channel 24

সর্বশেষ

  • ঢাকা ওয়াসার আয় বেড়েছে ৪ গুণ

  • ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় লাইসেন্সবিহীন অটোরিকশার দাপট (ভিডিও)

  • জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স চতুর্থ বর্ষের পরীক্ষার রুটিন বাতিলের দাবি

  • গোমস্তাপুরে পুলিশ পরিচয়ে ১৫ গরু ডাকাতি

  • শেষ হতে যাচ্ছে আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশনের দিন

  • ১৯৫৪ বিশ্বকাপজয়ী দলের শেষ সদস্যের মৃত্যু

  • জোর করে আফগান নারীকে বিয়ে করা যাবে না: তালেবান

  • নাটোরের অপহৃত স্কুলছাত্রী উদ্ধার, যুবক আটক

  • আলো স্বল্পতায় বন্ধ তৃতীয় সেশনের খেলা

  • স্বাধীনতা বিরোধী চক্র এখনো তৎপর: কৃষিমন্ত্রী

  • শিক্ষকের মৃত্যু: কুয়েট ছাত্রলীগের সম্পাদকসহ ৯ ছাত্র বহিষ্কার

  • ইহুদিদের ভুল শোধরাতে হিব্রু ভাষায় কোরআন

  • রাজধানীতে আজ আকাশ মেঘলা থাকলেও বৃষ্টি হতে পারে কাল

  • লাল কার্ড নিয়ে রাস্তায় শিক্ষার্থীরা

  • ভিডিও ভাইরাল: চেয়ারম্যান আব্দুল কাদেরকে বহিষ্কার দাবি

ইভ্যালির অর্থ পাচারের বিষয়ে অনেকটাই নিশ্চিত নবগঠিত বোর্ড চেয়ারম্যান (ভিডিও)

ইভ্যালির অর্থ পাচারের বিষয়ে অনেকটাই নিশ্চিত নবগঠিত বোর্ড চেয়ারম্যান (ভিডিও)

নিশ্চিতভাবেই ইভ্যালির অর্থ পাচার হয়েছে- এমনটাই মনে করছেন, প্রতিষ্ঠানটির নবগঠিত পরিচালনা বোর্ডের চেয়ারম্যান ও সাবেক বিচারপতি সামসুদ্দিন মানিক। অর্থের হদিস পেতে বাংলাদেশ ব্যাংকের সাথে নিবিড়ভাবে কাজ করতে চান তিনি। জানান, বোর্ডের সব সদস্যের সমন্বয়েই নেয়া হবে গ্রাহকদের অর্থ উদ্ধারের পরিকল্পনা। 

ইভ্যালি পরিচালনার দায়িত্ব পেল নতুন বোর্ড। তবে অর্থ ফেরতে কাটছেই না লাখো গ্রাহকের সংশয়।

আরও পড়ুন: আম্পানের দেড় বছর পরও পানিবন্দী প্রতাপনগরবাসী 

ভুক্তভোগী একজন বলেন, আমার চেকটা বাউন্স করে, তারপর ইভ্যালির অবস্থা বাজে হয়ে যায়। সিইও গ্রেপ্তার হয়। তাই এখন ভীত যে টাকাগুলো ফেরত পাবো কিনা। এই টাকার জন্য আমরা খুবই দুশ্চিন্তায় আছি। এখন যেহেতু নতুন কমিটি গঠন করা হয়েছে জনসাধারণ হিসেবে আশা করি খুবই দ্রুত এ টাকাগুলো ফেরত পাব। যদি ফেরত পাই আমাদের জন্য খুবই ভালো হয়। 

ইভ্যালির টাকা কই গেল? এমন প্রশ্নে আছে নানা মুনির নানা মত। তবে প্রতিষ্ঠানটির নতুন চেয়ারম্যান নিশ্চিত, নয় ছয় হয়েছে অর্থ। দায়িত্ব নিয়েই তথ্য উপাত্তের খোজে তাই নিবিড়ভাবে কাজ করতে চান কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সাথে।

নবগঠিত পরিচালনা বোর্ডের চেয়ারম্যান ও সাবেক বিচারপতি সামসুদ্দিন মানিক বলেন, টাকার বিরাট অংশ তারা সরিয়ে ফেলেছে। এই বিরাট অংশ আমাদের খুঁজে বের করতে হবে। কর্মচারীদের বাধ্য করতে হবে পাচার করা টাকার হিসাব যাতে তারা দিতে পারে। নয়ত তাদের বিরুদ্ধে আমরা অ্যাকশনে যাব। ফাইন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিটের কাছ থেকে আমরা তখন সে তথ্যগুলো চাইব যে টাকাগুলো কোথায় গেলো। 

হাইকোর্টের পূর্নাঙ্গ আদেশ না পেলেও ২৪ অক্টোবর বৈঠকে বসছে নবগঠিত বোর্ড। সেখানেই প্রাথমিকভাবে মিলবে ইভ্যালি পরিচালনায় আগামী দিনের পরিকল্পনা। বোর্ডের অন্যান্য সদস্যরা হলেন, সাবেক সচিব মো. রেজাউল আহসান, মাহবুব কবীর মিলন, চাটার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্ট ফখরুদ্দিন আহম্মেদ ও আইনজীবি ব্যরিস্টার খান মো. শামীম আজিজ।

এ বিষয়ে বোর্ড চেয়ারম্যান বলেন, চারজনের প্রজ্ঞা, চারজনের অভিজ্ঞতা মিলে আমরা অনেকখানি এগুতে পারবো বলে আশা করছি। তবে সব নির্ভর করবে মহামান্য হাইকোর্ট আমাদের কতখানি ক্ষমতা দিয়েছেন, আমরা কতখানি যেতে পারব তার উপরে।

আগামী ২৩ নভেম্বর প্রাপ্ত তথ্য-উপাত্ত আদালতে পেশ করবে এই বোর্ড। 

এএ

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর