channel 24

সর্বশেষ

  • পরিসংখ্যানে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা লড়াই

  • নতুন গান 'হাবিবি' নিয়ে আসছে নুসরাত ফারিয়া

  • রাজারবাগ পীরের সম্পদের তথ্য নিয়ে আপিলের শুনানি আজ

  • আগামীকাল আদালতে নেয়া হবে সম্রাটকে

  • শিশু ধর্ষণের অভিযোগে কিশোর আটক

  • ভারত-পাকিস্তান মহারণ: পরিসংখ্যান কি বলছে?

  • বিয়েতে গড়িমসি করায় প্রেমিকের জিহ্বা কেটে দিলেন প্রেমিকা

  • আজ জাতিসংঘ দিবস

  • চুরি করতে গিয়ে নুরুল দম্পতিকে হত্যা করে রিকশা চালক: পিবিআই

  • স্বপ্নের পায়রা সেতু উদ্বোধন আজ

  • বাবরদের ভারত বধের টোটকা দিয়েছেন ইমরান খান

  • মুহিবুল্লাহ হত্যা: আদালতে আজিজুলের স্বীকারোক্তি

  • প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটূক্তি পোস্ট ফেসবুকে শেয়ার, ক‌লেজ শিক্ষক আটক

  • নিয়ন্ত্রণে বাড্ডার আগুন

  • আপেল যখন বিপদের কারণ!

দেশের সবজি আবাদে পাঁচ পণ্যের আধিপত্য

দেশের সবজি আবাদে পাঁচ পণ্যের আধিপত্য

মাত্র পাঁচটি পণ্যের বেড়াজালে বন্দী দেশের সিংহভাগ সবজি উৎপাদন। কম খরচে বেশি মুনাফা হওয়ায় দেশজুড়ে জনপ্রিয় হচ্ছে আলু, বেগুন, টমেটো, লাউ আর মুলার আবাদ। অন্যান্য সবজি চাষাবাদের আওতায় আনতে উন্নত জাত ও কৃষি প্রযুক্তি প্রসারের পরামর্শ সংশ্লিষ্টদের। 

বর্তমানে দুই কোটি উননব্বই লাখ টন সবজি উৎপাদন নিয়ে সারা বিশ্বে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ।

আরও পড়ুন: ই-কমার্স খাতে নতুন বিপত্তির নাম 'পেমেন্ট গেটওয়ে'

সফলতার এই চিত্রের পেছনেও আছে হতাশার গল্প। কেননা ঘাটতি থেকে যাচ্ছে সবজির সুষম উৎপাদনে।

তথ্য বলছে, দেশের মোট সবজি উৎপাদনের প্রায় ৬২ ভাগ দখল করে আছে, আলু, বেগুন, টমেটো, লাউ ও মুলা। সংখ্যার হিসেবে যা প্রায় ১ কোটি ৮০ লাখ টন।

সবজি চাষিরা বলছেন, খরচ কম আর লাভ বেশি হওয়ায় এই পাঁচটি সবজি আবাদে ঝুঁকছেন তারা।

একজন কৃষক বলেন, প্রায় ১২০ মুঠো শাক নিলে বাজারে ১০০ থেকে ২০০ টাকা দেয়। মুলা ১০০ পিস নিলে ১ হাজার থেকে ১২শ’ টাকা বিক্রি করি। আমি বেগুন ক্ষেত করেছি, এখন পর্যন্ত ৩০ হাজার টাকা খরচ হয়েছে। এখনও মোটামুটি ১০ হাজার টাকা বিক্রয় করতে পারব। এ টাকাটা আমার লাভ।

বৈচিত্র্যপূর্ণ সবজি আবাদে কৃষকদের আগ্রহী করতে সবজির আয়ুষ্কাল বাড়নোসহ উন্নত প্রযুক্তি প্রসারের পরামর্শ কৃষি বিজ্ঞানীদের।

কৃষি বিজ্ঞানী অধ্যাপক ড. মো. নজরুল ইসলাম বলেন, মার্কেটিং ব্যবস্থায় সেল্ফ লাইফ কোনটির বেশি আছে। বাজারে টিকবে কত বেশি, ট্রান্সপোর্টে গিয়ে নষ্ট হবে না এবং সু উপযুক্ত মূল্য পাবে। 

অন্যান্য সবজির জাত উন্নয়ন ও বারোমাসি উৎপাদনের মাধ্যমে এ ঘাটতি মেটানো সম্ভব বলে মনে করেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের এই শীর্ষ কর্মকর্তা।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. আসাদুল্লাহ বলেন, যে সবজিগুলো কম হচ্ছে সেগুলো যে আমরা গুরুত্ব কম দিচ্ছি তা কিন্তু নয়। এগুলোর উৎপাদন খরচ এবং যেগুলো কৃষকের বিক্রয় করার গ্যারান্টি চাহিদা আছে ঠিকমতো মানুষের কাছে কৃষকের কাছে এবং উৎপাদন খরচ মোটামুটি লাভজনক হয় কৃষকের জন্য সে ফসলই কিন্তু কৃষক উৎপাদন করে থাকে। শীতকালীন যে সবজি আছে সেগুলো একটু সীমিত। ইচ্ছা করলেই করা যায় না। ইদানিং অবশ্য হচ্ছে। সেই নিরীখে শীতকালীন সবজিগুলো কিন্তু একটু পিছিয়ে আছে। আর যে সবজিগুলো বারো মাসে চাষ করা যায় সব সময়ই চাষ করা যায় সেই সবজিগুলো উৎপাদনে এগিয়ে আছে। 

দেশে প্রায় ১০ লাখ হেক্টর জমিতে সবজি চাষ হয়; যার মধ্যে প্রায় সাড়ে সাত লাখ হেক্টরে আবাদ হয় এই পাঁচটি সবজির।

এএ/ এমকে 

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর