channel 24

সর্বশেষ

  • করোনায় আক্রান্ত অমিতাভ বচ্চন

  • পাপুলকাণ্ডে গ্রেপ্তার কুয়েতের সেনা কর্মকর্তা

  • রিজেন্ট হাসপাতাল ও জেকেজি সম্পর্কে জানা ছিল না: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

  • রিজেন্ট চেয়ারম্যান সাহেদের পাসপোর্ট জব্দ

  • লাভের আশায় গরু পালন করে দাম নিয়ে দুশ্চিন্তায় খামারীরা

  • আগামী মাসে মাঠে গড়াচ্ছে ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ

  • আবারও মনোবিদ আজহার আলীর ওপর আস্থা বিসিবির

  • আগস্টের প্রথম সপ্তাহ থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ফুটবল দলের আবাসিক ক্যাম্প

  • সাউদাম্পটন টেস্টে ৯৯ রানে পিছিয়ে ইংল্যান্ড

  • বিএফডিসিতে অসহায় শিল্পীদের সহায়তা করলেন অনন্ত-বর্ষা

  • সিলেটে বিষ খাইয়ে হত্যাচেষ্টা, মা-ছেলে কারাগারে

  • কুমিল্লায় ব্যবসায়ী আকতার হত্যার ঘটনায় মামলা

  • সাংবিধানিক কারণেই করোনার মধ্যে উপনির্বাচন: সিইসি

  • বানের জলে ডুবছে লোকালয়; সুরমা উপচে তলিয়েছে সুনামগঞ্জ শহর

  • এখনও অধরা রিজেন্ট কাণ্ডের নাটের গুরু সাহেদ

প্রথমবারের মত সৌর বিদ্যুৎ যোগ হচ্ছে জাতীয় গ্রিডে

প্রথমবারের মত সৌর বিদ্যুৎ যোগ হচ্ছে জাতীয় গ্রিডে

সেচ কাজে ব্যবহৃত সৌর বিদ্যুৎ যোগ হতে যাচ্ছে জাতীয় গ্রিডে। প্রথমবারের মতো কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার ছাতিয়ানে কৃষির সেচ কাজে ব্যবহারের জন্য স্থাপন করা সৌর প্যানেল থেকে দেয়া হচ্ছে বিদ্যুৎ। পরিবেশবান্ধব এ পদ্ধতির কারণে খরচ যেমন কমছে তেমনি আলোকিত হচ্ছে ওই অঞ্চল।

কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলায় কৃষিতে সেচ কাজে ব্যবহার করা হয়ে আসছে সৌর প্যানেল। তবে কেউ ভাবেনি সৌর প্যানেল থেকে উৎপাদিত বিদ্যুৎ আলো জ্বালাবে কৃষকের ঘরে। এবারই প্রথমবারের মত উপজেলা সেচ কাজে ব্যবহৃত সৌর বিদ্যুৎ যোগ হতে যাচ্ছে জাতীয় গ্রীডে।

টেকসই ও নবায়নযোগ্য জ্বালানি উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ স্রেডার তত্বাবধাণে ও ইউএনডিপির অর্থায়ণে ৯ নভেম্বর থেকে যাত্রা শুরু হয এই পাইলোট প্রকল্পটি। যা নির্মানে ব্যয় করা হয়েছে ১৯ লাখ টাকা।

সোলার ই টেকনোরজি বাংলাদেশের সমন্বয়কারী আহমেদুল কবির উপল বলেন, বর্ষা মৌসুমের প্রায় ৩ মাস পুরো বিদ্যুৎই যুক্ত হবে জাতীয় গ্রীডে।

কুষ্টিয়ায় মিরপুর সোলার প্যানেল থেকে দিনে ২৫ কিলোওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হয়ে থাকে। যার ৬ কিলোওয়াট ব্যবহৃত হয় সেচ কাজে। পাইলট প্রকল্পটি উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে এখন থেকে অতিরিক্ত ১৯ কিলোওয়াট বিদ্যুৎ যুক্ত হতে যাচ্ছে জাতীয় গ্রীডে।

স্রেডার চেয়ারম্যান হেলাল উদ্দিন বলেন, অতিরিক্ত বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রীডে বিক্রির ফলে সেচ কাজে খরচ কমে আসবে কৃষকদের।

ব্রাউট গ্রীন এনার্জি ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা দিপল বড়ুয়া বলেন, এতে করে কৃষকরা উপকৃত হবেন। যখন ফসল উৎপাদনে সেচ দরকার হবে না তখন উৎপাদিত বিদ্যুত জাতীয় গ্রীডে দেয়া হবে। যার ফলে বিদ্যুতের ঘাটতি কমে আসবে।

এ ধরণের প্রকল্প সফলভাবে পরিচালনা অব্যাহত থাকলে ভবিষ্যতে জাতীয় বিদ্যুৎ ঘাটতি পূরণে বিশেষ ভুমিকা রাখতে পারে দেশের সোলার ইরিগেশন প্রোজেক্টগুলো মত বিশেষজ্ঞদের।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর