channel 24

সর্বশেষ

  • পরের মৌসুমে মেসির বার্সা ছাড়ার গুঞ্জন

  • ইংলিশ লিগে ম্যান সিটিতে বিধ্বস্ত লিভারপুল

  • যুক্তরাষ্ট্রে একদিনে সর্বোচ্চ ৫৫ হাজার করোনায় আক্রান্ত

  • চীনের সঙ্গে বিরোধপূর্ণ লাদাখ সীমান্ত পরিদর্শন করলেন মোদী

  • আধুনিকায়নের পর ফের চালু হবে বন্ধ পাটকল: শ্রমপ্রতিমন্ত্রী

  • দেশে করোনায় আরও ৪২ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৩১১৪

  • বাজেটের অর্থ ছাড় হলে পাটকল শ্রমিকদের পাওনা পরিশোধ: পাট মন্ত্রী

  • কাদা-পানিতে চলাচলের অনুপযোগী নওগাঁর গ্রামীণ সড়কগুলো

  • মধ্যরাত থেকে লকডাউন হচ্ছে পুরান ঢাকার ওয়ারি

  • কোরবানির অনলাইন হাট, শুরু হয়েছে ভার্চুয়াল মার্কেটের প্রস্তুতি

  • জ্বর-সর্দি ও শ্বাসকষ্টে দেশের বিভিন্ন স্থানে ১০ জনের মৃত্যু

  • বিমান বাহিনীতে যুক্ত হল নাইট ভিশন গগলস প্রযুক্তি

  • খুলনায় চুরির মামলায় এক আসামির জায়গায় কারাগারে অন্যজন

  • দেশের করোনা ভাইরাসও ইউরোপ-আমেরিকার মত দ্রুত সংক্রমণশীল

  • লিবিয়ার সুমদ্র থেকে নারী ও শিশুসহ ১৭৪ অভিবাসী উদ্ধার

এডিপিতে এবার বিদ্যুৎখাতে বরাদ্দ প্রায় ২৫ হাজার কোটি টাকা

এডিপিতে এবার বিদ্যুৎখাতে বরাদ্দ প্রায় ২৫ হাজার কোটি টাকা

আগামী অর্থ বছরে বিদ্যুৎ সঞ্চালন আর প্রাকৃতিক গ্যাস অনুসন্ধান-উত্তোলনে জোর দিতে চায় সরকার। এরইমধ্যে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচিতে বিদ্যুৎ খাতে তৃতীয় সর্বোচ্চ ২৪ হাজার ৮শ কোটি টাকা বরাদ্দ অনুমোদন করা হয়েছে। বিদ্যুৎ ও জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী বলছেন, পুরনো কয়েকটি কেন্দ্রের সংস্কার ও সঞ্চালন লাইন নির্মাণেই ব্যয় করা হবে এডিপির টাকা। একজন বিশেষজ্ঞ মনে করেন, এডিপির এই বরাদ্দ ব্যবসায়ীদের পকেট ভারী করতেই নেয়া হয়েছে।

এই মুহূর্তে দেশে বিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষমতা, প্রায় সাড়ে ২৩ হাজার মেগাওয়াট। বিপরীতে গত ২৯ মে সর্বোচ্চ উৎপাদন ছিল ১২ হাজার ৮৯৩ মেগাওয়াট। সক্ষমতার অর্ধেকই প্রায় অলস। এই অবস্থাও অহরহই চলছে বিদ্যুৎ বিভ্রাট।

আগামী অর্থবছরে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি-এডিপিতে বিদ্যুৎ খাতে বরাদ্দ রাখা হয়েছে প্রায় ২৫ হাজার কোটি টাকা। যার বেশিরভাগই ব্যয় হবে, পুরনো বিদ্যুৎ কেন্দ্র মেরামত আর সঞ্চালন লাইনে।

বেশি দামের জ্বালানি-এলএনজি আমদানি করে গ্যাসের ঘাটতি মেটাচ্ছে সরকার। আর এ খরচ সমন্বয়ের অজুহাতে, বছর বছর বাড়ছে গ্যাসের দাম। বিদ্যুৎ খাতে সরকার বরাদ্দ দিলেও, জ্বালানি খাত চলে নিজের টাকায়। এলএনজি নির্ভরতা না বাড়াতে, এবার দেশেই গ্যাস উত্তোলন-অনুসন্ধানে বেশ আগ্রহী মন্ত্রণালয়।

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক এম শামসুল আলম মনে করেন, উৎপাদিত বিদ্যুৎ সঞ্চালনে সক্ষমতা রয়েছে পাওয়ার গ্রিড কোম্পানির। তাই করোনাকালে, এ খাতের বরাদ্দকে ঠিক মনে করছেন না তারা।

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতের উন্নয়নে বাজেটের বরাদ্দ ও নিজেদের তহবিল মিলিয়ে প্রায় ২৬ হাজার কোটি টাকা ব্যয় করবে মন্ত্রণালয়।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর