channel 24

সর্বশেষ

  • র‍্যাবের মহাপরিচালক হলেন চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল-মামুন

  • বেনজীর আহমদকে পুলিশ মহাপরিদর্শক করে প্রজ্ঞাপন

  • করোনা সংক্রমণ রোধে ঢাকার ৫০টির বেশি এলাকার ও বাড়ি লক ডাউন

  • করোনায় ঘরবন্দি বেশিরভাগ মানুষ, সুস্থ থাকতে সুষম খাদ্যাভাস ও শরীর চর্চার পরামর্শ

  • দেশে করোনার সামাজিক সংক্রমণ শুরু, ১৫ জেলায় মিলেছে রোগী

  • মহামারি সংক্রমণ আইন প্রথমবারের মতো কার্যকর, তবে মানছেন না কেউ

  • ঢাকা মেডিকেলে আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন যুবকের মৃত্যু

  • বঙ্গবন্ধুর খুনি ক্যাপ্টেন (বরখাস্ত) মাজেদের মৃত্যু পরোয়ানা জারি

  • টাঙ্গাইলে করোনা রোগী শনাক্ত, আশেপাশের ৩৫ টি বাড়ি লকডাউন

  • বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অর্থ তহবিল বন্ধের হুঁশিয়ারি ট্রাম্পের

  • চীনের উহানে খুলে দেওয়া হয়েছে বিমানবন্দর ও রেল স্টেশন

  • করোনা উপসর্গে কাপাসিয়ায় মেডিকেল ছাত্রের মৃত্যু

  • নিউইয়র্ক যেন মৃত্যুনগরী

  • করোনায় প্রাণহাণি ছাড়ালো ৮২ হাজার

  • হজযাত্রী নিবন্ধন সময় ১৬ এপ্রিল পর্যন্ত বৃদ্ধি

কাপ্তাই হ্রদের পানি কমছে ধীরগতিতে, ফসল নিয়ে দুঃচিন্তায় চাষীরা

কাপ্তাই হ্রদের পানি কমছে ধীরগতিতে, ফসল নিয়ে দুঃচিন্তায় চাষীরা

রাঙ্গামাটিতে কাপ্তাই হ্রদের পানি কমছে ধীরগতিতে। ফলে দেরিতে শুরু হয়েছে জলে ভাসা জমিতে চাষাবাদ। এ কারণে জুন মাসের আগে ধান কাটা শেষ হবে কিনা তা নিয়ে দুঃচিন্তায় চাষীরা। তাদের শঙ্কা বর্ষা মৌসুমে পানি বাড়লে তলিয়ে যাবে ফসল। এতে উৎপাদনও কম হওয়ার আশঙ্কা তাদের। যদিও স্বল্প মেয়াদী জাতের ধান চাষের পরামর্শ দিচ্ছে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর।

রাঙ্গামাটিতে শুষ্ক মৌসুমে পানি কমলে নভেম্বর-ডিসেম্বরে কাপ্তাই হ্রদে চাষাবাদ করেন স্থানীয় কৃষকরা। বর্ষা মৌসুমের আগেই ঘরে উঠে ফসল। যাকে বলা হয় জলে ভাসা জমিতে চাষাবাদ।

তবে এবার পানি কমছে ধীরগতিতে। তাই সময়মতো বীজতলা তৈরি করা যায়নি। যতটুকু পানি কমেছে সেখানে কিছু কিছু চাষাবাদ হলেও বেশিরভাগই ফাঁকা। ফলে এবার দেরিতে চাষাবাদ হচ্ছে বলে ফলনও মিলবে দেরিতে। তাতে বর্ষা মৌসুমে পানি বাড়লে আশংকা আছে ফসল তলিয়ে যাবার।

রাঙ্গামাটিতে মোট আবাদ হয় সাত হাজার ১৪০ হেক্টর জমিতে। এরমধ্যে জলে ভাসা জমি প্রায় চার হাজার হেক্টর। এতে উৎপাদন হয় ১৬ হাজার মেট্রিক টন খাদ্য শস্য। যা জেলার মোট উৎপাদনের ৪০ ভাগ। এবারও একি লক্ষ্যমাত্রা ধরা হলেও উৎপাদন কম হওয়ার শংকা চাষীদের।

রাঙ্গামাটি পাবর্ত্য জেলার কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক পবন কুমার চাকমা বলেন, যারা এখনো চাষাবাদ শুরু করেনি তারা স্বল্প মেয়াদী জাত বীনা ১৪ চাষ করতে পারেন।

রাঙ্গামাটিতে বছরে খাদ্য চাহিদা ১ লাখ ৮ হাজার মেট্রিক টন। মোট উৎপাদন হয় ৫২ হাজার। ঘাটতি থাকে ৫৬ হাজার মেট্রিক টন।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চট্টগ্রাম 24 খবর