channel 24

সর্বশেষ

  • ডাকঘরে সঞ্চয় স্কিমে সুদের হার কমানোর সিদ্ধান্তে দুশ্চিন্তায় নিম্ন ও মধ্যবিত্তরা

  • গানে গানে বাংলা ভাষাকে ছড়িয়ে দিচ্ছেন জাপানিজ দম্পতি

  • করোনা আতঙ্কে ভুতুড়ে নগরী দক্ষিণ কোরিয়ার দায়েগু

  • দৌলতদিয়াতে আরেক যৌনকর্মীর জানাজা অনু‌ষ্ঠিত

  • চাঁপাইনবাবগঞ্জে ধর্ষণ ও হত্যায় অভিযুক্ত বন্দুকযুদ্ধে নিহত

  • কল্পনার রং আর নকশার কারুকাজে শহীদ মিনারের প্রতিটি সড়ক একেকটি ক্যানভাস

  • মাগুরায় ছাত্রলীগ-ছাত্রদলের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া

  • একুশের প্রথম প্রহরে ভাষা শহীদদের প্রতি রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

  • নারীর গৃহস্থালী কাজকে সরাসরি জাতীয় আয়ে যুক্ত করার সুযোগ এখনো নেই: অর্থমন্ত্রী

  • শুক্রবার থেকে পাওয়া যাবে বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে টেস্ট টিকিট

  • ফরিদপুরে ওবায়দুর রহমানের আত্মার শান্তি কামনায় দোয়া মাহফিল

  • ফের ঢাকার বাতাস বিশ্বের সবচেয়ে দূষিত

  • একুশের প্রথম প্রহরে ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধা জানাতে প্রস্তুত গোটা দেশ

  • বাংলা ওয়েবসাইট চালু করলো মার্কিন দূতাবাস

  • চুড়িহাট্টায় আগুনে ক্ষতিগ্রস্তদের পর্যাপ্ত ক্ষতিপূরণসহ ৮ দফা দাবি

চট্টগ্রামের গণহত্যা পরিকল্পিত; শেখ হাসিনাকে হত্যার উদ্দেশ্যে এ হামলা

চট্টগ্রামের গণহত্যা পরিকল্পিত; শেখ হাসিনাকে হত্যার উদ্দেশ্যে এ হামলা

বহু প্রতীক্ষার পর রায় হয়েছে চট্টগ্রামের আলোচিত গণহত্যা মামলার। যাতে, পাঁচ পুলিশ সদস্যকে মৃত্যুদণ্ড ছাড়াও হামলার ঘটনা পরিকল্পিত বলে পর্যবেক্ষণ দিয়েছেন আদালত। কিন্তু এই পরিকল্পনার পেছনে মাস্টারমাইন্ড কে বা কারা এই বিষয়টি রয়ে গেছে অজানা।

তিন দশক পর রায় হলো চট্টগ্রামের আলোচিত এ গণহত্যা মামলার। তাতে, পাঁচজনকে মৃত্যুদন্ড দেন আদালত। যাদের সবাই পুলিশের সেই সময়কার মাঠ পর্যায়ের সদস্য।

রায়ের পর্যবেক্ষণে আদালত এটিকে পরিকল্পিত এবং তৎকালীন আট দলীয় জোটনেত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা বলে মত দেন। যদিও নৃশংস এই হত্যাকাণ্ডের মূল হোতা কে বা কারা তা স্পষ্ট হয়নি। একইভাবে মারা যাওয়ায় প্রধান আসামিকেও আনা যায়নি শাস্তির আওতায়।

আইনজীবীদের মতে, রাজনৈতিক নেতৃত্বকে হত্যার চেষ্টায় রাষ্ট্রীয়বাহিনীকে সরাসরি ব্যবহারের বিষয়টি স্পষ্ট এই রায়ে। তাই ঘটনার পরিকল্পনাকারীদের খুঁজে বের করা দরকার বলে মনে করেন তারা।

আইনজ্ঞ ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা বলছেন, এই রায় একটি সতর্ক সংকেত। কেননা, গণমানুষের বিরুদ্ধে গিয়ে কোনো অন্যায় বা গণহত্যা চালালে একদিন না একদিন যে তার শাস্তি পেতে হয়, সেই বার্তা এলো এই রায়ে।

১৯৮৮ সালের ২৪ জানুয়ারি চট্টগ্রামে শেখ হাসিনার গাড়ি বহরে পুলিশের বেপরোয়া গুলিতে মারা যান অন্তত ২৪ জন। হত্যার প্রমাণ মুছে দিতে ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে নিহতদের মরদেহ পুড়িয়ে ফেলা হয় শ্মশানে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চট্টগ্রাম 24 খবর