channel 24

সর্বশেষ

  • চট্টগ্রাম ওয়াসার এমডির দুর্নীতি বিরুদ্ধে কী ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে, জানতে চান হাইকোর্ট

  • পুঁজিবাজারে দেশের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় আইপিও'র অনুমোদন

  • কক্সবাজারে হাত ও পায়ের রগ কেটে মাকে হত্যা

  • কক্সবাজারে প্রকাশ্যে অস্ত্রের মহড়া, ছাত্রলীগ নেতা বহিষ্কার

  • ২৭ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশের শ্রীলঙ্কা সফর অনিশ্চিত: বিসিবি

  • স্পেনেই থাকছেন লুইস সুয়ারেজ

  • আদার যত গুণ

  • করোনায় দেশে আরও ৩৭ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১৬৬৬

  • শাপলা শুধু সৌন্দর্যই নয়, এখন রুটি-রুজির অংশ

  • ৫৪ হাজার রোহিঙ্গাকে পাসপোর্ট দিতে চাপ দিচ্ছে সৌদি আরব: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

  • পাহাড়ে পিছিয়ে পড়া নারীদের কাছে এক স্বপ্নের নাম সুচরিতা চাকমা

  • সূচকের ইতিবাচক ধারায় শেষ হল চতুর্থ কার্যদিবসের লেনদেন

  • ক্রিকেটার আবু জায়েদ রাহী করোনায় আক্রান্ত

  • কক্সবাজার পৌর মেয়রের শ্যালকের ৪ কোটি টাকা জব্দ

  • বৈরী আবহাওয়ায় চট্টগ্রাম বন্দরে বন্ধ রয়েছে পণ্য খালাস

অস্ত্রের মুখে ভূমিদস্যুর কব্জায় শিক্ষকের ভিটেমাটি

অস্ত্রের মুখে ভূমিদস্যুর কব্জায় শিক্ষকের ভিটেমাটি

অস্ত্রের মুখে রেজিস্ট্রি নিয়ে যুবলীগ নামধারী সাত ভূমিদস্যু দাবি করছে তারা কিনে নিয়েছে জায়গাটি। এরপর বাড়ি ছাড়তে অনবরত হুমকি-চাপ। ফলে, চট্টগ্রামের আনোয়ারায় বাপদাদার ভিটেমাটি হারিয়ে অন্যত্র আশ্রয় নিয়েছেন সাবেক শিক্ষক, শতবর্ষী নিরঞ্জন চক্রবর্তী ও তার পরিবার। এ নিয়ে মামলা হলেও ধরা ছোঁয়ার বাইরে আসামিরা।

চট্টগ্রামের আনোয়ারা সদরের এলাকায় জীর্ণ মাটিতে পরিবার নিয়ে থাকতেন একসময়কার পন্ডিত শিক্ষক হিসেবে এলাকায় পরিচিত শিক্ষক নিরঞ্জন চক্রবর্তী। কিন্তু সেটিই এখন ভূমিলোভীদের কব্জায়।

অভিযোগ, গত ১০ এপ্রিল অস্ত্রের মুখে এই বসতভিটাসহ আশপাশের প্রায় আটগন্ডা ভূমি নিজেদের নামে লিখে নেয় যুবলীগ নামধারী কামরুল ইসলাম হেলাল, আনোয়ার, মানিকসহ কয়েকজন। পরে তাদের হুমকির মুখে স্বজনদের নিয়ে বাড়ি ছাড়তে বাধ্য হন শতবর্ষী এই মানুষটি। আশ্রয় নেন অন্যত্র।   

স্থানীয়দের অভিযোগ, তাদেরও হুমকী দিচ্ছে অভিযুক্তরা। আর নিরঞ্জনের সাবেক কর্মস্থল আনোয়ারা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের দাবি, সুষ্ঠু বিচারের।

এঘটনায় গত ১৮ এপ্রিল সাতজনকে আসামী করে মামলা মামলা হয়। এখন জড়িতদের ধরতে চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

দায়ীদের দ্রুত আইনের আওতায় আনার মাধ্যমে শংকামুক্ত অবস্থায় বাড়ি ফিরে যাওয়ার পরিবেশ চেয়েছেন ভূক্তভোগীরা।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চট্টগ্রাম 24 খবর