channel 24

সর্বশেষ

  • কক্সবাজার জেলার ৩৪ পুলিশ ইন্সপেক্টরকে একযোগে বদলি

  • ওয়াসার এমডির মেয়াদ পুনরায় বাড়ানোর প্রক্রিয়া চ্যালেঞ্জ করে রিট

  • পাপিয়া দম্পতির যাবজ্জীবন কারাদণ্ড চেয়েছে রাষ্ট্রপক্ষ

  • নুরকে হয়রানি না করতে ডা. জাফরুল্লাহর আহবান

  • চট্টগ্রাম ওয়াসায় আগুন পুড়ে গেছে কাগজপত্র ও আসবাব

  • আবারো ক্ষোভে ফুসছেন মার্কিনিরা

  • দেশে ২ লাখ ৭ হাজার দ্বৈত ভোটার শনাক্ত

  • পেঁয়াজের বাড়তি দাম খাতুনগঞ্জে

  • খাগড়াছড়িতে কমান্ডারকে হত্যার দায়ে আনসার সদস্যের মৃত্যুদণ্ড

  • চট্টগ্রামে ২৪ ঘন্টায় করোনায় আক্রান্ত ৬৩

  • আলোচনায় ৭৫ বছরের জাতিসংঘকে ঢেলে সাজানো

  • কুষ্টিয়ায় ওএমএসের চাল আত্মসাৎ, ইউপি চেয়ারম্যান কারাগারে

  • নির্ধারিত সময়ে শ্রীলঙ্কা যাওয়া হচ্ছে না বাংলাদেশের

  • মাতারবাড়ী সমুদ্র বন্দর নির্মাণ প্রকল্পে জাপানি পরামর্শক নিয়োগ

  • চালের দাম বৃদ্ধিতে মিলারদের সিন্ডিকেট দায়ী, দাবি পাইকারি বিক্রেতাদের

ওয়াশিংটনের সঙ্গে বাণিজ্যদ্বন্দ্বের বলি চীনা প্রতিষ্ঠান টিকটক

ওয়াশিংটনের সঙ্গে বাণিজ্যদ্বন্দ্বের বলি চীনা প্রতিষ্ঠান টিকটক

মার্কিনিদের কাছ থেকে তথ্য সরিয়ে নিচ্ছে টিকটক, নিষেধাজ্ঞার বেড়াজালে তাদের পড়তে হবে- মার্কিন প্রেসিডেন্টের এমন মন্তব্যে বিস্ময় প্রকাশ করেছে প্রযুক্তি বিশ্লেষকরা। তাদের মতে, ওয়াশিংটনের সঙ্গে বাণিজ্যদ্বন্দ্বের বলি হচ্ছে চীনের প্রতিষ্ঠানগুলো। এদিকে, মাই্ক্রোসফট টিকটকের বড় শেয়ার কিনে নেয়ার ঘোষণা আশার বাণী শোনালেও পরিস্থিতি শেষ পর্যন্ত কোন দিকে যায় তা নিয়ে রয়েছে সংশয়।

বিশ্বজুড়েই টিকটকের উন্মাদনা। যেকোন বিষয় নিয়ে ছোট ছোট ভিডিও তৈরী ও প্রচারের এই মাধ্যম দিন দিন আরও জনপ্রিয় হয়ে উঠছে।

সম্প্রতি, মার্কিন প্রেসিডেন্ট এ অ্যাপ ব্যবহারের মাধ্যমে তথ্য চুরির অভিযোগ তোলেন। সেই সাথে যুক্তরাষ্ট্রে নিষিদ্ধের ঘোষণা দেন চীনের এই জনপ্রিয় অ্যাপকে। তবে, এ নিয়ে বেশ তোপের মুখে পড়েছেন ট্রাম্প।

বেইজিং ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজির সহযোগী অধ্যাপক গাই কিকি বলেন, অভিযোগটা বর্তমান রাজনৈতিক দ্বন্দ্বের কারণে তৈরী হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের কাছে তথ্য পাচার রোধে শক্তিশালী ব্যবস্থা রয়েছে। ফলে, যুক্তরাষ্ট্র থেকে কোন তথ্য চীনের বের করে নেয়াটা বেশ কষ্টসাধ্য।

যুক্তরাষ্ট্র জুড়ে ১০ কোটি মানুষ টিকটক ব্যবহার করেন। জনপ্রিয়তার শীর্ষে থাকা এ অ্যাপ কেনার ঘোষণা দিয়েছে মাইক্রোসফট। ফলে, যুক্তরাষ্ট্র থেকে তথ্য পাচারের বিষয়টি একপ্রকার উড়িয়ে দিচ্ছেন প্রযুক্তি বিশ্লেষকরা। তারা বলছেন, প্রয়োজনে নিরাপত্তার বিষয়টি যাচাই করে দেখত পারে মার্কিন সরকার।

গাই কিকি আরও বলেন, মাইক্রোসফট ও টিকটক আইটি জগতের অন্যতম বড় প্রতিষ্ঠান। তারা তথ্যের অবাধ প্রবাহ নিশ্চিতে কাজ করছে। পাচারের বিষয়টি নিয়ে তাদের সাথে সরকারের যে দ্বন্দ্ব তা সহজেই ঠিক করার জন্য প্রয়োজন পদক্ষেপ জরুরি।

তথ্য পাচারের অভিযোগ এড়াতে আইটি প্রতিষ্ঠানগুলোর কার্যক্রমে আরও বেশি স্বচ্ছতা প্রয়োজন বলেও মত বিশ্লেষকদের।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর