channel 24

সর্বশেষ

  • যুক্তরাষ্ট্রে করোনার টিকা প্রদান শুরু হতে পারে ১১ ডিসেম্বর

করোনায় লোকসানে অতিক্ষুদ্র ও মাঝারি খাতের ৮০ শতাংশ প্রতিষ্ঠান

করোনায় লোকসানে অতিক্ষুদ্র ও মাঝারি খাতের ৮০ শতাংশ প্রতিষ্ঠান

করোনাভাইরাসে অতিক্ষুদ্র, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প- এমএসএমই খাতে সর্বোচ্চ ক্ষতির তালিকায় দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে শীর্ষে রয়েছে বাংলাদেশ। ইন্টারন্যাশনাল ফাইন্যান্স করপোরেশন- আইএফসির জরিপে বলা হয়, করোনায় লোকসানে এ খাতের ৮০ শতাংশ প্রতিষ্ঠান। পরিস্থিতি সামাল দিতে সরকারি প্রণোদনার কথা বলছেন উদ্যোক্তারা। সংশ্লিষ্টদের অভিযোগ, অর্থ বণ্টনে নানা জটিলতার কারণেই এ খাতে কোনো সুফল পাওয়া যাচ্ছে না।

সাইদা পুতুল, শিক্ষকতার পাশাপাশি ক্ষুদ্র পরিসরে করছেন ব্যবসা। যাতে আঘাত হানে করোনা মহামারি।

একই চিত্র দেশের অতিক্ষুদ্র, ক্ষুদ্র ও মাঝারি খাতে জড়িত সব উদ্যোক্তাদের। ইন্টারন্যাশনাল ফাইন্যান্স করপোরেশন- আইএফসির জরিপে বলা হয়, দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে এমএসএমই খাতে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত বাংলাদেশ। মহামারিতে এই খাতের বিক্রি কমেছে ৯৪ শতাংশ। চাকরি হারিয়েছেন ৩৭ শতাংশ কর্মী; অনিশ্চয়তায়, আরো প্রায় ৭০ শতাংশ।

দেশের এমএসএমই খাতে গড় মূল্যপতন ৫২ শতাংশ। খাতভিত্তিক বিভাজনে ফ্যাশন পণ্যের দাম কমেছে ৬৫ শতাংশ; কৃষিতে ৩৪ শতাংশ ও অন্যান্য খাতে ৫৬ শতাংশ। ব্যবসায়ীরা বলছেন, করোনা পরিস্থিতি অনেকটা স্বাভাবিক হলেও মিলছে না কাংখিত সফলতা।

এ খাতের উন্নয়নে বিসিকের ৮শ এবং এসএমই ফাউন্ডেশনকে ৫শ কোটি টাকা দিয়ে বিশেষ তহবিল গঠনের কথা বলছেন, খাত সংশ্লিষ্টরা। একইসঙ্গে বরাদ্দকৃত প্রণোদনার অর্থ যথাযথ বণ্টন ও ব্যাংকিং জটিলতা কাটানোর তাগিদ অ্যাসোসিয়েশনগুলোর।

বিশ্বব্যাংকের হিসাবে দেশের জিডিপিতে এমএসএমই খাতের অবদান ২৫ শতাংশ।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর