channel 24

সর্বশেষ

  • বন্যা পরিস্থিতির অবনতি, ১০টি নদ-নদীর পানি বিপৎসীমার উপরে

  • হজ্জ্ব ক্যাম্পে কোয়ারেন্টিন শেষে বাড়ি ফিরলো ৯৬ কুয়েত প্রবাসী

  • সর্দিজ্বর, কাশি ও শ্বাসকষ্টে ৬ জনের মৃত্যু

  • ৭ মার্চকে 'জাতীয় ঐতিহাসিক দিবস' ঘোষণার প্রস্তাব মন্ত্রিসভায় সম্মতি

  • লাজ ফার্মায় র‌্যাবের অভিযান

  • সাবরিনার কাছে রিমান্ডে মিলতে পারে ভুয়া করোনা সনদ বাণিজ্যের তথ্য

  • না ফেরার দেশে চলে গেলেন আর্চবিশপ মজেস এম কস্তা

  • পোলিও পায়ের শক্তি কেড়ে নিলেও দমে যাননি নড়াইলের গোপিনাথ

  • স্বাস্থ্যবিধি মেনে কমিউনিটি সেন্টার খোলার দাবি বাবুর্চিদের

  • কক্সবাজার সৈকতে পাওয়া গেছে আরও ৫টি কচ্ছপের মৃতদেহ

  • অনলাইনে হয়ে গেল কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা প্রযুক্তি সম্মেলন

  • প্রথমবারের মতো পার্সেল ট্রেনে বাংলাদেশে মরিচ পাঠাচ্ছে ভারত

  • যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম বাবুল করোনায় মারা গেছেন

  • ইনজুরিতে লা লিগার বাকী ম্যচগুলোতে অনিশ্চিত গ্রিয়েজম্যান

  • আমাকে ফাঁসানো হয়েছে, আমি নির্দোষ: আদালতে সাবরিনা

বাজারে আসছে ২০০ টাকা মূল্যমানের নতুন নোট

বাজারে আসছে ২০০ টাকা মূল্যমানের নতুন নোট

দেশের বাজারে প্রথমবারের মতো ২০০ টাকা মূল্যমানের নতুন নোট ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে, বাংলাদেশ ব্যাংক। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে নতুন নোট ছাড়া হচ্ছে। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের এমন সিদ্ধান্ততে স্বাগত জানিয়েছেন, ব্যাংক খাত সংশ্লিষ্টরা। বর্তমান প্রেক্ষাপটে ২০০ টাকা মূল্যমানের নোটে সাধারণ মানুষ উপক্রিত হবে বলেই মনে করছেন তারা।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। ১৯২০ সালে ১৭-ই মার্চ গোপালগঞ্জের টুঙ্গীপাড়ায় জন্ম স্বাধানীরতা স্বপ্নদ্রষ্টার। আগামী ১৭-ই মার্চ তার জন্মের শতবর্ষ পূর্তি। আর সেই দিনটিকে স্মরণীয় করে রাখতেই বছরজুড়ে রয়েছে নানা আয়োজন।

এরই অংশ হিসেবে প্রথমবারের মতো ২০০ টাকা মূল্যমানের নোট ছাড়ছে বাংলাদেশ ব্যাংক, যা বাজারে আসবে চলতি মাসেই।
 
বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র সিরাজুল ইসলাম বলেন, অনেক পরিমাণ দুইশো টাকার নোট করা হবে। প্রথম বছর এটা স্মারক মুদ্রা হিসেবে  থাকবে, পরবর্তী সময়ে এই নোটটা নিয়মিত হিসেবে ব্যবহৃত হবে।

মুজিব বর্ষ উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ ব্যাংকের এমন উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন সাবেক গভর্নর ও ব্যাংকাররা। তারা বলছেন, নতুন দুইশো টাকা ছাড়া হলে, সাধারণ মানুষ উপকৃত হবে। মূল্যস্ফীতিতে এটি কোনো প্রভাব ফেলবে না বলেও আশা তাদের।

অগ্রণী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ শামস উল ইসলাম বলেন, এটা একটা ওয়েলকাম স্টেপ যে পরবর্তীতে এই স্মারক নোটটি বাজারে নিয়মিত হবে। নোট ছাপা মানেই কিন্তু অতিরিক্ত ছাপা না এটার পেছনে ভ্যালু রয়েছে এবং আমি মনে করি পুরনো যেটা নষ্ট হয়ে গেছে সেগুলো তারা মার্কেট থেকে তুলে নিবে আর এইগুলো প্রচলন করবে। পরবর্তীতে এটা ভাল ইমপেক্ট আসবে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক সাবেক গর্ভনর আতিউর রহমান বলেন, মানি সাপ্লাইয়ের ক্ষেত্রে দুইশো টাকার নোট খুব বড় ইমপেক্ট পড়বে না। কারণ ১০০ টাকার নোট আমাদের আছে, আর একশ টাকা নিলে দুইশো টাকা হয়। আর দুইশো টাকা থাকলে তাদের কম নোট বহন করতে হবে। সেদিক থেকে চিন্তা করলে এটা একটা ভাল উদ্যোগ।

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপনের অংশ হিসেবে ১০০ টাকা মূল্যমানের সোনা ও রূপার স্মারক মুদ্রাও ছাড়বে বাংলাদেশ ব্যাংক।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর