channel 24

সর্বশেষ

  • সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম করোনায় আক্রান্ত

  • প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত সুদ ছাড়ের প্রণোদনা পাবে মার্চেন্ট ব্যাংকগুলো

  • করোনাকালে ভুতুড়ে বিদ্যুৎ বিল নিয়ে গ্রাহকদের ক্ষোভ

  • লিবিয়ায় ২৬ বাংলাদেশিকে হত্যা: বাচ্চু মিলিটারি ৫ দিনের রিমান্ডে

  • পঞ্চগড়ে বজ্রপাতে বাবা ছেলেসহ ৩ জনের মৃত্যু

  • বাস-লঞ্চে উধাও স্বাস্থ্যবিধি

  • স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করায় এমভি প্রিন্স লঞ্চ জব্দ

  • লকডাউন শেষে মুক্ত হলো আকাশপথ, চলছে উড়োজাহাজ

  • লিবিয়ায় নিহতদের স্বজনরা মুক্তিপণের টাকা হাজী কামালকে দিয়েছিলেন

  • হিলি রেলপথ দিয়ে ভারত থেকে দ্বিতীয় দফায় পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে

  • না ফেরার দেশে চলে গেলেন প্রধানমন্ত্রীর উপ-প্রেস সচিব আশরাফুল আলমের বাবা

  • লেনদেন বাড়লেও দুই স্টক এক্সচেঞ্জে বড় দরপতন

  • ২৬ বাংলাদেশি হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে কঠোর নিন্দা জানিয়েছে লিবিয়ার সরকার

  • 'আমেরিকায় বর্ণবৈষম্য করোনা ভাইরাসের চাইতেও ভয়ংকর'

  • তামিম ইকবাল ডব্লিউএফপি'র জাতীয় গুডউইল অ্যামবাসাডর হিসেবে নিযুক্ত

স্বাস্থ্যখাতে ৬ শতাংশ বরাদ্দ বাড়িয়ে ২ লাখ ১৪ হাজার কোটি টাকার এডিপি অনুমোদন

স্বাস্থ্যখাতে ৬ শতাংশ বরাদ্দ বাড়িয়ে ২ লাখ ১৪ হাজার কোটি টাকার এডিপি অনুমোদন

স্বাস্থ্যখাতে গত বছরের চেয়ে ৬ শতাংশ বরাদ্দ বাড়িয়ে আগামী অর্থবছরে ২ লাখ ১৪ হাজার কোটি টাকার বেশি বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি-এডিপি অনুমোদন করেছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদ-এনইসি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে বৈঠকে এ অনুমোদন দেয়া হয়।

পরে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেন, করোনা মহামারি মোকাবিলায় স্বাস্থ্য ও কৃষি খাতের প্রকল্পগুলো দ্রুত অনুমোদনের নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রথমবারের মতো জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের সভায় ভিডিও কনফারেন্সিংয়ে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। কয়েকবছর ধরে চলা রীতি অনুযায়ী এবারও উন্নয়ন কর্মসূচিতে বরাদ্দ বেশি পরিবহন খাতে, ৫২ হাজার কোটি টাকারও বেশি। বৈঠকের পরে খাতওয়ারি বরাদ্দ তুলে ধরে পরিকল্পনমন্ত্রী।

করোনা মোকাবিলায় এবার স্বাস্থ্যখাতে বরাদ্দ বাড়ানো হয়েছে ৬ শতাংশের বেশি। বিদ্যমান পরিস্থিতিতে এই বরাদ্দ কতটা ঠিক, এমন প্রশ্ন করলে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, প্রকল্প প্রণয়ন ও বাস্তবায়নে স্বাস্থ্যখাতের কিছুটা ঘাটতি রয়েছে।

চলমান অর্থবছরের চাইতে ১২ শতাংশের বেশি বরাদ্দ পেয়েছে বিদ্যুৎ খাত। তবে অলস পড়ে থাকা বিদ্যুৎ কেন্দ্রের বিষয়ে জানতে চাইলে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, আগামির বরাদ্দ মূলত পুরনো কিছু বিদ্যুৎ কেন্দ্র মেরামত ও সঞ্চালন লাইন শক্তিশালী করার জন্য।

স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানসহ বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচিতে আগামি অর্থ বছরের জন্য সবমিলিয়ে প্রকল্প নেয়া হয়েছে ১ হাজার ৬৭৩টি। আর উন্নয়ন কর্মসূচির ২ লাখ ৫ হাজার ১৪৫ কোটি টাকার মধ্যে বৈদেশিক উৎস থেকে সাড়ে ৭০ হাজার কোটি টাকা পাওয়ার আশা করছে সরকার।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর