channel 24

সর্বশেষ

  • করোনার উপসর্গ নিয়ে বিভিন্ন স্থানে ১১ জনের মৃত্যু

  • জাতীয় দলে সিনিয়রদের বিকল্প তৈরিতে সময় লাগবে: মোহাম্মদ মিঠুন

  • সাধারণ ছুটিতে নতুন রুপে সেজেছে রাঙ্গামাটি পার্ক

  • লকডাউনের সুফল নিয়ে সংশয় ওয়ারির বাসিন্দাদের

  • পাপুল কর্মকাণ্ড: কুয়েতের জনশক্তি কর্মকর্তা ও এক রাজনীতিক কারাগারে

  • আদাবরে ৪ মাসের শিশুকে ব্লেড দিয়ে গলা কেটে হত্যা

  • 'নগরবাসীকে ডেঙ্গু থেকে সুরক্ষা দিতে শুরু হচ্ছে চিরুনি অভিযান'

  • মানব সেবায় অনন্য নজির নেত্রকোণার আব্দুল হামিদের

  • রাজধানীতে চালের দামের পরিবর্তন নেই; মসলার বাজার স্থিতিশীল

  • মুগদা মেডিকেলে নমুনা পরীক্ষা ঘিরে আনসার-রোগী হাতাহাতি

  • সংকটকালে শিশুর সুরক্ষা ও বিকাশ

  • পরের মৌসুমে মেসির বার্সা ছাড়ার গুঞ্জন

  • ইংলিশ লিগে ম্যান সিটিতে বিধ্বস্ত লিভারপুল

  • যুক্তরাষ্ট্রে একদিনে সর্বোচ্চ ৫৫ হাজার করোনায় আক্রান্ত

  • চীনের সঙ্গে বিরোধপূর্ণ লাদাখ সীমান্ত পরিদর্শন করলেন মোদী

চট্টগ্রাম সিটিতেও ইভিএমে ভোট নিয়ে ঘোর আপত্তি বিএনপির

চট্টগ্রাম সিটিতেও ইভিএমে ভোট নিয়ে ঘোর আপত্তি বিএনপির

ঢাকার দুই সিটির পর, চট্টগ্রামেও ভোট হবে, ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন..ইভিএমে। তাতে এবারও ঘোর আপত্তি বিএনপির। বিশ্লেষকরা বলছেন, যে অস্বচ্ছতার কারণে, এই যন্ত্রের প্রতি অনেকের আগ্রহ কম, তা দূর করতে হবে। অবশ্য বরাবরের মতোই নির্বাচন কর্মকর্তাদের দাবি, ইভিএমে কারচুপির সুযোগ নেই। ভোটারদের আগ্রহ তৈরিতে, সচেতনতা বাড়াতে প্রার্থীদের কাজ করার আহ্বান জানিয়েছে, কমিশন।

সাম্প্রতিক নির্বাচনগুলোতে আলোচনার কেন্দ্রে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন বা ইভিএম। যা দিয়ে ভোট হবে চট্টগ্রাম সিটিতেও।

শুরু থেকেই আওয়ামী লীগ স্বাগত জানালেও ইভিএমকে না বলে আসছে বিএনপি। চট্টগ্রাম সিটির নির্বাচনেও একই অবস্থানে দলটি। বলছে, ইভিএমের স্বচ্ছতা নিশ্চিত না হলে, আস্থা ফিরবেনা তাদের।  

চট্টগ্রাম নগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম বক্কর বলেন, ইভিএম মেশিনে নিরবে যে ভোট চুরির মোহড়া এগুলা থেকে আমরা আতঙ্কিত। তারপরেও আমরা চাই যে নির্বাচনের মাধ্যমেই সমস্ত কিছুর পরিবর্তন হবে।

নির্বাচন পর্যবেক্ষকরাও বলছেন, আগের নির্বাচনগুলোতে ইভিএম নিয়ে যেসব ত্রুটি বা অনিয়মের কথা উঠেছে চট্টগ্রামের ভোটে তার সমাধান জরুরি। না হলে এখানেও তৈরি হবে বিতর্ক।  

চট্টগ্রামের সনাক-টিআইবির সভাপতি অ্যাডভোকেট আখতার কবির চৌধুরী বলেন, ইভিএমের গ্রহণযোগ্যতা আনতে হলে, বিবিপিএটি সংযোজন করা জরুরি। না হলে ইভিএম বিতর্ক যাবে না।

ইভিএম নিয়ে যে শুধু বিতর্ক আছে তা নয়, আগ্রহে ঘাটতি আছে ভোটারদেরও। যা চোখে পড়ে মক ভোটিংয়ে। অনাগ্রহ থেকে যন্ত্রটির ব্যবহার প্রক্রিয়া না জানার কারণে জটিলতা বাড়ে ভোটদানেও। তবে ভোটারদের সচেতন করতে নানা পদক্ষেপের কথা জানান নির্বাচন কর্মকর্তারা।

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মুনীর হোসাইন খান বলেন। ইভিএমের জন্য কয়েকবার করে যেতে হয়। ডেমন্সট্রেশন, মব আবার ইলেকশনের দিনও যেতে হয়।

রিটার্নিং কর্মকর্তা মুহাম্মদ হাসানুজ্জামান বলেন, অনেকের মধ্যেই অনেক সংকোচ কাজ করছে, এগুলো কাটানোর জন্যই আমরা এই মব ভোটিং করে থাকি।

প্রতি ৪শ ভোটারের জন্য একটি ইভিএম ব্যবহারের কথা জানিয়েছেন কর্মকর্তারা। চট্টগ্রামে ভোটকেন্দ্র রয়েছে ৭২১টি। আর ভোটার সংখ্যা ১৯ লাখ ১৭ হাজার।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চট্টগ্রাম 24 খবর