channel 24

সর্বশেষ

  • রিজেন্ট হাসপাতাল ও জেকেজি সম্পর্কে জানা ছিল না: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

  • রিজেন্ট চেয়ারম্যান সাহেদের পাসপোর্ট জব্দ

  • লাভের আশায় গরু পালন করে দাম নিয়ে দুশ্চিন্তায় খামারীরা

  • আগামী মাসে মাঠে গড়াচ্ছে ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ

  • আবারও মনোবিদ আজহার আলীর ওপর আস্থা বিসিবির

  • আগস্টের প্রথম সপ্তাহ থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ফুটবল দলের আবাসিক ক্যাম্প

  • সাউদাম্পটন টেস্টে ৯৯ রানে পিছিয়ে ইংল্যান্ড

  • বিএফডিসিতে অসহায় শিল্পীদের সহায়তা করলেন অনন্ত-বর্ষা

  • সিলেটে বিষ খাইয়ে হত্যাচেষ্টা, মা-ছেলে কারাগারে

  • কুমিল্লায় ব্যবসায়ী আকতার হত্যার ঘটনায় মামলা

  • সাংবিধানিক কারণেই করোনার মধ্যে উপনির্বাচন: সিইসি

  • বানের জলে ডুবছে লোকালয়; সুরমা উপচে তলিয়েছে সুনামগঞ্জ শহর

  • এখনও অধরা রিজেন্ট কাণ্ডের নাটের গুরু সাহেদ

  • সাংবাদিকদের মাঝে করোনাকালীন সহায়তার চেক বিতরণ

  • অনলাইন থেকে গরু কিনলেন তিন মন্ত্রী

চট্টগ্রামে হঠাৎ লবণের বেচাকেনা বৃদ্ধিতে হতবাক ব্যবসায়িরা

চট্টগ্রামে হঠাৎ লবণের বেচাকেনা বৃদ্ধিতে হতবাক ব্যবসায়িরা

দেশে লবণ উৎপাদনের মূলকেন্দ্র চট্টগ্রাম-কক্সবাজার। যেখানে চাষী এবং মিল মালিকদের কাছে মজুত আছে লাখ লাখ টন। তারওপর সপ্তাহ খানেকের মধ্যেই শুরু হচ্ছে লবণ উৎপাদনের নতুন মৌসুম। ফলে সংকট বা দাম বাড়ার কোন কারণই দেখছেন না মিল মালিকরা।

চট্টগ্রামের কর্ণফুলি মার্কেটে মঙ্গলবার বিকেলে হঠাৎ বেড়ে যায় লবণের বেচাকেনা। চাহিদার দ্বিগুন পরিমান লবণ নিয়ে যাচ্ছেন ক্রেতারা। কেবল মার্কেটে নয় অলিগলির বিভিন্ন দোকানেও বেড়েছে লবণের চাহিদা।

হঠাৎ এমন বেচাকেনায় হতবাক খোদ ব্যবসায়িরাও। কোন সংকট নেই কিন্তু ক্রেতাদের এ বাড়তি চাহিদার সুযোগে কেজিপ্রতি দুই এক টাকা করে বাড়িয়েও নিচ্ছেন তারা।

খুচরা বাজারে যখন এ অবস্থা তার উল্টো চিত্র লবণের পাইকারী বাজার মাঝিরঘাট, চাক্তাই ও পটিয়ার ইন্দ্রপোলের দেড়শোটি মিলে। দেশের চাহিদার ৭৫ ভাগ পূরণ করা এ মিলগুলোতে টনে টনে মজুদ আছে লবণ। যেখানে কেজি প্রতি খোলা লবণ বিক্রি হচ্ছে মাত্র ৭ থেকে ৮ টাকা। আর প্যাকেট লবণ ১০ টাকা।

দেশে চাহিদার শতভাগ লবণ উৎপাদন হয় কক্সবাজার-চট্টগ্রামে। যেখানে লবণ মজুদ আছে ৩ লাখ টনেরও বেশি।   

বাংলাদেশ লবণ মিল মালিক সমিতির সভাপতি নুরুল কবির বলেন, আগামী মার্চ-এপ্রিল মাস পর্যন্ত দেশে পর্যাপ্ত পরিমানে লবন মজুদ আছে। লবনের কোন সংকট নেই।

গত মৌসুমে চট্টগ্রাম-কক্সবাজারে উৎপাদন হয় ১৮ লাখ ২৪ হাজার মেট্রিক টন। যা দেশের মোট চাহিদারও বেশি, সেইসাথে ৫৮ বছরের মধ্যে রেকর্ড। চলতি মৌসুমে মাঠে লবণ উৎপাদনের কাজ শুরু হবে আগামী সপ্তাহে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চট্টগ্রাম 24 খবর