channel 24

সর্বশেষ

  • বান্দরবানে সন্ত্রাসীদের গুলিতে আ.লীগ নেতা নিহত

  • শীর্ষ সন্ত্রাসী জিসানের সহযোগী গ্রেপ্তার

  • বিসিএলের ফাইনালে বড় সংগ্রহের পথে সাউথ জোন

  • ফরিদপুরে মোতালেব হোসেন বিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত

  • ঢাকা টেস্টের প্রথম দিনে নাঈম হাসানের ৪ উইকেট

  • স্কাউটের জনক লর্ড ব্যাডেন পাওয়েলের ১৬৩তম জন্মবার্ষিকী পালিত

  • সিলেটে জীববিজ্ঞান উৎসব অনুষ্ঠিত

  • পাটুরিয়া-দৌলতদিয়ায় লঞ্চ ডুবির পাঁচ বছর আজ

  • বসুন্ধরা বিটুমিন প্লান্টের যাত্রা শুরু

  • 'তথ্য প্রবাহে অযাচিত হস্তক্ষেপে গুজবের মাধ্যমে সুবিধা পায় উগ্রবাদীরা'

  • চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল আড়াইশো শয্যার দাবিতে মানববন্ধন

  • সিলেটে পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে নিহত ২

  • কচুরিপানা খাবারের উপযোগী কি না পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে: বাণিজ্যমন্ত্রী

  • করোনাভাইরাস: দক্ষিণ কোরিয়া জুড়ে আতঙ্ক, শঙ্কায় প্রবাসী বাংলাদেশিরা

  • বঙ্গবন্ধুর নির্দেশেই ৫২'র ২১ ফেব্রুয়ারি ছাত্র ধর্মঘট ডাকা হয়েছিল: প্রধানমন্ত্রী

অপরিকল্পিত উন্নয়নে ঋণের বোঝা: বিশ্লেষক

অপরিকল্পিত উন্নয়নে ঋণের বোঝা: বিশ্লেষক

চারদিকে কেবলই শঙ্কা। বাজার চড়া অথচ খরচ তুলতেই হিমশিম অবস্থা কৃষকের। রাষ্ট্র পরিচালনার খরচ নিতে হচ্ছে ব্যাংক থেকে ধার করে। বড় প্রকল্প বানাতে গিয়ে চড়া ঋণ চেপে বসছে জনগণের কাঁধে। সুশাসনের অভাব, দুর্নীতি আর অনিয়মের জাল ছিঁড়ে উচ্চ প্রবৃদ্ধির সুবিধা কতোখানি পৌঁছাবে সাধারণ মানুষের কাছে নতুন বছরে সেটিই বড় প্রশ্ন অর্থনীতিবিদদের। তাদের প্রত্যাশা, অর্থনীতি কিংবা রাজনীতি সবকিছুই সাজানো হোক নতুন করে।

উদীয়মান অর্থনীতির বাংলাদেশে আরো একটি নতুন বছর, ২০২০। খ্রিস্ট নববর্ষ হলেও আবহমান বাংলার চেনা রূপের সাথে এর বৈশিষ্ট্য মিলে একাকার হয়ে যায় কখনো-কখনো। হলুদ সরিষা ফুলে ছেয়ে থাকা মাঠ আর শীতের হিমেল আবহে প্রাণ জাগে প্রকৃতির।

যেখানে, ফসলের মাঠে নিত্যদিনের ব্যস্ততায় কাটে আমিজ উদ্দিনের মতো বহু কৃষকের। দশ বছর বিদেশে থেকে ফিরে আসেন দেশে। শুরু করেন সবজি চাষ। কিন্তু, তার গড়পড়তা অভিজ্ঞতা হলো, খরচ তুলতেই হিমশিম খেতে হয় প্রতিবছর।

কৃষক আমিজ উদ্দিন বলেন, কৃষকের শান্তি নাই কোথাও। ধরেন, এক মণ বেগুন বিক্রি করলেন ১ হাজার টাকায়। সেখানে সার কীটনাশক মিলেই লাগে ৫-৬শত টাকা। তাহলে লাভ হয় কেমনে বলেন।

প্রায় একযুগ আগে, রংপুর থেকে মানিকগঞ্জে কাজ করতে যান গোলাপ মিয়া। তবে, তার অভিজ্ঞতা কিছুটা ভিন্ন। দৈনিক দেড়শ টাকা থেকে শুরু করে মজুরি এখন সাড়ে তিনশ। যা দিয়ে, খানিকটা হলেও বদলাতে পেরেছেন নিজের ভাগ্য।

গোলাপ মিয়া বলেন, আগে বেতন ছিল কম, এখন বেশ ভালই বেতন পাই। কাম কাজ করলেই আরও বেশি টাকা পাবো, দিনকাল ভালো যাবে। এই আশা করি।

গোলাপ মিয়ার মতো বহু বিপরীতমুখী বৈশিষ্ট্য নিয়ে যাত্রা আরো একটি নতুন ক্যালেন্ডার বর্ষের। যেখানে, স্বস্তির চেয়ে অস্বস্তিই বেশি; অর্থনীতি, রাজনীতি কিংবা সার্বিক জীবনযাত্রায়। একদিকে ব্যাংক খাতের গোলমেলে অবস্থা, অন্যদিকে নিত্যপণ্যের ঊর্ধ্বগতিতে নাভিশ্বাস, অল্প আয়ের মানুষের। নতুন বছরে এর থেকে পরিত্রাণে উদ্যোগ আশা করেন ড. ওয়াহিদ উদ্দিন মাহমুদ।

ড. ওয়াহিদ উদ্দিন মাহমুদ বলেন, যদিও গণতন্ত্র আছে, তবুও একদলের প্রভাবেই পুরো দেশ চলছে। তাহলে তো গোষ্ঠী বিশেষকে খুশি করার হুব বেশি প্রয়োজন নেই। সেই দিক থেকে সুশাসনের একটু সুবিধা ছিল। সেই সুযোগটা আমরা নিচ্ছি কিনা, সেই প্রশ্নও আজকে উঠছে।

বিশ্বে দ্রুত প্রবৃদ্ধি অর্জনকারী দেশের তালিকায় এখন শীর্ষে বাংলাদেশ। অথচ, সমানতালে বেড়েছে অনিয়ম আর দুর্নীতি। সুশাসনের ব্যর্থতা গিলে ফেলেছে সমাজের প্রতিটি প্রান্ত। বড় প্রকল্প বানাতে গিয়ে ধারের চাপ বাড়ছে রাষ্ট্রের কাঁধে। যাকে উন্নয়নের অপরিকল্পিত আখ্যান বলে মনে করেন এই বিশ্লেষক।

ড. ওয়াহিদ উদ্দিন মাহমুদ বলেন, একদিকে আমরা প্রবৃদ্ধিটা এত ভালো করছি, অন্যদিকে সারা দেশের বিভিন্ন জায়গায় যদি আমাদের নৈতিকতার ঘাটতি দেখা যায়, সেই প্রবৃধি একদিকে টেকসই হওয়া কঠিন হবে অন্যদিকে সেই প্রবৃদ্ধির গুণগত মান নিয়েও সমস্যা দেখা দিবে।

এতোসব শঙ্কার মধ্যেও, বিশ্ববাজার ঘিরে আরো একটি মন্দার আভাস চারদিকে।

নতুন বছর, নতুন সম্ভাবনা, নতুন চ্যালেঞ্জ। ২০২০ সালের শুরুতেই এই কথাগুলো একেবারেই প্রাসঙ্গিক বাংলাদেশের বেলায়। কারণ গতিশীল প্রবৃদ্ধি ধরে রাখতে দেশের ভিতরের ব্যাংক ব্যবস্থা থেকে শুরু করে ব্যবসায় উন্নয়ন করার জন্য সরকারকে প্রতিনিয়ত নিতে হবে নতুন নতুন সিদ্ধান্ত। তেমনি বৈশ্বিক বাজারে যুদ্ধ করতে হবে, দৃশ্যমানদের বিরুদ্ধে। তাই বিশেষজ্ঞরা পরামর্শ দিচ্ছেন যে নতুন বছরের প্রতিটি পদক্ষেপ সরকারকে এগুতে হবে ছক কষে। একেবারেই কার্যকর ভাবে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর