channel 24

সর্বশেষ

  • বান্দরবানে সন্ত্রাসীদের গুলিতে আ.লীগ নেতা নিহত

  • শীর্ষ সন্ত্রাসী জিসানের সহযোগী গ্রেপ্তার

  • বিসিএলের ফাইনালে বড় সংগ্রহের পথে সাউথ জোন

  • ফরিদপুরে মোতালেব হোসেন বিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত

  • ঢাকা টেস্টের প্রথম দিনে নাঈম হাসানের ৪ উইকেট

  • স্কাউটের জনক লর্ড ব্যাডেন পাওয়েলের ১৬৩তম জন্মবার্ষিকী পালিত

  • সিলেটে জীববিজ্ঞান উৎসব অনুষ্ঠিত

  • পাটুরিয়া-দৌলতদিয়ায় লঞ্চ ডুবির পাঁচ বছর আজ

  • বসুন্ধরা বিটুমিন প্লান্টের যাত্রা শুরু

  • 'তথ্য প্রবাহে অযাচিত হস্তক্ষেপে গুজবের মাধ্যমে সুবিধা পায় উগ্রবাদীরা'

  • চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল আড়াইশো শয্যার দাবিতে মানববন্ধন

  • সিলেটে পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে নিহত ২

  • কচুরিপানা খাবারের উপযোগী কি না পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে: বাণিজ্যমন্ত্রী

  • করোনাভাইরাস: দক্ষিণ কোরিয়া জুড়ে আতঙ্ক, শঙ্কায় প্রবাসী বাংলাদেশিরা

  • বঙ্গবন্ধুর নির্দেশেই ৫২'র ২১ ফেব্রুয়ারি ছাত্র ধর্মঘট ডাকা হয়েছিল: প্রধানমন্ত্রী

ফ্রুট ব্যাগিং প্রযুক্তি ব্যবহার করে আম চাষে সাফল্য

ফ্রুট ব্যাগিং প্রযুক্তি ব্যবহার করে আম চাষে সাফল্য

ফরিদপুর জেলায় এ বছরই প্রথম ফ্রুট ব্যাগিং প্রযুক্তি ব্যবহার করে নিরাপদ ও বিষমুক্ত নাবি জাতের বারি আম ৪ চাষ করে সাফল্য পেয়েছে চাষীরা। বাজারে নিরাপদ ও বিষমুক্ত আমের ব্যাপক চাহিদা থাকায় হাঁসি চাষিদের মুখে। আম চাষ করে স্বচ্ছলতা ফিরেছে অনেক পরিবারে।

ফরিদপুরের ৯ উপজেলাতেই ব্যাপকভাবে শুরু হয়েছে বারি আম-৪ এর আবাদ। এ আমে মুকুল আসে ফাল্গুন মাসে। আর আম পাকে শ্রাবণে।

প্রতিটি আমের ওজন ৭শ থেকে ৮শ গ্রাম পর্যন্ত হয়ে থাকে। কাঁচা অবস্থায় হালকা সবুজ আর পাকলে হলুদ। রসালো আঁশবিহীন আমটি উচ্চ ফলনশীল। চলতি বছর আমের গুটি আসার পরেই ফ্রুট ব্যাগিং প্রযুক্তি ব্যবহার করে। 

ফ্রুট ব্যাগিং পদ্ধতিত ব্যবহারের কারণে কোনো প্রকার কীটনামক স্প্রে করার প্রয়োজন হয়নি। ফলে এ বছর নিরাপদ ও বিষমুক্ত আম উৎপাদন হয়েছে। বাজারে নিরাপদ ও বিষমুক্ত আমের চাহিদাও প্রচুর।  

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর বলছে, ১০ বছর আগে ফরিদপুর জেলায় বাণিজ্যিক আমের বাগান ছিল ৭শ হেক্টর জমিতে। গত ১০ বছরে বৃদ্ধি পেয়ে এখনও চাষ হচ্ছে ৪ হাজার হেক্টর জমিতে। 

এ জেলায় ছোট-বড় মিলিয়ে পাঁচ শতাধিক আম বাগান গড়ে উঠেছে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর