channel 24

সর্বশেষ

  • কথিত ইমাম মাহাদীর সহযোগী গ্রেপ্তার

  • এ বছর মাধ্যমিকে হচ্ছে না বার্ষিক পরীক্ষা

  • চাহিদা কমছে ওয়ানটাইম কাপ-প্লেটের

  • রোহিঙ্গা পুনর্বাসনে বাড়তে পারে জয়েন্ট রেসপন্স প্ল্যানের মেয়াদ

  • ময়মনসিংহ সদর থানায় পুলিশের বিশেষ সেবা চালু

  • দ্বিতীয় দিনের মতো চলছে পণ্যবাহী নৌযান শ্রমিকদের ধর্মঘট

  • রায়হান হত্যায় এখনও ধরাছোঁয়ার বাইরে অভিযুক্ত এসআই আকবর

  • তেজগাঁওয়ে এপেক্সের টায়ার কারখানায় আগুন নিয়ন্ত্রণে

  • বাইডেন ক্ষমতায় এলে যুক্তরাষ্ট্রের জ্বালানি শিল্প ধ্বংস হয়ে যাবে: ট্রাম্প

  • রাজধানী জুড়ে সকাল থেকে বৃষ্টি, দুর্ভোগে মানুষ

  • করোনার হানায় স্থগিত যুব দলের ক্যাম্প

  • ৩৬ সদস্যের বাংলাদেশ ফুটবলের প্রাথমিক দল ঘোষণা

  • প্রেসিডেন্টস কাপে কাল তামিমের বাঁচা-মরার লড়াই

  • সম্রাটের বিরুদ্ধে মাদক ও অস্ত্র মামলায় চার্জ গঠন ৩০ নভেম্বর

  • বিশ্বে এক একর জায়গার মধ্যে সবচেয়ে বেশি মানুষের বসবাস লালবাগে

মাতারবাড়ী সমুদ্র বন্দর নির্মাণ প্রকল্পে জাপানি পরামর্শক নিয়োগ

মাতারবাড়ী সমুদ্র বন্দর নির্মাণ প্রকল্পে জাপানি পরামর্শক নিয়োগ

কক্সবাজারের মহেশখালীতে মাতারবাড়ী সমুদ্র বন্দর নির্মাণ প্রকল্পের জন্য জাপানি দুইটি প্রতিষ্ঠানকে পরামর্শক হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। যারা বন্দর নির্মাণ থেকে শুরু করে বন্দরের সঙ্গে সড়ক পথে সংযোগ কাজে পরামর্শকের কাজ করবে।

২০১৫ সালে কক্সবাজারের মহেশখালির মাতারবাড়িতে দেশের প্রথম গভীর সমুদ্র বন্দর নির্মাণে উদ্যোগ নেয় সরকার। বন্দর নির্মাণে ব্যয় ধরা হয় প্রায় ১৮ হাজার কোটি টাকা। যারমধ্যে প্রায় ১৩ হাজার কোটি টাকাই দেবে জাইকা।

প্রকল্প বাস্তবায়নে এবার জাপানের দুটি কোম্পানিকে পরামর্শক হিসেবে নিয়োগ দিল সরকার। চুক্তি সই অনুষ্ঠানে ভিডিও কনফারেন্সে অংশ নেন নৌ পরিবহন প্রতিমন্ত্রী ও পরিকল্পনামন্ত্রী।

বন্দরের নকশা, টেন্ডার ও নির্মাণ কাজ তদারকি করবে নিপ্পন কোয়ে। যার জন্য তারা ফি হিসেবে পাবে ২শ' ৩৪ কোটি টাকা। আর প্রকল্প সড়কের নকশা তৈরি ও নির্মাণ তদারকি করবে ওরিয়েন্টাল কনসালটেন্টস। এর জন্য তাদের দেয়া হবে ৪শ' ৬৬ কোটি টাকা।

পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান জানান, জমি অধিগ্রহণ প্রায় শেষ পর্যায়ে। আর নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ বলেছেন, বন্দরটি তৈরি হলে সময় যেমন বাঁচবে তেমনি কমবে খরচ।

প্রকল্পের আওতায় বন্দর নির্মাণ সংশ্লিষ্ট কাজ বাস্তবায়ন করছে চট্রগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ। আর সংযোগ সড়কের কাজ বাস্তবায়ন করছে সড়ক বিভাগ। প্রকল্পের মেয়াদ ধরা হয়েছে ২০২৬ সাল।

বিস্তারিত দেখুন ভিডিওতে-

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর