channel 24

সর্বশেষ

  • জাতিসংঘের মিশনে যাচ্ছেন বাংলাদেশি ৪ নারী বিচারক

  • ৭ মার্চের ভাষণ বাঙালীর মুক্তির সনদ: এ কে আজাদ

  • শেখ জামালের জয়ে শেষ হলো বিপিএলের প্রথম পর্ব

  • শঙ্কায় জুনের এশিয়া কাপ, ঘরোয়া ক্রিকেট করবে বিসিবি

  • কলকাতায় বিজেপির বিশাল শোডাউন; মমতাকে ব্যঙ্গ মোদির

  • নোয়াখালীতে সাংবাদিক মুজাক্কির হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার ১

  • ৭ মার্চের ভাষণ স্বাধীনতার ঘোষণা নয়: বিএনপি

  • ৭ মাস পর গণভবনের বাইরে প্রধানমন্ত্রী

  • কুষ্টিয়ায় এনআইডি জালিয়াতি: ৫ জনের বিরুদ্ধে ইসির মামলা

  • বান্দরবান সরকারি মহিলা কলেজে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল উদ্বোধন

  • চট্টগ্রামে নানা আয়োজনে পালিত হল ৭ মার্চ

  • ৭ মার্চের ভাষণই স্বাধীনতার ঘোষণা: প্রধানমন্ত্রী

  • চট্টগ্রামের নগর পরিকল্পনাবিদ ইঞ্জিনিয়ার আলী আশরাফের মৃত্যু

  • রোজা রেখেও নেয়া যাবে করোনার টিকা

  • পল্লী বিদ্যুৎ বোর্ড ও সমিতিতে ট্রেড ইউনিয়ন নয়: হাইকোর্ট

আলোচনা-আল্টিমেটামেও কাটছে না সামুদ্রিক আইন জটিলতা

আলোচনা-আল্টিমেটামেও কাটছে না সামুদ্রিক আইন জটিলতা

নতুন সামুদ্রিক আইন নিয়ে জটিলতা কাটছেই না। সরকারের সাথে আলোচনা আর আল্টিমেটামেও সুফল না মেলায় সাগর থেকে মাছ ধরা বন্ধ করে দিয়ে উপকূলে অবস্থান করছে সব ট্রলার। নাবিকরা বলছেন, নতুন আইনে অপরাধ বিবেচনা আর দণ্ডারোপসহ বেশ কয়েকটি ধারা একেবারেই বাস্তবসম্মত নয়। যা কার্যকর হলে সাগরে মাছ ধরা বন্ধ করে দিতে হবে। ট্রলার মালিকদের মতে, যত দ্রুত সম্ভব বিধি তৈরি করে আইনে শিথিলতা আনা জরুরি।

১৯৮৩ সালের অধ্যাদেশকে যুগপযোগী করতে গেল নভেম্বরে সামুদ্রিক মৎস্য আইন প্রণয়ন করে সরকার। নতুন এই আইনকে স্বাগত জানালেও এর বেশকিছু ধারা নিয়ে আপত্তি তোলে সাগরে মাছ আহরণকারীরা।

আইনটির ১২ অধ্যায়ের ৬৪ ধারার মধ্যে অন্তত ৩৬টির পরিবর্তন চেয়ে সরকারের কাছে মতামত দিয়েছে ডিপ সী ফিশিং ভ্যাসেল মেরিনার্স ফোরাম। যাতে সর্বোচ্চ গুরুত্ব পায় অপরাধের ধরণ বিবেচনা, দণ্ড আরোপ আর আইন প্রয়োগকারী কর্মকর্তার যোগ্যতা ও মানসিকতার বিষয়টি।   

এ নিয়ে উদ্বিগ্ন ট্রলার মালিকরাও। তবে তাদের আশা, সরকার সহসাই বিধি তৈরির মাধ্যমে নতুন সামুদ্রিক মৎস্য আইনকে সুষম আইনে পরিণত করবে।  

আইনটি নিয়ে এখন অস্থির সামুদ্রিক মৎস্য খাত। আলোচনা আর বেঁধে দেয়া সময়সীমার মধ্যে সুফল না মেলায় দুই দফায় সাগরে মাছ ধরা বন্ধ করে দেন নাবিকরা।    
<
দেশের সমুদ্রসীমায় মাছ ধরে প্রায় আড়াইশ ইস্পাত আর কাঠের ট্রলার ছাড়াও অসংখ্য নৌকা। বছরে মৎস্য আহরণ প্রায় ৭ লাখ মেট্রিক টন।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর