channel 24

সর্বশেষ

  • দেশে করোনার সেকেন্ড ওয়েভ শুরু হয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

  • উন্নয়ন কাজ যেন থমকে না যায়, সেজন্য সরকার সচেষ্ট: সেতুমন্ত্রী

  • ফেসবুকের বাংলাদেশ এজেন্ট ৯১ লাখ টাকা ভ্যাট জমা দিয়েছে

  • জাতীয় সংসদ ভবনের উন্নয়ন কার্যক্রমের উপস্থাপনা দেখেছেন প্রধানমন্ত্রী

  • কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালের পরিচালক অবরুদ্ধ

  • অবস্থানকারীদের ছবি দেখে সৌদি ভিসা নাও দিতে পারে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

  • সৌদিতে ছুটি থাকায় সিদ্ধান্তের জন্য সোমবার পর্যন্ত অপেক্ষা: প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী

  • রিজেন্ট কেলেঙ্কারি: সাহেদসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে দুদকের মামলার অনুমোদন

  • ৪ থেকে ১৭ অক্টোবর জাতীয় ভিটামিন 'এ' প্লাস ক্যাম্পেইন

  • প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় কিশোরী হত্যা: আসামির সহযোগী আটক

  • চেন্নাই কিংসকে ১৬ রানে হারিয়েছে রাজস্থান রয়্যালস

  • আলাদা ম্যাচে রাতে মাঠে নামছে আর্সেনাল ও চেলসি

  • মৌসুমের প্রথম জয় পেলো ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড

  • পাবনায় লাউয়ের বাম্পার ফলন

  • দেশের তিন ব্যাংকে সন্দেহজনক ৮ লাখ ডলারের বেশি লেনদেন

খুলনায় রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলে ৫ বছরে রপ্তানি আয় কমেছে ৮০ শতাংশ

খুলনায় রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলে ৫ বছরে রপ্তানি আয় কমেছে ৮০ শতাংশ

খুলনার রাষ্ট্রায়ত্ত্ব ৯টি পাটকলে গেল পাঁচ বছরে রপ্তানি আয় কমেছে প্রায় ৮০ শতাংশ। প্রত্যাশিত আয় না হওয়ায় পাট কেনা এবং শ্রমিকদের মজুরি নিয়ে সঙ্কটে পড়েছে বিজেএমসি। এতে ক্ষোভ বাড়ছে শ্রমিকদের মাঝে। যদিও কর্তৃপক্ষ বলছে, আন্তর্জাতিক বাজারে চাহিদা কমে যাওয়ায় সংকট তৈরি হয়েছে।

দেশের পাটপণ্যের স্বর্ণখনি বলা হতো খুলনাকে। একটা সময় যেখান থেকে আসতো এই খাতের রপ্তানি আয়ের সিংহভাগ। সেই সাথে কর্মসংস্থান তৈরিতেও এগিয়ে ছিল দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমের জেলাটি। কিন্তু সময়ের সাথে ফিকে হয়ে গেছে সোনালী সেই অতীত।

বর্তমানে রাষ্ট্রীয় মালিকানার ৯টি কল চালু আছে খুলনায়। যেগুলো থেকে ২০১৪-১৫ অর্থবছরে পাটজাত পণ্য রপ্তানি হয়েছিল ৫৩ হাজার ৫৫২ টন। অথচ মাত্র ৫ বছরের ব্যবধানে তা কমে দাঁড়িয়েছে পাঁচ ভাগের একভাগে।

ফলে রপ্তানি আয়ও ৩৭৩ কোটি টাকা থেকে নেমে গেছে ১৬০ কোটিতে। যার পেছনে বড় কারণ হিসেবে আন্তর্জাতিক বাজারের সঙ্কট এবং চাহিদা কমে যাওয়াকে দুষছে বিজেএমসি।

রপ্তানির পাশাপাশি নিজস্ব সঙ্কটও ঘনীভূত হচ্ছে কলগুলোতে। যেমন আয় কমে যাওয়ায় সময়মতো মজুরি পরিশোধ করতে পারছে না শ্রমিক- কর্মচারিদের। ফলে প্রায় ৪ মাসের বকেয়া দাঁড়িয়েছে ৫৫ কোটি টাকা।

অন্যদিকে নগদ টাকা না থাকায় পাটও কিনতে পারছে না সময়মতো। যেমন চলতি অর্থবছরের প্রথম পাঁচ মাসে কেনা গেছে লক্ষ্যমাত্রা চার ভাগের একভাগ। যার নেতিবাচক প্রভাব পড়ছে উৎপাদন পর্যায়ে।

খুলনার রাষ্ট্রীয় পাট কলগুলোতে বর্তমানে কাজ করছে ত্রিশ হাজারের বেশি শ্রমিক।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর