channel 24

সর্বশেষ

  • নারী শ্রমিককে উত্যক্তের প্রতিবাদ করায় বখাটের ছুরিকাঘাতে ঠিকাদার নিহত

  • টিসিবির সয়াবিন তেল কিনে বেশি দামে বিক্রি করায় দুই ব্যবসায়ীকে জরিমানা

  • আমতলী থানা হেফাজতে মৃত্য: ওসির বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের আইনজীবীর

  • সচেতনতা বাড়াতে উদ্যোগ নিয়েছে রাজধানীর ইব্রাহিমপুরের কিছু তরুণ

  • টোকিও অলিম্পিকের নতুন তারিখ ২০২১ সালের ২৩ জুলাই

  • করোনা সন্দেহে মানসিক ভারসাম্যহীন নারীকে বের করে দিলেন স্বজনরা

  • যুক্তরাজ্য থেকে ঢাকায় ৭৩ প্রবাসী, নিজ দেশে ফিরলেন ২৬৯ মার্কিন নাগরিক

  • আপেল চাষ হচ্ছে ঢাকা শহরে বাড়ির ছাদে

  • করোনায় আক্রান্ত তুরস্কের সাবেক গোলরক্ষক রুস্তো রেকবার

  • কোয়ারেন্টিনের মাঝেই ফিটনেস ধরে রাখতে মনোযোগী ফুটবলাররা

  • নারী ক্রিকেটারদেরও আর্থিক সহায়তা দিচ্ছে বিসিবি

  • পীরগাছায় ট্রেনের ইঞ্জিনের ধাক্কায় অটোরিকশার চার যাত্রী নিহত

  • ডাক্তার, নার্স ও হাসপাতাল কর্মীদের পিপিই দেবে বিজিএমইএ

  • ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরি করে বিতরণ করছে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা

  • ইউরোপে বাংলাদেশের জিএসপি বাতিল আবেদন খারিজ

চট্টগ্রাম সিটিতেও ইভিএমে ভোট নিয়ে ঘোর আপত্তি বিএনপির

চট্টগ্রাম সিটিতেও ইভিএমে ভোট নিয়ে ঘোর আপত্তি বিএনপির

ঢাকার দুই সিটির পর, চট্টগ্রামেও ভোট হবে, ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন..ইভিএমে। তাতে এবারও ঘোর আপত্তি বিএনপির। বিশ্লেষকরা বলছেন, যে অস্বচ্ছতার কারণে, এই যন্ত্রের প্রতি অনেকের আগ্রহ কম, তা দূর করতে হবে। অবশ্য বরাবরের মতোই নির্বাচন কর্মকর্তাদের দাবি, ইভিএমে কারচুপির সুযোগ নেই। ভোটারদের আগ্রহ তৈরিতে, সচেতনতা বাড়াতে প্রার্থীদের কাজ করার আহ্বান জানিয়েছে, কমিশন।

সাম্প্রতিক নির্বাচনগুলোতে আলোচনার কেন্দ্রে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন বা ইভিএম। যা দিয়ে ভোট হবে চট্টগ্রাম সিটিতেও।

শুরু থেকেই আওয়ামী লীগ স্বাগত জানালেও ইভিএমকে না বলে আসছে বিএনপি। চট্টগ্রাম সিটির নির্বাচনেও একই অবস্থানে দলটি। বলছে, ইভিএমের স্বচ্ছতা নিশ্চিত না হলে, আস্থা ফিরবেনা তাদের।  

চট্টগ্রাম নগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম বক্কর বলেন, ইভিএম মেশিনে নিরবে যে ভোট চুরির মোহড়া এগুলা থেকে আমরা আতঙ্কিত। তারপরেও আমরা চাই যে নির্বাচনের মাধ্যমেই সমস্ত কিছুর পরিবর্তন হবে।

নির্বাচন পর্যবেক্ষকরাও বলছেন, আগের নির্বাচনগুলোতে ইভিএম নিয়ে যেসব ত্রুটি বা অনিয়মের কথা উঠেছে চট্টগ্রামের ভোটে তার সমাধান জরুরি। না হলে এখানেও তৈরি হবে বিতর্ক।  

চট্টগ্রামের সনাক-টিআইবির সভাপতি অ্যাডভোকেট আখতার কবির চৌধুরী বলেন, ইভিএমের গ্রহণযোগ্যতা আনতে হলে, বিবিপিএটি সংযোজন করা জরুরি। না হলে ইভিএম বিতর্ক যাবে না।

ইভিএম নিয়ে যে শুধু বিতর্ক আছে তা নয়, আগ্রহে ঘাটতি আছে ভোটারদেরও। যা চোখে পড়ে মক ভোটিংয়ে। অনাগ্রহ থেকে যন্ত্রটির ব্যবহার প্রক্রিয়া না জানার কারণে জটিলতা বাড়ে ভোটদানেও। তবে ভোটারদের সচেতন করতে নানা পদক্ষেপের কথা জানান নির্বাচন কর্মকর্তারা।

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মুনীর হোসাইন খান বলেন। ইভিএমের জন্য কয়েকবার করে যেতে হয়। ডেমন্সট্রেশন, মব আবার ইলেকশনের দিনও যেতে হয়।

রিটার্নিং কর্মকর্তা মুহাম্মদ হাসানুজ্জামান বলেন, অনেকের মধ্যেই অনেক সংকোচ কাজ করছে, এগুলো কাটানোর জন্যই আমরা এই মব ভোটিং করে থাকি।

প্রতি ৪শ ভোটারের জন্য একটি ইভিএম ব্যবহারের কথা জানিয়েছেন কর্মকর্তারা। চট্টগ্রামে ভোটকেন্দ্র রয়েছে ৭২১টি। আর ভোটার সংখ্যা ১৯ লাখ ১৭ হাজার।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চট্টগ্রাম 24 খবর