channel 24

সর্বশেষ

  • শিশুদের পদচারণায় মুখর বই মেলা প্রাঙ্গণ

  • সিলেটে জিম্বাবুয়ের ঘাম ঝরানো অনুশীলন

  • বিদ্যুতের দাম বাড়ায় পণ্যের বাজারেও অস্থিরতার শঙ্কা

  • দিল্লিতে মুসলিমদের ওপর সহিংসতার প্রতিবাদে ঢাকায় বিক্ষোভ

  • এখনো থমথমে দিল্লি, দাঙ্গায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৩৮

  • রাজনৈতিক কারণেই খালেদা জিয়ার জামিন হচ্ছে না: মওদুদ

  • 'হলুদবনি' ছবিতে অভিনয় করছেন দুই বাংলার তিন শিল্পী

  • সরকারের পদক্ষেপে নতুন করে স্বপ্ন বুনছেন চলচ্চিত্র কলাকুশলীরা

  • চট্টগ্রাম সিটিতে আ.লীগ মেয়রপ্রার্থীর চেয়ে ৫ গুণ বেশি আয় বিএনপি প্রার্থীর

  • দর্শকবিহীন মাঠে খেলবে জুভেন্টাস

  • দিলু রোডের বহুতল ভবনে আগুনের প্রতিবেদন আগামী সপ্তাহে

  • করোনাভাইরাস ছড়িয়েছে ৫৬ দেশে, ইরানের ভাইস প্রেসিডেন্ট আক্রান্ত

  • ইউরোপা লিগে আর্সেনালের বিদায়

  • হার না মানার নতুন লড়াইয়ে সৌদি ফেরত ৭ নারী

  • আতাইকুলায় কাভার্ডভ্যান-ট্রাক সংঘের্ষ নিহত ২

মাদারীপুরে পেঁয়াজের ফলন বেশি হলেও মূল্য আকাশচুম্বী

মাদারীপুরে পেঁয়াজের ফলন বেশি হলেও মূল্য আকাশচুম্বী

চাহিদার চেয়েও বেশি পেঁয়াজ চাষ হয়েছে মাদারীপুরে। এরপরও আকাশচুম্বী দামে নাভিশ্বাস সাধারণ মানুষের। সরকারী পরিকল্পনার অভাব, অঞ্চলভিত্তিক হিমাগার না থাকা এবং সার্বিকভাবে বাজার অব্যবস্থাপনায় এমন পরিস্থিতি তৈরী হয়েছে বলে মনে করছেন সাধারণ ক্রেতা ও কৃষকরা।

গত মৌসুমে মাদারীপুরে প্রায় ৪ হাজার ১শ হেক্টর জমিতে পেঁয়াজের আবাদ হয়। উৎপাদন হয় ৯০ হাজার মেট্রিক টন পেঁয়াজ। তখন সেখানকার খুচরা বাজারে পণ্যটি বিক্রি হয়, কেজিতে ৮ থেকে ১০ টাকায়।

বাম্পার ফলন হলেও পর্যাপ্ত হিমাগার না থাকায় সেসময় পেঁয়াজ সংরক্ষণে বিপাকে পড়েন কৃষকরা। বর্তমানে যখন পণ্যটির অস্বাভাবিক দামে নাভিশ্বাস সাধারণ মানুষের, তখন মিলছেনা বাড়তি উৎপাদনের সুফল।

ক্রেতারা বলছেন, সুষ্ঠু পরিকল্পনার অভাবে উৎপাদিত পণ্য যথাযথ প্রক্রিয়ায় সংরক্ষণ করা হচ্ছেনা। এই সুযোগটি নিচ্ছেন অসাধু ব্যবসায়ীরা।

মাদারীপুরের কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত উপপরিচালক এস এম সালাউদ্দিন বলেন, পেঁয়াজ সংরক্ষণের যথাযথ ব্যবস্থা কার্যকর করা এখনও সম্ভব হয়নি। তবে অঞ্চলভিত্তিক সংরক্ষণাগার নির্মাণের পরামর্শ দিয়েছেন মাদারীপুরের কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের এই কর্মকর্তা।

মাদারীপুরের জেলা প্রশাসক মো: ওয়াহিদুল ইসলাম বলেন, পেঁয়াজ সংরক্ষণ সমস্যা সমাধানে সরকারি-বেসরকারিভাবে চেষ্টা চলছে।  

সঠিকভাবে সংরক্ষণ করা হলে পরবর্তীতে পণ্যটি স্বল্পমূল্যে মিলবে বলে অভিমত সকলের।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর