channel 24

সর্বশেষ

  • 'সাহারা খাতুন ছিলেন রাজপথে আন্দোলনের বলিষ্ঠ কণ্ঠ'

  • মিরপুরে সেপটিক ট্যাংক থেকে শিশুর মরদেহ উদ্ধার

  • প্লেব্যাক সম্রাট এন্ড্রু কিশোর ৮ বার পেয়েছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার

  • রাজস্ব আদায়ে অশনিসংকেত; সামষ্টিক অর্থনীতিতে বড় ধরণের প্রভাব পড়ার আশঙ্কা

  • রাস্তায় নারীর মরদেহ; সিসি ক্যামেরার ফুটেজে মিললো খুনির হদিস

  • মৌলভীবাজারে চুরির অপবাদে দুই শিশুকে নির্যাতন

  • হাটহাজারীতে করোনা আক্রান্তদের পাশে তরুণরা

  • সুনামগঞ্জে নদীর পানি বাড়ায় বন্যা পরিস্থিতির অবনতি

  • সাহেদের প্রধান সহযোগী তারেক শিবলী ৫ দিনের রিমান্ডে

  • ঝিনাইদহে ঐতিহ্যবাহী তেঁতুল গাছ রক্ষার দাবিতে মানববন্ধন

  • 'সাহেদের অপকর্ম সম্পর্কে জানতে সময় লাগলেও ছাড় নয়'

  • কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে ইএক্সপি যাচ্ছে অনলাইনে; চট্টগ্রাম কাস্টমসে শুল্কায়ন শুরু

  • ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে ছুটছে ম্যান ইউ'র জয়রথ

  • করোনার ভুয়া সনদকাণ্ডে ইতালিতে বিপাকে বাংলাদেশিরা

  • দেশে করোনায় আরও ৩৭ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২৯৪৯

দেশের সড়ক নিরাপদ করতে ৮শ' কোটি ডলার বিনিয়োগ করতে হবে

দেশের সড়ক নিরাপদ করতে ৮শ' কোটি ডলার বিনিয়োগ করতে হবে

সড়ক দুর্ঘটনার কারণে প্রতিবছর দেশের মোট জিডিপির প্রায় ৩ শতাংশ ক্ষতি হচ্ছে। আর সড়ক ব্যবস্থা নিরাপদ করতে আগামী এক দশকে বাংলাদেশের বিনিয়োগ করতে হবে ৭শ ৮০ কোটি মার্কিন ডলার। সম্প্রতি এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য তুলে ধরে বিশ্বব্যাংক। সংস্থার সিনিয়র ট্রান্সপোর্ট স্পেশালিস্ট বলছেন, নিরাপদ সড়কের বিষয়টিকে বাংলাদেশের আরো গুরুত্বের সাথে দেখা উচিত।একজন বিশ্লেষক বলছেন, এ খাতে শুধু বিনিয়োগ করলেই চলবেনা, কাজের গুনগত মানও নিশ্চিত করতে হবে।

দেশে প্রতিবছর অস্বাভাবিক মৃত্যুর সংখ্যায় শীর্ষস্থানে সড়ক দুর্ঘটনা। গেলো বছর যাতে মারা যায় সোয়া পাঁচ হাজার মানুষ। এর বাইরেও, গুণতে হয় বিপুল পরিমাণ আর্থিক ক্ষতি। ঋণদাতা সংস্থা বিশ্বব্যাংকের সাম্প্রতিক এক গবেষণা বলছে, এই ক্ষতির পরিমাণ জিডিপির ২ থেকে ৩ শতাংশ।

সংস্থার একজন গবেষক মনে করেন, বাংলাদেশের অর্থনীতি বিস্তৃত হলেও, যোগাযোগ খাতের গুণগত উন্নয়নে নজর পড়েনি খুব বেশি। যার নেতিবাচক প্রভাব দেখা যাচ্ছে দীর্ঘদিন ধরেই।

বিশ্বব্যাংকের সিনিয়র ট্রান্সপোর্ট স্পেশালিস্ট রাজেশ রোহাতগি বলেন, সড়ক দুর্ঘটনায় যারা নিহত হচ্ছেন তাদের অধিকাংশই কর্মক্ষম জনগোষ্ঠীর। দেশের মানব সম্পদের ওপর এটি নেতিবাচক প্রভাব ফেলছে। এর ফলে প্রতিবছর মোট দেশজ উৎপাদন বা জিডিপি'র ক্ষতি হচ্ছে প্রায় ৩ শতাংশ। নিরাপদ সড়কের বিষয়ে বাংলাদেশকে আরো গুরুত্ব দিতে হবে। দেশের উন্নয়নে এটি একটি বড় ইস্যু।

সংস্থাটির গবেষণা বলছে, আগামী এক দশকে নিরাপদ সড়ক ব্যবস্থাপনায় বিনিয়োগ করতে হবে প্রায় ৮ বিলিয়ন ডলার। উন্নত করতে সড়ক- মহাসড়ক, ট্রাফিক এবং যানবাহনের মানও।

বিশ্বব্যাংকের সিনিয়র ট্রান্সপোর্ট স্পেশালিস্ট রাজেশ রোহাতগি বলেন, আমরা মনে করি ৭ দশমিক ৮ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগর ফলে প্রায় ৫০ শতাংশ দুর্ঘটনা কমে যাবে। তবে সরকারের প্রয়োজন কার্যকরী পরিকল্পনা, সংস্থাগুলোর কাজের সুষ্ঠু সমন্বয় এবং যথাযথ নজরদারি।

একজন বিশ্লেষক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ড. সায়মা হক বিদিশা বলছেন, নিরাপদ সড়কের জন্য শুধু বিনিয়োগ করলেই চলবেনা, কাজের গুণগত মানও নিশ্চিত করতে হবে।

দক্ষিণ এশিয়ায় সড়কে প্রাণহানির মোট ঘটনার ৮৭ শতাংশই এ উপঅঞ্চলে। বিশ্বব্যাংকের প্রতিবেদন অনুযায়ি একই খাতে ভারতকেও বিনিয়োগ করতে হবে ১০৯ বিলিয়ন ডলার।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর