channel 24

সর্বশেষ

  • দেশে করোনায় আরো ১ জনের মৃত্যু, নতুন আক্রান্ত ১৮: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

  • করোনায় বিধ্বস্ত বিশ্ব; প্রাণহানি ছাড়ালো ৬৪ হাজার, আক্রান্ত ১২ লাখের বেশি

  • পাইকার সংকটে দাম পাচ্ছে না যশোরের সবজি চাষীরা

  • করোনার প্রভাবে কেমন আছে পথে অবাধে বিচরণ করা কুকুর ?

  • হবিগঞ্জের রেমা কালেঙ্গা বনাঞ্চলে চলছে গাছ কাটার মহোৎসব

  • যুক্তরাষ্ট্রে করোনা মোকাবিলায় ২ লাখ কোটি ডলারের তহবিল ঘোষণা

  • করোনা মোকাবিলায় প্রায় ৭৩ হাজার কোটি টাকার প্রণোদনা ঘোষণা প্রধানমন্ত্রীর

  • চাহিদা কমায় দুধ সংগ্রহ কমিয়েছে মিল্কভিটাসহ অনেক প্রতিষ্ঠান

  • বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক রাখতে স্বাস্থ্যবিধি মেনেই কাজ করছেন কর্মীরা

  • নিউইয়র্কে ২৪ ঘন্টায় ৬৩০ জনের মৃত্যু

  • করোনা টেস্ট না হওয়ার চেয়ে ভুল টেস্ট আরও ভয়ঙ্কর

  • বগুড়ায় প্রথমবার করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগী শনাক্ত

  • গৃহহীনদের থাকা-খাওয়ার ব্যবস্থা করেছে বিশ্বের কয়েকটি সংস্থা ও হোটেল

  • ১১ এপ্রিল পর্যন্ত পোশাক কারখানা বন্ধ রাখার অনুরোধ রুবানা হকের

  • বিএনপির ঐক্যের ডাক জনমনে বিভ্রান্তি ছড়ানোর পাঁয়তারা: কাদের

এখনও বেশকিছু এনজিও আদায় করছে কিস্তি, বিপাকে কর্মহীন ঋণভোগীরা

এখনও বেশকিছু এনজিও আদায় করছে কিস্তি, বিপাকে কর্মহীন ঋণভোগীরা

করোনাভাইরাস মোকাবেলায়, সরকারি-বেসরকারি সব প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এনজিও কার্যক্রমও বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে প্রশাসন। কিন্তু তা অমান্য করে, এখন বেশকিছু এনজিও আদায় করছে কিস্তি। যাতে বিপাকে পড়েছেন কর্মহীন হয়ে পড়া ঋণভোগীরা। প্রশাসনের কর্মকর্তারা বলছেন, এসব এনজিও'র বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

করোনাভাইরাসের প্রভাবে স্থবির অর্থনীতি। সরকারি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে ঘোষণা করা হয়েছে সাধারণ ছুটি। এমনকি প্রশাসনের পক্ষ থেকে বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে, বিভিন্ন এনজিও'র কার্যক্রমও।

কিন্তু নির্দেশনা অমান্য করে, গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ ও পলাশবাড়ীতে কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে কিছু এনজিও। যাতে বিপাকে কর্মহীন হয়ে পড়া ঋণভোগীরা।

একই অবস্থা দিনাজপুরের হিলিতেও। করোনাভাইরাসের প্রভাবে মানুষ যখন ঘরবন্দি, তখন বেশকিছু এনজিও আদায় করছে কিস্তির টাকা।

যদিও প্রশাসনের কর্মকর্তারা বলছেন, নির্দেশনা না মানার সুযোগ নেই। গাইবান্ধার  গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা  রাম কৃষ্ণ বর্মন বলেন, গ্রামীন ব্যাংকের এনজিও থেকে তাঁরা ঋণ আদায়ের কাজ অব্যাহত রেখেছে। আমি তাঁদের ম্যানেজারকে ডেকে জিজ্ঞেস করেছি।

আর দিনাজপুরের হাকিমপুর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুর রাফিউল আলম বলেন, অনেককেই আমরা ফোন দিয়ে বলছি, তাঁরা জানান য তাঁরা জানতেন না। হয়তো আগামীকাল থেকে আর কেউ যাবে না।

বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনায় বন্ধ থাকবে এনজিওর কার্যক্রম, আশা ঋণ নেয়া মানুষগুলোর।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর