channel 24

সর্বশেষ

  • গৃহহীনদের থাকা-খাওয়ার ব্যবস্থা করেছে বিশ্বের কয়েকটি সংস্থা ও হোটেল

  • ১১ এপ্রিল পর্যন্ত পোশাক কারখানা বন্ধ রাখার অনুরোধ রুবানা হকের

  • বিএনপির ঐক্যের ডাক জনমনে বিভ্রান্তি ছড়ানোর পাঁয়তারা: কাদের

  • করোনা: বিশ্বজুড়ে প্রাণহানি ছাড়ালো ৬০ হাজার; আক্রান্ত ১১ লাখের বেশি

  • চাকরি বাঁচাতে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ঢাকামুখী হাজার হাজার পোশাক শ্রমিক

  • ময়মনসিংহ ও ঝালকাঠিতে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৩

  • রাজশাহী চিড়িয়াখানায় চারটি হরিণ খেয়ে ফেলেছে ৫ কুকুর

  • তিনি ঢাকঢোল পিটিয়ে সহায়তা করেননা

  • কক্সবাজারে ভেসে ওঠা সেই ডলফিন মরছে জেলেদের হাতে!

  • করোনায় কে কোথায়?

  • করোনা প্রতিরোধে ৫ লাখ পাউন্ড দান করবে ইসিবির চুক্তিবদ্ধ ক্রিকেটাররা

  • বগুড়ায় স্বেচ্ছাসেবকলীগের দু'পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১

  • করোনার উপসর্গ নিয়ে লহ্মীপুরে দুই শিশুর মৃত্যু, ৯টি বাড়ি লকডাউন

  • করোনা: ৮৭ হাজার কোটি টাকার প্যাকেজ প্রণোদনার প্রস্তাব বিএনপির

  • জামিন নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ ২ সপ্তাহ বাড়ালেন সুপ্রিম কোর্ট

রাষ্ট্রায়ত্ত্ব পাঁচটি ব্যাংকের পুঁজিবাজারে আসা নিয়ে শঙ্কায় বিশ্লেষকরা

রাষ্ট্রায়ত্ত্ব পাঁচটি ব্যাংকের পুঁজিবাজারে আসা নিয়ে শঙ্কায় বিশ্লেষকরা

আগামী সেপ্টেম্বরের মধ্যে রাষ্ট্রায়ত্ত্ব পাঁচ ব্যাংক পুঁজিবাজারে আনার ঘোষণা দিয়েছে সরকার। এ উদ্যোগকে কেউ কেউ ইতিবাচক বললেও শঙ্কা প্রকাশ করেছেন, লোকসানি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার কিনতে কেউ আগ্রহী হবে কি-না তা নিয়ে? এসব প্রতিষ্ঠানের আমলাতান্ত্রিক ব্যবস্থাপনার পরিবর্তন এবং জবাবদিহিতা নিশ্চিতেও গুরুত্ব দেন তারা। আস্থা ফেরাতে ভালো প্রতিষ্ঠান তালিকাভুক্তির পরামর্শ তাদের।

পুঁজিবাজের উন্নয়নে গত ২ ফেব্রুয়ারি সরকারি ৭টি প্রতিষ্ঠানের ১০-২৫ শতাংশ শেয়ার ছাড়ার সিদ্ধান্তের কথা জানান অর্থমন্ত্রী।

এর এক সপ্তাহ পরেই ঘোষণা আসে চলতি বছরের সেপ্টেম্বরের মধ্যে রাষ্ট্রায়ত্ত্ব পাঁচ ব্যাংককে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত করার। ব্যাংকগুলো হল সোনালী, জনতা, অগ্রণী, রূপালী এবং বিডিবিএল।

এর পর থেকেই আলোচনায় দীর্ঘদিন ধরে লোকসানে থাকা এসব ব্যাংক পুঁজিবাজারের উন্নয়নে কতটা ভূমিকা রাখবে তা নিয়ে?  অনিয়ম ও অব্যবস্থাপনায় জড়জড়িত এসব প্রতিষ্ঠানের শেয়ার কিনতে সাধারণ মানুষ আগ্রহী হবেন কিনা তা নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন বিশ্লেষকরা।  

বিশ্বব্যাংকের সাবেক লিড ইকোনমিস্ট ড. জাহিদ হোসেন বলেন, রাষ্ট্রায়ত্ত্ব পাঁচটি ব্যাংকই লোকসানে রয়েছে। মোট ঋণ খেলাপির বেশির ভাগই এসব ব্যাংকের হিসাবধারী। সেক্ষেত্রে পুঁজিবাজারে এসব ব্যাংক আসলে মানুষের মাঝে আস্থার সংকট দেখা দিতে পারে।

তবে এ উদ্যোগ আরো আগেই নেয়া উচিত ছিল বলে মনে করছেন এই বিশ্লেষক। তালিকাভুক্তির পর ধীরে ধীরে শেয়ারের হার বাড়ানোর পরামর্শ তাদের।

পিআরআই-এর নির্বাহী পরিচালক  ড. আহসান এইচ মনসুর বলেন, সরকারের এ ধরণের সিদ্ধান্ত অনেক আগেই নেয়া প্রয়োজন ছিল।

এসব প্রতিষ্ঠানে আমলাতান্ত্রিক ব্যবস্থাপনার পরিবর্তন এবং জবাবদিহিতা নিশ্চিতের বিষয়েও গুরুত্ব দেন তারা।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর