ষা মৌসুমে পানি বাড়লে আশংকা আছে ফসল তলিয়ে যাবার।

রাঙ্গামাটিতে মোট আবাদ হয় সাত হাজার ১৪০ হেক্টর জমিতে। এরমধ্যে জলে ভাসা জমি প্রায় চার হাজার হেক্টর। এতে উৎপাদন হয় ১৬ হাজার মেট্রিক টন খাদ্য শস্য। যা জেলার মোট উৎপাদনের ৪০ ভাগ। এবারও একি লক্ষ্যমাত্রা ধরা হলেও উৎপাদন কম হওয়ার শংকা চাষীদের।

রাঙ্গামাটি পাবর্ত্য জেলার কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক পবন কুমার চাকমা বলেন, যারা এখনো চাষাবাদ শুরু করেনি তারা স্বল্প মেয়াদী জাত বীনা ১৪ চাষ করতে পারেন।

রাঙ্গামাটিতে বছরে খাদ্য চাহিদা ১ লাখ ৮ হাজার মেট্রিক টন। মোট উৎপাদন হয় ৫২ হাজার। ঘাটতি থাকে ৫৬ হাজার মেট্রিক টন।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চট্টগ্রাম 24 খবর