channel 24

সর্বশেষ

  • এবার ঢাকা ছাড়ছেন জাপানি নাগরিকরা

  • করোনায় আক্রান্ত দুধের বাজারও, বিক্রি হচ্ছে পানির দামে

  • ডিজিটাল প্লাটফর্মে চলছে বসুন্ধরা কিংসের অনুশীলন

  • ১১ এপ্রিল পর্যন্ত বন্ধ সরকারি-বেসরকারি অফিস, প্রজ্ঞাপন জারি

  • ৩ হাজার কয়েদিকে মুক্তির প্রস্তাব কারা অধিদপ্তরের

  • ভাড়া মওকুফ ও চাল-ডাল দিয়ে বিপদগ্রস্তদের পাশে নারায়ণগঞ্জের শান্তা

  • করোনা আক্রান্তদের পাশে জস বাটলার, নিলামে বিশ্বকাপ ফাইনালের জার্সি

  • ভোলায় সাংবাদিক নির্যাতন: ছাত্রলীগকর্মী নাবিল গ্রেপ্তার

  • জ্বর-সর্দি ও শাসকষ্টে ৩ জনের মৃত্যু

  • যুক্তরাষ্ট্রে মারা যেতে পারে প্রায় আড়াই লাখ মানুষ: হোয়াইট হাউস

  • করোনায় মানুষের পাশে ক্রিকেটার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন

  • দেশে করোনা আক্রান্তের অর্ধেকই এখন সুস্থ: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

  • অ্যাপে যোগ হচ্ছে ফার্মেসি ও নিত্যপণ্যের দোকান; ব্যবসায় নতুন সম্ভবনা

  • মশার কামড়ে অতিষ্ঠ নওগাঁর পৌর এলাকার মানুষ

  • বঙ্গবন্ধু মেডিকেলে মাত্র ৪ ঘণ্টায় মিলবে করোনা পরীক্ষার ফল

করোনা আতঙ্কে চারদিনেই ডিএস‌ই হারালো ৮০০ পয়েন্ট

করোনা আতঙ্কে চারদিনেই ডিএস‌ই হারালো ৮০০ পয়েন্ট

এক বছরের বেশি সময় ধরে নিম্নমুখী প্রবণতায় ছিলো দেশের পুঁজিবাজার। জানুয়ারিতে কিছুটা ঘুরে দাঁড়ালেও করোনা আতঙ্কে ফের পতনের ধারায় দুই স্টক এক্সচেঞ্জের সূচক। আক্রান্তের খবরের মাত্র চার দিনেই সূচক কমেছে ৮শ' পয়েন্ট।

অব্যাহত পতন ঠেকাতে চলতি বছর জানুয়ারির দ্বিতীয় সপ্তাহে পুঁজিবাজার অর্থের জোগান বাড়ানোসহ বেশকিছু নির্দেশনা দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এতে বাজার কিছুটা ঘুরে দাঁড়ায়। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের প্রধান সূচক বাড়ে প্রায় আটশ পয়েন্ট। তিনশ কোটির লেনদেন গিয়ে ঠেকে হাজার কোটিতে।

হাওয়া বইতে শুরু করে বিনিয়োগকারীদের প্রত্যাশার পালে। কিন্তু ফেব্রুয়ারি মাঝামাঝি থেকে ফের ছন্দপতন। এই অবস্থায় ৮ মার্চ দেশে সন্ধান মেলে ৩ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর। পর দিনই ডিএসইর প্রধান সূচক হারায় ২৭৯ পয়েন্ট। ১৪ মার্চ রাতে নতুন করে দুজন আক্রান্তের খবরে সূচক কমে আরও ১৬০ পয়েন্ট। পরের দুই কর্মদিবসে ডিএসইএক্স আরও ৩৬৪ পয়েন্ট কমলে, সূচক নেমে আসে ৩ হাজার ৬০৩ পয়েন্টে। ফিরে যায় সাত বছর আগের অবস্থানে।

বিশ্লেষকরা বলছেন, পুঁজিবাজারে করোনার প্রভাব বৈশ্বিক। তবে দেশেও এর প্রভাব পড়েছে বাস্তবতার তুলনায় একটু বেশি। আর্থিকখাতের নাজুক পরিস্থিতিও বাজার ধসের জন্য দায়ী।
 
বিএসইসির সাবেক চেয়ারম্যান ফারুক আহমেদ সিদ্দিকীর মতে, আর্থিকখাতের সমস্যাগুলো সমাধান করা গেলে, এর ইতিবাচক প্রভাব পড়বে পুঁজিবাজারে।

বিশ্লেষক ডিবিএ'র সাবেক সভাপতি মোস্তাক আহমেদ সাদেক বলেছেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা বাস্তবায়িত হলেও, বাজার অর্থের প্রবাহ বাড়তো।

গেলো সোমবার অর্থমন্ত্রীর সাথে বৈঠকে ব্যাংক মালিকরা জানিয়েছেন, আগামী সপ্তাহে থেকে পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ শুরু করবেন তারা।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর