channel 24

সর্বশেষ

  • পাবনায় একই পরিবারের ৩ জনের মরদেহ উদ্ধার

  • বিশ্বের শীর্ষ চতুর্থ উপার্জনকারী ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো

  • কোভিড-নাইনটিন মোকাবিলায় চিকিৎসা সামগ্রি কেনাকাটায় অনিয়মের অভিযোগ

  • করোনায় ঢাবি অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সদস্য আজিজুর রহমানের মৃত্যু

  • গোপালগঞ্জে পুলিশি নির্যাতনে কৃষকের মৃত্যুর অভিযোগ

  • করোনার উপসর্গ নিয়ে প্রাণ গেলো ১০ জনের

  • অর্থের অভাবে চিকিৎসা বঞ্চিত দেশের দীর্ঘদেহী মানব সুবেল হোসেন

  • 'উন্নয়ন প্রকল্প গ্রহন করতে হবে প্রকৃতি ও প্রতিবেশকে রক্ষা করেই'

  • ডিএমপি কমিশনারকে ঘুষের প্রস্তাব যুগ্ম কমিশনারের; প্রত্যাখান করে আইজিপিকে চিঠি

  • ডা. জাফরুল্লাহর কিছুটা শারীরিক অবনতি ঘটেছে

  • সুনামগঞ্জে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মুক্তিযোদ্ধার মৃত্যু

  • খাগড়াছড়িতে অবৈধ ইটভাটা ও শতাধিক তামাক চুল্লিসহ পরিবেশ বিপর্যয়কর কর্মকাণ্ড চলছে

  • সড়কে ছবি একে করোনায় সচেতনতা বৃদ্ধি করেছ 'চেতনায় চাটমোহর'

  • বাজারে সরবরাহ কম কাঁচাপণ্যের; দাম নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া

  • ঈদ যাত্রায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১'শ ৬৮ জন: যাত্রী কল্যাণ সমিতি

আম রপ্তানিতে ভারত ও পাকিস্তানের চেয়ে পিছিয়ে বাংলাদেশ

আম রপ্তানিতে ভারত ও পাকিস্তানের চেয়ে পিছিয়ে বাংলাদেশ

ইউরোপ ও মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে আমের চাহিদা থাকার পরও কমেছে রপ্তানি। বিশেষজ্ঞদের মতে, আম রপ্তানিতে কার্গো বিমানের সুবিধা না থাকায় ভরসা যাত্রীবাহী বিমান। ফলে ভারত ও পাকিস্তানের চেয়ে বাংলাদেশকে কেজিতে প্রায় ৬০ টাকা অতিরিক্ত গুণতে হয়। তাই তাদের সাথে প্রতিযোগিতায় টিকতে পারছে না বাংলাদেশ।

আম বাংলাদেশের নিজস্ব ফল। আর ফলের রাজা বলা হয় আমকে।

শুধু স্বাদেগুণে নয় অর্থনীতিতেও আম রাখছে বিশেষ অবদান। কেননা দেশীয় চাহিদা মিটিয়ে এখন ইউরোপ আর মধ্যপ্রাচ্যের ভোক্তার প্রিয় ফলে পরিনত হয়েছে আম।

কিন্তু হঠাৎ করে কমে গেছে আমের রপ্তানী। সাতক্ষীরার আম দিয়ে দেশের রপ্তানী শুরু হলেও এবার ভিন্ন চিত্র। চুক্তিবদ্ধ চাষীরা জানান, ঘূর্ণীঝড় ফণীর তান্ডবে কমেছে আমের উৎপাদন। রপ্তানী হলে বর্তমান মুল্যের চেয়ে বেশি দাম পেতেন বলে দাবি তাদের।

রপ্তানীকারকরা জানান, ভারত ও পাকিস্তানের তুলনায় বাংলাদেশ থেকে বিদেশে আম পরিবহন ব্যয় অনেক বেশি। ফলে প্রতিযোগিতায় ছিটকে পরছেন তারা।

সাপ্লাই চেইন বিশেষজ্ঞ কৃষিবিদ মোহাম্মদ মজিবুল হক জানান, শুধু পরিবহন ব্যয় নয়, ঘুর্ণীঝড় ফণীর আঘাতে আমে দেখা দিয়েছে কালোদাগ। এজন্য রপ্তানী উপোযোগী আমের জাতের বাণিজ্যিক চাষকে গুরুত্ব দিতে হবে। তবে সরকার আমের রপ্তানী বাড়াতে বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে বলে জানান তিনি।

কৃষিমন্ত্রণালয়ের তথ্য থেকে জানা যায়, গত বছর (২০১৮ সাল) আমের রপ্তানী ছিল মোট ৭৬০ টন। এবছর মৌসুম শেষ পর্যায়ে হলেও রপ্তানী হয়েছে মাত্র ১৬১ টন।

নিউজটির ভিডিও-

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর