channel 24

সর্বশেষ

  • আবরার হত্যা মামলা: পলাতক ৪ আসামির বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি

  • চট্টগ্রামের দুর্ঘটনা গ্যাস লিকেজ থেকেই: বিশেষজ্ঞরা

  • খুলনায় সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ডোপ টেস্ট কার্যক্রমের উদ্বোধন

  • বরিশাল আদালতে পদে পদে ঘুষ দিতে হয় বিচার প্রার্থীদের

  • চট্টগ্রামের পাথরঘাটার বড়ুয়া বিল্ডিংটি ছিল রীতিমত গ্যাস চেম্বার

  • পুরনো ব্রিজ আর ত্রুটিপূর্ণ সিগনাল ব্যবস্থায় ঝুঁকিতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেললাইন

  • ট্রাফিক বিভাগকে হুমকি: লালমনিরহাট রেলভবনের নিরাপত্তা জোরদার

  • ফরিদপুরে সাংবাদিক গৌতম দাসের মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

  • গ্রামীণফোনের কাছে বিটিআরসির পাওনা নিয়ে আদেশ রোববার

  • নতুন সড়ক পরিবহন আইন কার্যকরে দেশের বিভিন্ন জায়গায় বাস চলাচল বন্ধ

  • কমতে শুরু করেছে পেঁয়াজের বাজারদর

  • নোয়াখালীতে বাস-মোটরসাইকেল সংঘর্ষে ৩ যুবক নিহত

  • হংকংয়ে ফের আন্দোলনকারীদের সাথে পুলিশের সংঘর্ষ

  • ঝিনাইদহে পুলিশের সাথে 'বন্দুকযুদ্ধে' নিহত ১

  • চালের দাম না বাড়ানোর আশ্বাস কুষ্টিয়ার চালকল মালিকদের

এক লাখ রোহিঙ্গাকে ভাসানচরে স্থানান্তরের প্রক্রিয়া শুরু আগামী মাসেই

এক লাখ রোহিঙ্গাকে ভাসানচরে স্থানান্তরের প্রক্রিয়া শুরু আগামী মাসেই

কক্সবাজারের উখিয়া-টেকনাফে আশ্রয় নেয়াদের মধ্যে, এক লাখ রোহিঙ্গাকে ভাসানচরে স্থানান্তরের প্রক্রিয়া শুরু হচ্ছে আগামী মাসেই। এরইমধ্যে ভাসানচরে স্বেচ্ছায় যেতে সম্মতি জানিয়েছে প্রায় একশো পরিবার। সরকারের সিদ্ধান্ত মেনে নিরাপদ বসবাসের জন্য তাদের এই সিদ্ধান্ত। যদিও বেশিরভাগ রোহিঙ্গাই ভাসানচরে যেতে নারাজ।

নিজদেশে ভিটেমাটি ছেড়ে কক্সবাজারের ক্যাম্পে রোহিঙ্গারা। যাদের মধ্যে এক লাখ মানুষকে নোয়াখালীর ভাসানচরে নিয়ে উদ্যোগ নিয়েছে সরকার।

ইতোমধ্যে ভাসানচরে নির্মাণ করা হয়েছে ঘর। সেখানে নিয়ে যেতে উখিয়া-টেকনাফে এখন চলছে রোহিঙ্গাদের মতামত গ্রহণের কাজ। তাতে ভাসানচরে যেতে সম্মতি দিয়েছেন বেশকিছু রোহিঙ্গা। ক্যাম্পের চেয়ে ভাসানচরে সুবিধা হবে, সরকারের এমন ব্যবস্থার পক্ষে বলেও জানান তারা।

তারা বলেন, ছেলেমেয়েদের পড়াশোনা সহ সব সুযোগ সুবিধা পেলে আমরা যেতে রাজি আছি। রোহিঙ্গা ক্যাম্প মাঝি নূর হোসেন বলেন, আমাদের নিজেদের দেশ নাই। বাংলাদেশ সরকার যেহেতু আমাদের জায়গা দিয়ে রাখবে বলেছে সেহেতু সরকারের কথা মেনে নেব।

তবে বেশিরভাগ রোহিঙ্গার মধ্যে এখনো ভাসানচর নিয়ে রয়েছে ভীতি। তারা চান মিয়ানমারে ফেরত যেতে। তারা বলেন, ভাসাঞ্চরে না গিয়ে আমাদের দেশে চলে যাবো। যারা সেখানে যাবে বলছে, তারা গত ২০-৩৫ বছর ধরে আছে। আমরা বাংলাদেশে থাকতে আসিনি। আমরা যে বিচারের অপেক্ষায় আছি, সেটা পেলে চলে যেতে চাই। যাবো কিভাবে, সেটা ভাবলেও ভয় লাগছে। আমাদের সেখানে নিয়ে যাওয়ার চেয়ে এখানে মরাই ভাল।

কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন জানিয়েছেন, ১শ' পরিবার ইতোমধ্যে ভাসানচরে যেতে রাজি হয়েছে। মতামত গ্রহণ শেষে নভেম্বর মাসে সেখানে নিয়ে যাওয়ার প্রক্রিয়া শুরুর প্রস্তুতি রয়েছে বলেও জানান তিনি।

কক্সবাজারের উখিয়া-টেকনাফের ৩৪টি ক্যাম্পে এখন অবস্থান করছেন ১১ লাখ রোহিঙ্গা।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চট্টগ্রাম 24 খবর