channel 24

সর্বশেষ

  • কুমিল্লার জিয়াপুর ও বিরামকান্দি গ্রাম লকডাউন

  • চীনের প্রেসিডেন্টকে ধন্যবাদ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীর চিঠি

  • করোনায় ভিন্ন আঙ্গিকে পালিত হচ্ছে পবিত্র শবে বরাত

  • জাতীয় অধ্যাপক ও ভাষা সৈনিক ড. সুফিয়া আহমেদ মারা গেছেন

  • বিশ্বজুড়ে ভারি হচ্ছে লাশের পাল্লা, প্রাণহানি ছাড়িয়েছে ৯০ হাজার

  • রোহিঙ্গা ক্যাম্পে করোনা সংক্রমণ রোধে বিশেষ ব্যবস্থা

  • শবে বরাতে ঘরে বসে ইবাদতের পরামর্শ, কবরস্থান-মাজারে যাওয়ায় নিষেধাজ্ঞা

  • দেশে প্রথমবারের মতো একদিনে আক্রান্ত শতাধিক

  • খাগড়াছড়িতে হামের প্রকোপ, আক্রান্ত ২ শতাধিক শিশু

  • অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের বাংলাদেশ সফর স্থগিত

  • লকডাউনের পরও রাজধানীতে মানুষকে ঘরে রাখা যাচ্ছে না

  • ব্যক্তিগত-প্রাতিষ্ঠানিক ত্রাণের তালিকায় নেই শিশু খাদ্য

  • নারায়ণগঞ্জে ডিসি, সিভিল সার্জনসহ কয়েকজন শীর্ষ কর্মকর্তা হোম কোয়ারেন্টিনে

  • ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে ৫ টাকায় সবজি বাজার

  • নাটোরের সিংড়ায় করোনা উপসর্গ নিয়ে গৃহবধূর মৃত্যু, পুরো গ্রাম লকডাউন

৪ বছরে এসডিজি অর্জনে দুরবস্থায় বৈষম্য সূচক

৪ বছরে এসডিজি অর্জনে দুরবস্থায় বৈষম্য সূচক

গেলো চার বছরে এসডিজি অর্জনের ক্ষেত্রে হতাশ করেছে বৈষম্য সূচক। ছয়টি অভীষ্ট নিয়ে অগ্রগতি পর্যালোচনা করে সিপিডি বলছে, ভোগ, আয় কিংবা সম্পদের বৈষম্য এখন নতুন উচ্চতায়। অথচ, এটি কমানো না গেলে টেকসই উন্নয়ন অসম্ভব। যদিও, এই সময়ে তুলনামূলক ভালো এগিয়েছে শিক্ষার মান সূচক। বক্তারা বলেন, সরকারের নীতি এবং উন্নয়ন কৌশলে এখনো বড় ঘাটতি রয়ে গেলে। যা কমাতে বেসরকারি খাতকে সম্পৃক্ত করা জরুরি।

প্রাথমিক ভর্তির ক্ষেত্রে প্রায় শতভাগ সাফল্য বাংলাদেশের। যা এক রকম তাক লাগিয়েছে পুরো বিশ্বকে। কিন্তু, সমানতালে সমালোচনা হয়েছে শিক্ষার গুণগত মান নিয়ে। সেই দুর্নাম ঘোচাতে সবচেয়ে বড় প্ল্যাটফরম হিসেবে, এসডিজি বাস্তবায়নে সক্রিয় অবস্থান সরকারের। এরই মধ্যে মন্ত্রণালয়ভিত্তি কর্মকৌশলও নেয়া হয়েছে বিস্তৃত পরিসরে। যার সুফলও এসেছে আংশিকভাবে।

চার বছরে ছয়টি অভীষ্ট নিয়ে পর্যালোচনা করে সিপিডি বলছে, এই সময়ে তুলনামূলক ভালো অবস্থানে অভীষ্ট-৪ বা গুণগত শিক্ষার উন্নয়ন।

তবে সমানতালে হতাশ করেছে বৈষম্য সূচক। কারণ এই সময়ে অর্থনীতির আয়তন বাড়লেও তার সুবিধা পৌঁছানো যায়নি প্রান্তিক মানুষের কাছে। ফলে সম্পদ বেড়েছে ধনীদের। বিপরীতে প্রকৃত আয় কমেছে গরিব মানুষের। এ কারণে এই দুই শ্রেণীর মধ্যে ব্যবধান বেড়েছে অনেকখানি। যাকে টেকসই অর্থনীতির বড় শত্রু হিসেবে চিহ্নিত করেন বক্তারা।

এসডিজির ১৭ অভীষ্ট আর ১৬৯ লক্ষ্য বাস্তবায়নের সময়সীমা ২০৩০ সাল। এটি বাস্তবায়নে তাই বেসরকারি খাতকে সম্পৃক্ত করার আহ্বান জানানো হয় সেমিনারে।

 

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর