channel 24

সর্বশেষ

  • লিগ কাপের কোয়ার্টার ফাইনালে ম্যানচেস্টারের দুই দল

  • সুপার কাপে ডর্টমুন্ডকে হাড়িয়ে বায়ার্ন সাফল্যগাঁথা অব্যাহত

  • মৌলভীবাজারে হাসপাতালে চিকিৎসা না পেয়ে প্রসূতির মৃত্যু

  • চালের দাম নির্ধারণ করে দিলেও প্রভাব পড়েনি বাজারে

  • প্রয়োজনে ফের কঠোর বিধিনিষেধ ফিরবে যুক্তরাজ্যে: বরিস জনসন

  • জীববৈচিত্র রক্ষায় জাতিসংঘে ৪ দফা প্রস্তাব প্রধানমন্ত্রীর

  • বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতি দায়িত্ব পালনে ঢাবির সাবেক শিক্ষার্থীদের এগিয়ে আসার আহ্বান

  • ফুটবল নির্বাচনে সাবেকদের মেলা, সবার কন্ঠে ফুটবল উন্নয়নের বুলি

  • ঘরোয়া ক্রিকেট নিয়ে এখনো সিদ্ধান্তহীনতায় বিসিবি

  • শেষ রক্ষা হলো না মিন্নির

  • জাতীয় ও যুব দলের ৫৩ ক্রিকেটারের করোনা পরীক্ষা

  • ভাসমান নৌকা নিয়ে মানববন্ধন

  • রংপুরে পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসানোর অভিযোগ

  • চট্টগ্রামে দশের অধিক মামলার আসামি উসমান গ্রেপ্তার

  • বৃহত্তর স্বার্থে ঋণের কিস্তি পরিশোধে ডিসেম্বর পর্যন্ত ছাড় দেয়া হয়েছে: অর্থমন্ত্রী

নির্যাতনের পর নারীকে ইয়াবা দিয়ে চালান, পুলিশি তদন্তে গুমট ফাঁস

নির্যাতনের পর নারীকে ইয়াবা দিয়ে চালান, পুলিশি তদন্তে গুমট ফাঁস

অপহরণ, ধর্ষণ। অতঃপর ইয়াবা দিয়ে পুলিশের হাতে তুলে দেয়া। ফলাফল চার মাসের কারাভোগ। চট্টগ্রামে এমনই নির্মমতার শিকার হয়েছেন এক নারী। সম্প্রতি পুলিশের দুটি ইউনিটের তদন্তে বেরিয়ে আসে, বাবার সম্পত্তি হাতিয়ে নিতে, সৎ মাকে এভাবে হেনস্তা করা হয়েছে। আর এই কাজে সম্পৃক্ত ছিলেন এক ওসিসহ তিন পুলিশ সদস্য।

গেল মাসের প্রথম সপ্তাহে কারাগার থেকে মুক্তি পেয়েও স্বস্তিতে নেই এই নারী। প্রতিনিয়ত পাচ্ছেন হুমকি। তাই রয়েছেন আতংকে।

ঘটনাটি গেল বছরের ২৯ আগস্টের। অভিযোগ, ওইদিন বিকেলে নগরীর হালিশহর এলাকার বাসা থেকে তাকে তুলে নিয়ে যান স্বামীর প্রথম স্ত্রীর সন্তান খোকনসহ কয়েকজন। তাকে ধর্ষণের পর ফেলে দেয়া হয়, সীতাকুণ্ডের কুমিরায়। এরপর ইয়াবাসহ এই নারীকে আটক দেখায় পুলিশ। কারাভোগ করেন চারমাস।  

আরও জানতে: যে রোগ হলে মনে থাকে সব কিছু!

আসামির মরদেহে হারকিউলিসের চিরকুট নিয়ে প্রশ্ন

উদোর পিণ্ডি বুদোর ঘাড়ে

তবে আসল ঘটনা বেরিয়ে আসে পিবিআই ও ডিবির তদন্তে। আদালতের নির্দেশে তদন্ত শেষে তারা সম্প্রতি যে প্রতিবেদন জমা দিয়েছেন তাতে বলা হয়, এই নারী ইয়াবা কারবারি নন। অভিযুক্তদের সাথে যোগসাজশে তাকে ফাঁসানো হয়েছে। যাতে সম্পৃক্ত সীতাকুন্ড থানার সাবেক ওসি ইফতেখার হাসান, এসআই সিরাজ মিয়াসহ তিন পুলিশ মিলে মোট ১৩ জন।  

মূলত বাবার সম্পত্তি হাতিয়ে নিতে এমন ঘটনা সাজান খোকন-অভিযোগ ভুক্তভুগী নারীর। যদিও তা অস্বীকার করেন খোকন।

এ ব্যাপারে বক্তব্য পাওয়া যায়নি অভিযুক্ত দুই পুলিশ কর্মকর্তার। তবে ঘটনাটি তদন্তে কমিটি গঠন করা হয়েছে বলে জানান জেলা পুলিশের এই কর্মকর্তা।

নির্যাতিত নারীর আইনজীবীরা পুরো বিষয়টি আদালতে উপস্থাপন করবেন মঙ্গলবার ৫ ফেব্রুয়ারি।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চট্টগ্রাম 24 খবর