channel 24

সর্বশেষ

  • চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের নতুন সভাপতি এম এ সালাম...

  • সাধারণ সম্পাদক শেখ আতাউর রহমান

  • এসএ গেমস: ভারোত্তোলনে মাবিয়া আক্তার, জিয়ারুল ইসলাম...

  • ফেন্সিংয়ে ফাতেমা মুজিব স্বর্ণ জিতেছেন; বাংলাদেশের স্বর্ণ ৭

  • কারো নির্দেশে নয়, হস্তক্ষেপমুক্ত বিচার বিভাগ চাই: বিচারপতি নুরুজ্জামান

  • রাষ্ট্রের তিনটি বিভাগের মধ্যে সমন্বয় থাকা প্রয়োজন...

  • একের কাজে অন্যের হস্তক্ষেপ ন্যায়বিচার বাধাগ্রস্ত করে: প্রধানমন্ত্রী

  • খালেদা জিয়ার জামিন নিয়ে নাটক করছে সরকার: ফখরুল...

  • মুক্তি দাবিতে রাজধানীসহ দেশের সব জেলায় বিক্ষোভ কাল

  • স্টামফোর্ডের শিক্ষার্থী রুম্পাকে ধর্ষণ ও হত্যার বিচার দাবিতে...

  • ধানমন্ডি ও সিদ্ধেশ্বরীতে সহপাঠীদের মানববন্ধন

  • অন্যায়ভাবে চাকরিচ্যুতি ও ছাঁটাইয়ের অভিযোগে...

  • এসএ টিভির কার্যালয়ে তালা দিয়েছেন আন্দোলনরত সাংবাদিকরা

  • এসএ গেমস: ভারোত্তোলন: ৭৬ কেজিতে স্বর্ণ জিতেছেন মাবিয়া আক্তার...

  • আসরে এটি বাংলাদেশের পঞ্চম স্বর্ণ...

  • ৮১ কেজি ওজন শ্রেণিতে রৌপ্য জিতেছেন জোহরা খাতুন...

  • ক্রিকেট: নেপালকে ৪৪ রানে হারিয়ে ফাইনালে বাংলাদেশ...

  • স্কোর: বাংলাদেশ ১৫৫/৬ (নাজমুল হোসেন ৭৫*) নেপাল ১১১/৯

চট্টগ্রামে হঠাৎ লবণের বেচাকেনা বৃদ্ধিতে হতবাক ব্যবসায়িরা

চট্টগ্রামে হঠাৎ লবণের বেচাকেনা বৃদ্ধিতে হতবাক ব্যবসায়িরা

দেশে লবণ উৎপাদনের মূলকেন্দ্র চট্টগ্রাম-কক্সবাজার। যেখানে চাষী এবং মিল মালিকদের কাছে মজুত আছে লাখ লাখ টন। তারওপর সপ্তাহ খানেকের মধ্যেই শুরু হচ্ছে লবণ উৎপাদনের নতুন মৌসুম। ফলে সংকট বা দাম বাড়ার কোন কারণই দেখছেন না মিল মালিকরা।

চট্টগ্রামের কর্ণফুলি মার্কেটে মঙ্গলবার বিকেলে হঠাৎ বেড়ে যায় লবণের বেচাকেনা। চাহিদার দ্বিগুন পরিমান লবণ নিয়ে যাচ্ছেন ক্রেতারা। কেবল মার্কেটে নয় অলিগলির বিভিন্ন দোকানেও বেড়েছে লবণের চাহিদা।

হঠাৎ এমন বেচাকেনায় হতবাক খোদ ব্যবসায়িরাও। কোন সংকট নেই কিন্তু ক্রেতাদের এ বাড়তি চাহিদার সুযোগে কেজিপ্রতি দুই এক টাকা করে বাড়িয়েও নিচ্ছেন তারা।

খুচরা বাজারে যখন এ অবস্থা তার উল্টো চিত্র লবণের পাইকারী বাজার মাঝিরঘাট, চাক্তাই ও পটিয়ার ইন্দ্রপোলের দেড়শোটি মিলে। দেশের চাহিদার ৭৫ ভাগ পূরণ করা এ মিলগুলোতে টনে টনে মজুদ আছে লবণ। যেখানে কেজি প্রতি খোলা লবণ বিক্রি হচ্ছে মাত্র ৭ থেকে ৮ টাকা। আর প্যাকেট লবণ ১০ টাকা।

দেশে চাহিদার শতভাগ লবণ উৎপাদন হয় কক্সবাজার-চট্টগ্রামে। যেখানে লবণ মজুদ আছে ৩ লাখ টনেরও বেশি।   

বাংলাদেশ লবণ মিল মালিক সমিতির সভাপতি নুরুল কবির বলেন, আগামী মার্চ-এপ্রিল মাস পর্যন্ত দেশে পর্যাপ্ত পরিমানে লবন মজুদ আছে। লবনের কোন সংকট নেই।

গত মৌসুমে চট্টগ্রাম-কক্সবাজারে উৎপাদন হয় ১৮ লাখ ২৪ হাজার মেট্রিক টন। যা দেশের মোট চাহিদারও বেশি, সেইসাথে ৫৮ বছরের মধ্যে রেকর্ড। চলতি মৌসুমে মাঠে লবণ উৎপাদনের কাজ শুরু হবে আগামী সপ্তাহে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চট্টগ্রাম 24 খবর