channel 24

সর্বশেষ

  • নোয়াবের সভাপতি নির্বাচিত হওয়ায় এ কে আজাদকে ফুলেল শুভেচ্ছা

  • চট্টগ্রামে রেলক্রসিংয়ে দুর্ঘটনার জন্য বাস চালক দায়ী: তদন্ত কমিটি

  • বিয়ের আগে যে বিষয়গুলো মাথায় রাখবেন

  • চাকরি দিচ্ছে বীরশ্রেষ্ঠ মুন্সী আব্দুর রউফ পাবলিক কলেজ

  • অ স্ত্র প্রতিযোগিতা নয়, শান্তিপূর্ণ বিশ্ব গড়তে সম্পদ ব্যবহার করুন: প্রধানমন্ত্রী

  • নির্বাচন নিয়ে সহিংসতা দিনের পর দিন চলতে পারে না: নির্বাচন কমিশনার

  • পেগাসাস স্পাইওয়্যারের কার্যক্রম বন্ধে হাইকোর্টের রুল

  • ভাইকে ফাঁসাতে গিয়ে নিজেই ফেঁসে গেল যুবক

  • স্বাস্থ্য সচিব-ডিজির বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার রুল

  • নৌকার মনোনয়ন পাওয়ায় চেয়ারম্যানের ছেলের হাতবোমা বিস্ফোরণ করে উল্লাস

  • অর্থপাচারকারীদের পূর্ণাঙ্গ তালিকা তৈরিতে আইনের সংশোধন চায় দুদক

  • ঘূর্ণিঝড় ‘জাওয়াদ’: সমুদ্রবন্দরগুলোতে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত

  • পুলিশ হেফাজত থেকে পালাল রোহিঙ্গা কালাম

  • বিমানবন্দরে আটকে দেয়া হলো জ্যাকুলিনকে

  • দেশের অর্থনৈতিক চাকা সচল রাখতে অবদান রাখছে নাভানা গ্রুপ

প্রতিদিন ২১ কোটি টাকা লোকসান দিচ্ছে রাষ্ট্রীয় সংস্থা বিপিসি (ভিডিও)

প্রতিদিন ২১ কোটি টাকা লোকসান দিচ্ছে রাষ্ট্রীয় সংস্থা বিপিসি (ভিডিও)

বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের দাম বাড়তে থাকায় প্রতিদিন ২১ কোটি টাকার মতো লোকসান গুনছে রাষ্ট্রীয় সংস্থা বিপিসি। করোনায় বৈশ্বিক চাহিদা বাড়ার পাশাপাশি সরবরাহ ব্যবস্থাপনা সঙ্কটে তৈরি হয়েছে এই অবস্থা। যদিও এখনই দাম সমন্বয়ের পক্ষে না পেট্রোলিয়াম করপোরেশন। অন্যদিকে, বাড়তি দামের কারণে তেল দিয়ে বিদ্যুৎ উৎপাদন ভর্তুকির চাপ বাড়ছে পিডিবির। 

করোনার ধাক্কা কাটিয়ে চাঙ্গা হতে শুরু করেছে বিশ্ব অর্থনীতি। যার অন্যতম ইঙ্গিত জ্বালানির চাহিদা বৃদ্ধি। তবে, উৎপাদন, সমুদ্র পরিবহনে ভাড়া বৃদ্ধি, ভূ-রাজনীতিসহ নানা কারণে বাড়তে শুরু করেছে দাম। আর প্রায় শতভাগ আমদানি নির্ভর হওয়ায় প্রভাব পড়তে শুরু করেছে দেশের ভেতরেও।

আরও পড়ুন: ক্লিন ফিড নিয়ে সম্প্রচারে ফিরল জি বাংলা

ব্যবহৃত জ্বালানি তেলের ৬৫ শতাংশই ডিজেল। যা সবশেষ বিপিসি কিনেছে প্রতি ব্যারেল সাড়ে ৯৭ ডলারে। সে হিসেবে এক লিটারের পেছনে সব মিলিয়ে ব্যয় দাঁড়িয়েছে ৭৮ টাকার ওপরে। কিন্তু ৬৫ টাকায় বিক্রি করায় লোকসান যাচ্ছে সাড়ে ১৩ টাকা। আর বর্তমানে প্রতিদিন ১২শ’ টন হারে ডিজেল বিক্রি হওয়ায় কেবল ওই জ্বালানির পেছনেই বিপিসি লোকসান গুনছে ১৯ কোটি টাকার বেশি। অন্যদিকে প্রতি লিটারে ৮ টাকা লোকসান হওয়ায় ফার্নেস তেলে দৈনিক সেই অঙ্ক দাঁড়াচ্ছে ১ কোটির মতো।

বিপিসি চেয়ারম্যান এ বি এম আজাদ বলেন, জুলাই থেকে ডিসেম্বরের যে ফেইস তাতে আমরা যে মূল্য তাদের সাথে নির্ধারণ করেছিলাম সেই মূল্যেই আমরা এখনো পাচ্ছি। যে কারণে জনগণকে চাপ সৃষ্টি করে এমন সিদ্ধান্তের দিকে আমারদের যাওয়ার মতো অবস্থা নেই। 

বিশ্বব্যাংকের বাংলাদেশ আবাসিক মিশনের সাবেক লিড ইকোনোমিস্ট ড. জাহিদ হোসেন বলেন, জোগানের সংকট, অন্যদিকে চাহিদার বৃদ্ধি এ দুটো মিলেই এখন স্পট মার্কেটগুলোতে মূল্যের বৃদ্ধিটা সবচেয়ে বেশি।

বিপিসি চেয়ারম্যান বলেন, সেক্ষেত্রে বর্তমান বাজারমূল্যকে কতটুকু বিবেচনায় নেয়া হবে সেটা সরকারের পলিসির ওপর নির্ভর করে।

জ্বালানির দাম বৃদ্ধির কম বেশি প্রভাব পড়েছে বিদ্যুৎ উৎপাদনেও। পিডিবির হিসাবে, ফার্নেস তেল চালিত বিদ্যুৎ কেন্দ্রগুলো জুলাই মাসে ব্যবহার করে ২ লাখ ৪৫ হাজার টন। কিন্তু আগস্টে তা বেড়ে দাঁড়ায় ৩ লাখ ৯০ হাজার টনে। ফলে, বাড়তি চাহিদার এই জ্বালানি আমদানি করতে গিয়ে চড়া দামের জালে আটকা পড়ে বিপিসি। অন্যদিকে,মাসের ব্যবধানে বিদ্যুৎ কেন্দ্রে ডিজেলের চাহিদাও বেড়ে যায় তিনগুণের মতো।

বিপিসি চেয়ারম্যান এ বি এম আজাদ বলেন, ফার্নেস তেলের সুবিধা হচ্ছে আমরা এর মূল্য সমন্বয় করছি। যে কারণে এ তেল আনতে খরচ পড়লেও সেই অর্থে আমরা চাপে নেই। 

অপরদিকে পিডিবির চেয়ারম্যান বেলায়েত হোসেন বলেন, আমাদেরকে যেহেতু সারাবিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে হবে সুতরাং জ্বালানি তেলের কোনো প্রভাব বা জ্বালানি তেলের দামের কোনো প্রভাব নিয়ে আমাদের চিন্তা করার সুযোগ নেই। ভবিষ্যতে যদি এটা এমন একটা অবস্থায় চলে যায় সেক্ষেত্রে হয়তো সরকার ভাবলেও ভাবতে পারে। 

এদিকে এক বছরের ব্যবধানে বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের দাম বেড়েছে দ্বিগুণের ওপরে।

এএ/জে

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর