channel 24

সর্বশেষ

  • রিজেন্ট চেয়ারম্যান সাহেদের বিরুদ্ধে চট্টগ্রামে মামলা

  • মালদ্বীপে বকেয়া বেতনের দাবিতে পুলিশের সাথে শ্রমিকদের সংঘর্ষ, ৩৯ বাংলাদেশি আটক

  • পশ্চিমবঙ্গে বিজেপি বিধায়কের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

  • থমকে যাওয়া সেই নৌপথে আবারও দুরন্ত গতিতে ছুটবে জলযান

  • সাহেদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি

  • দু'বছর ধরে লাইসেন্স ছাড়াই লাজ ফার্মার ব্যবসা

  • জাভি হার্নান্দেজই হচ্ছেন বার্সেলোনার কোচ: ক্লাব প্রেসিডেন্ট

  • আগামী মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ খেলতে বাধা নেই ম্যান ইউ'র

  • টাকা চাইলেই পাওনাদারদের ওপর নামতো জেকেজির নির্যাতনের খড়গ

  • বন্যা পরিস্থিতির অবনতি, ১০টি নদ-নদীর পানি বিপৎসীমার উপরে

  • হজ্জ্ব ক্যাম্পে কোয়ারেন্টিন শেষে বাড়ি ফিরলো ৯৬ কুয়েত প্রবাসী

  • সর্দিজ্বর, কাশি ও শ্বাসকষ্টে ৬ জনের মৃত্যু

  • ৭ মার্চকে 'জাতীয় ঐতিহাসিক দিবস' ঘোষণার প্রস্তাব মন্ত্রিসভায় সম্মতি

  • লাজ ফার্মায় র‌্যাবের অভিযান

  • সাবরিনার কাছে রিমান্ডে মিলতে পারে ভুয়া করোনা সনদ বাণিজ্যের তথ্য

চট্টগ্রামে বস্তা প্রতি ৪০ থেকে ৫০ টাকা বেড়েছে লবণের দাম

চট্টগ্রামে বস্তা প্রতি ৪০ থেকে ৫০ টাকা বেড়েছে লবণের দাম

লবণের সংকট নেই, তাই দাম বাড়ারও সম্ভাবনা নেই। এমন দাবি করেছিলেন চট্টগ্রামের মিল মালিক-পাইকারী ব্যবসায়ীরা। কিন্তু, তা না মেনে হঠাৎ সংকটের অজুহাত তুলে বস্তা প্রতি চল্লিশ থেকে পঞ্চাশ টাকা দাম বাড়িয়ে দিয়েছেন তারা। তবে প্রশাসন বলছে, ইচ্ছাকৃত দাম বাড়ানোর প্রমাণ পেলে নেয়া হবে কঠোর ব্যবস্থা।

চট্টগ্রামের মাঝিরঘাটের মিলগুলোতে পাইকারীতে খোলা লবণ বিক্রি হয় প্রতিকেজি ৭ থেকে ৮ টাকা। আর প্যাকেটজাত লবণ বিক্রি হয় ১০ টাকায়।

কিন্তু একরাতের মধ্যেই তা বদলে গেছে। চাহিদা বেশি থাকার সুযোগে বস্তা প্রতি চল্লিশ থেকে পঞ্চাশ টাকা দাম বাড়িয়ে দেন মিল মালিকরা।

ফলে ৭৪ কেজির এক বস্তা খোলা লবণ বিক্রি হচ্ছে ৬শ থেকে ৬শ ২০ টাকা। আর ২৫ কেজির প্যাকেটজাত লবণ বিক্রি হচ্ছে প্রতি কার্টুন ৩শ থেকে ৩শ ১০ টাকা।

অথচ ব্যবসায়ীরাই কথা দিয়েছিলেন, লবণের যে মজুত আছে তাতে সংকট আর দাম বাড়ার কোন কারণ নেই। কিন্তু এরপরও তারা নিজেদের মতো করেই দাম বাড়িয়ে দিয়েছেন। অভিযোগ উঠেছে, প্রকৃত মূল্য লুকিয়ে তারা প্রশাসনকেও দিয়েছেন ভুল তথ্য।

চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেন জানান, কেউ ইচ্ছাকৃত লবণের দাম বাড়ালে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বর্তমানে চট্টগ্রাম ও কক্সবাজারে প্রায় ৩ লাখ টন লবণ মজুদ আছে। সারাদেশে যার পরিমাণ সাড়ে ছয় লাখ। যা দিয়ে পূরণ হবে সারাদেশের ছয় মাসের চাহিদা।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চট্টগ্রাম 24 খবর