channel 24

সর্বশেষ

  • জাতিসংঘের মিশনে যাচ্ছেন বাংলাদেশি ৪ নারী বিচারক

  • ৭ মার্চের ভাষণ বাঙালীর মুক্তির সনদ: এ কে আজাদ

  • শেখ জামালের জয়ে শেষ হলো বিপিএলের প্রথম পর্ব

  • শঙ্কায় জুনের এশিয়া কাপ, ঘরোয়া ক্রিকেট করবে বিসিবি

  • কলকাতায় বিজেপির বিশাল শোডাউন; মমতাকে ব্যঙ্গ মোদির

  • নোয়াখালীতে সাংবাদিক মুজাক্কির হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার ১

  • ৭ মার্চের ভাষণ স্বাধীনতার ঘোষণা নয়: বিএনপি

  • ৭ মাস পর গণভবনের বাইরে প্রধানমন্ত্রী

  • কুষ্টিয়ায় এনআইডি জালিয়াতি: ৫ জনের বিরুদ্ধে ইসির মামলা

  • বান্দরবান সরকারি মহিলা কলেজে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল উদ্বোধন

  • চট্টগ্রামে নানা আয়োজনে পালিত হল ৭ মার্চ

  • ৭ মার্চের ভাষণই স্বাধীনতার ঘোষণা: প্রধানমন্ত্রী

  • চট্টগ্রামের নগর পরিকল্পনাবিদ ইঞ্জিনিয়ার আলী আশরাফের মৃত্যু

  • রোজা রেখেও নেয়া যাবে করোনার টিকা

  • পল্লী বিদ্যুৎ বোর্ড ও সমিতিতে ট্রেড ইউনিয়ন নয়: হাইকোর্ট

৪ সপ্তাহে ডিএসই'র মূল্যসূচক কমেছে ৪০০ পয়েন্টের বেশি

৪ সপ্তাহে ডিএসই'র মূল্যসূচক কমেছে ৪০০ পয়েন্টের বেশি

নেতিবাচক প্রবণতা থেকে বেরই হতে পারছে না দেশের পুঁজিবাজার। জানুয়ারির তৃতীয় সপ্তাহ থেকে এখন পর্যন্ত, ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের সূচক হারিয়েছে ৪০০ পয়েন্টের বেশি। দর পতন নিয়ে বিশ্লেষকদের মধ্যেও রয়েছে ভিন্ন মত। সুশাসন প্রতিষ্ঠার ওপর জোর দেওয়ার পরামর্শ তাদের।

জানুয়ারির প্রথম দুই সপ্তাহের বড় উত্থানের পর পুঁজিবাজারে যে নেতিবাচক ধারা শুরু হয়, তা অব্যাহত আছে এখনও।

বছরের প্রথম দুই সপ্তাহের উত্থানে, ১৪ জানুয়ারি ডিএসইর প্রধান সূচক দাঁড়ায় ৫ হাজার ৯০৯ পয়েন্টে। কিন্তু পরের সপ্তাহ থেকে দর সংশোধনে ফেরে পুঁজিবাজার। এতে ২৫ কর্মদিবসে সূচক হারায় ৪৩৩ পয়েন্ট। এতে দৈনিক গড় ১৫ শ কোটির বেশি লেনদেন এসে ঠেকে হাজার কোটির নিচে।

পুঁজিবাজার বিশ্লেষকরা বলছেন, বাজারের এমন উত্থান-পতন স্বাভাবিক। এসব নিয়ে অতিরিক্ত আলোচনা-সমালোচনা আরও ক্ষতিকর বলেও মত তার।

তবে এই স্টক ব্রোকার মনে করেন, সম্প্রতি সূচকের উত্থানে নির্দিষ্ট কয়েকটি শেয়ারের দাম ও লেনদেন বেড়েছে। যা বিনিয়োগকারিদের প্রত্যাশা পূরণ করেনি।

ডিসেম্বর থেকে জানুয়ারির মাঝামাঝি পর্যন্ত ডিএসইতে সূচক বেড়েছিলো এক হাজার ২৪ পয়েন্ট।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর