channel 24

সর্বশেষ

  • সিলেটে বেশিরভাগ হাসপাতালে মিলছে না কাঙ্খিত চিকিৎসা সেবা

  • করোনায় মধ্যবিত্তদের সহায়তায় সিএমপির 'চলছে গাড়ি, মধ্যবিত্তের বাড়ি' কর্মসূচী

  • করোনায় মৃতদেহ সৎকারে বিপাকে বিশ্বের সব দেশ

  • করোনায় বিশ্বে প্রাণহানি প্রায় ৫৯ হাজার; আক্রান্ত ১০ লাখের বেশি

  • ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে মানুষের ঢল

  • পণ্যের পর্যাপ্ত সরবরাহ থাকলেও ক্রেতা নেই রাজধানীর কাঁচাবাজারে

  • ব্রিটেনে ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড ৬৮৪ জনের প্রাণহানি

  • চট্টগ্রামে করোনা আক্রান্ত প্রথম একজন শনাক্ত, বাড়ি লকডাউন

  • সাধারণ ছুটিতে বিপাকে ছিন্নমূল ও খেটেখাওয়া মানুষেরা

  • করোনার থাবায় নাস্তানাবুদ গোটা বিশ্ব, আক্রান্ত ছাড়ালো ১০ লাখ

  • খুলনায় বেশিরভাগ হাসপাতালে মিলছে না চিকিৎসা, ভোগান্তিতে রোগীরা

  • কিশোরগঞ্জে অটোরিকশার সিরিয়ালকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ, নিহত ১

  • যে ছবি ভাইরাল হয়েছে

  • অনেক পণ্যের দাম কমলেও চট্টগ্রামে বেড়েছে চাল, ডালের মূল্য

  • একমাস লকডাউনের ঘোষণা সিঙ্গাপুরের

দেশের সড়ক নিরাপদ করতে ৮শ' কোটি ডলার বিনিয়োগ করতে হবে

দেশের সড়ক নিরাপদ করতে ৮শ' কোটি ডলার বিনিয়োগ করতে হবে

সড়ক দুর্ঘটনার কারণে প্রতিবছর দেশের মোট জিডিপির প্রায় ৩ শতাংশ ক্ষতি হচ্ছে। আর সড়ক ব্যবস্থা নিরাপদ করতে আগামী এক দশকে বাংলাদেশের বিনিয়োগ করতে হবে ৭শ ৮০ কোটি মার্কিন ডলার। সম্প্রতি এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য তুলে ধরে বিশ্বব্যাংক। সংস্থার সিনিয়র ট্রান্সপোর্ট স্পেশালিস্ট বলছেন, নিরাপদ সড়কের বিষয়টিকে বাংলাদেশের আরো গুরুত্বের সাথে দেখা উচিত।একজন বিশ্লেষক বলছেন, এ খাতে শুধু বিনিয়োগ করলেই চলবেনা, কাজের গুনগত মানও নিশ্চিত করতে হবে।

দেশে প্রতিবছর অস্বাভাবিক মৃত্যুর সংখ্যায় শীর্ষস্থানে সড়ক দুর্ঘটনা। গেলো বছর যাতে মারা যায় সোয়া পাঁচ হাজার মানুষ। এর বাইরেও, গুণতে হয় বিপুল পরিমাণ আর্থিক ক্ষতি। ঋণদাতা সংস্থা বিশ্বব্যাংকের সাম্প্রতিক এক গবেষণা বলছে, এই ক্ষতির পরিমাণ জিডিপির ২ থেকে ৩ শতাংশ।

সংস্থার একজন গবেষক মনে করেন, বাংলাদেশের অর্থনীতি বিস্তৃত হলেও, যোগাযোগ খাতের গুণগত উন্নয়নে নজর পড়েনি খুব বেশি। যার নেতিবাচক প্রভাব দেখা যাচ্ছে দীর্ঘদিন ধরেই।

বিশ্বব্যাংকের সিনিয়র ট্রান্সপোর্ট স্পেশালিস্ট রাজেশ রোহাতগি বলেন, সড়ক দুর্ঘটনায় যারা নিহত হচ্ছেন তাদের অধিকাংশই কর্মক্ষম জনগোষ্ঠীর। দেশের মানব সম্পদের ওপর এটি নেতিবাচক প্রভাব ফেলছে। এর ফলে প্রতিবছর মোট দেশজ উৎপাদন বা জিডিপি'র ক্ষতি হচ্ছে প্রায় ৩ শতাংশ। নিরাপদ সড়কের বিষয়ে বাংলাদেশকে আরো গুরুত্ব দিতে হবে। দেশের উন্নয়নে এটি একটি বড় ইস্যু।

সংস্থাটির গবেষণা বলছে, আগামী এক দশকে নিরাপদ সড়ক ব্যবস্থাপনায় বিনিয়োগ করতে হবে প্রায় ৮ বিলিয়ন ডলার। উন্নত করতে সড়ক- মহাসড়ক, ট্রাফিক এবং যানবাহনের মানও।

বিশ্বব্যাংকের সিনিয়র ট্রান্সপোর্ট স্পেশালিস্ট রাজেশ রোহাতগি বলেন, আমরা মনে করি ৭ দশমিক ৮ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগর ফলে প্রায় ৫০ শতাংশ দুর্ঘটনা কমে যাবে। তবে সরকারের প্রয়োজন কার্যকরী পরিকল্পনা, সংস্থাগুলোর কাজের সুষ্ঠু সমন্বয় এবং যথাযথ নজরদারি।

একজন বিশ্লেষক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ড. সায়মা হক বিদিশা বলছেন, নিরাপদ সড়কের জন্য শুধু বিনিয়োগ করলেই চলবেনা, কাজের গুণগত মানও নিশ্চিত করতে হবে।

দক্ষিণ এশিয়ায় সড়কে প্রাণহানির মোট ঘটনার ৮৭ শতাংশই এ উপঅঞ্চলে। বিশ্বব্যাংকের প্রতিবেদন অনুযায়ি একই খাতে ভারতকেও বিনিয়োগ করতে হবে ১০৯ বিলিয়ন ডলার।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর