channel 24

সর্বশেষ

  • রাজধানীতে ফিরছে মানুষ, ৩০ মে'র পর বাড়ছে না ছুটি

  • দুর্যোগে নিরাপদ দুরত্বে অবস্থান করাই বিএনপির রাজনীতি: কাদের

  • নিজের করোনা রিপোর্টে স্বাক্ষর করলেন নিজেই!

  • ৩০ মে'র পর বাড়ছে না সাধারণ ছুটি

  • এক্সিম ব্যাংকের এমডিকে হত্যাচেষ্টা, জানেনা কেন্দ্রীয় ব্যাংক

  • ঈদে থানায় প্রীতি ভোজ: সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনার ঝড়

  • ডলফিনের সবচেয়ে বড় বিচরণক্ষেত্র হালদা নদীই যেন এখন মৃত্যুকুপ

  • করোনায় দেশে আরও ২২ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১৫৪১

  • শুরু থেকে লকডাউন দিলে পরিস্থিতি এতোটা ভয়োবহ হতো না: ফখরুল

  • তামিম ইকবালের সাথে একান্ত আলাপচারিতায় চ্যানেল ২৪

  • আম্পানে বাঁধ ভেঙ্গে ভেসে গেছে ৪ হাজারেরও বেশি চিংড়ি ঘের

  • মুন্সিগঞ্জে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মাইক্রোবাস খাদে পড়ে নিহত ৩

  • কৃষি বিজ্ঞানী ও কর্মকর্তাদের প্রণোদনার কথা ভাবছেন কৃষিমন্ত্রী

  • দিনাজপুরে বিষাক্ত মদপানে ৪ জনের মৃত্যু, অসুস্থ ১

  • ঝড়-বৃষ্টিতে রাজধানীর বেশ কিছু স্থানে গাছ উপড়ে পড়ে যান চলাচল বন্ধ

করোনা নিয়ে গ্রাহকদের কেউ কেউ এখনও উদাসীন: ব্যাংক কর্তৃপক্ষ

করোনা নিয়ে গ্রাহকদের কেউ কেউ এখনও উদাসীন: ব্যাংক কর্তৃপক্ষ

সীমিত পরিসরে চলছে ব্যাংকিং কার্যক্রম। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে দুপুর একটা পর্যন্ত তিন ঘন্টা লেনদেনের সুযোগ পাচ্ছেন গ্রাহকরা। তবে, বেশিরভাগই ব্যাংকে যাচ্ছেন জরুরি প্রয়োজনে। কর্তৃপক্ষ বলছে, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে, যথাসম্ভব চেষ্টা করছেন তারা। তবে, এখনও কোনো কোনো গ্রাহকের মধ্যে রয়েছে উদাসীনতা।

রাজধানীর মতিঝিল। নগরীর ব্যস্ততম এই এলাকা এখন একেবারেই নীরব। করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে দুয়েকটি জরুরি সেবা ছাড়া বন্ধ সব কিছুই।

জরুরি সেবার অংশ হিসেবে সীমিত পরিসরে চলছে ব্যাংকিং কার্যক্রম। তবে কার্যালয়ের প্রবেশমুখ থেকেই চেষ্টা করা হচ্ছে নিরাপত্তা বজায় রাখার।

সম্প্রতি ব্যাংকগুলোতে লেনদেনের সময়সূচি নির্ধারণ করা হয়, ১০ টা থেকে দুপুর একটা পর্যন্ত। যদিও আনুষঙ্গিক কাজের জন্য খোলা থাকবে ৩ টা পর্যন্ত। এরআগে ২৯ মার্চ থেকে লেনদেনের সময়সীমা দুই ঘণ্টা নির্ধারণ করা হয়েছিল।

মঙ্গলবার সোনালী ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ে গ্রাহকদের তেমন কোন ভিড় চোখে পড়েনি। তবে, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার বিষয়ে কেউ কেউ বেশ উদাসীন।

নিজেদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে বিভিন্ন ধরনের প্রস্তুতি নিয়েছেন কর্মকর্তা কর্মচারীরাও। তাঁরা বলছেন, আমাদের সুরক্ষার জন্য সবধরণের প্রস্তুতি আমরা নিয়েছি। তবে অনেক গ্রাহক মানতে চান না, তাদের আমরা জোর করে নিয়ম মেনে কাজ করাই।

এদিকে লোকবল কম থাকায় কিছু সেবা না পেয়ে ক্ষুব্ধ কেউ কেউ। সাধারণ ছুটির সময় সীমিত পরিসরেই চলবে ব্যাংকিং কার্যক্রম।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর