channel 24

সর্বশেষ

  • মানিকগঞ্জের পুখুরিয়ায় বাসচাপায় মোটরসাইকেল আরোহী বাবা-ছেলে নিহত

  • ভোটারদের কেন্দ্রে আনার দায়িত্ব প্রার্থীর, ইসির নয়: সিইসি

  • উন্নয়ন করতে গিয়ে গরিবের ক্ষতি করা যাবে না: প্রধানমন্ত্রী

  • দায়িত্ব নিচ্ছেন ডাকসুর ভিপি নুর; অফিস বুঝে পেতে চিঠি...

  • ডাকসু নির্বাচন সংক্রান্ত অভিযোগ তদন্তে কমিটি; ৭ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন

  • ঢাকায় পরিবহন খাতে শৃঙ্খলা ফেরাতে ব্যর্থতা স্বীকার ডিএমপি কমিশনারের

  • ছাত্র আন্দোলনে উসকানি বিএনপির দেউলিয়াত্বের প্রমাণ: হানিফ

  • পদ্মাসেতুর জাজিরা প্রান্তে আজ বসানো হচ্ছে না অষ্টম স্প্যান

  • এমপিওভুক্তির দাবিতে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে...

  • সড়ক অবরোধ করে আন্দোলন করছে শিক্ষকরা

  • সড়ক দুর্ঘটনায় সিরাজগঞ্জ, খুলনা ও নরসিংদীতে ৩ স্কুলশিক্ষার্থী নিহত

  • রাজধানীর কল্যাণপুরে তেলবাহী লরির ধাক্কায় মাদ্রাসা শিক্ষক নিহত

নাসা স্পেস অ্যাপস চ্যালেঞ্জে বিশ্বসেরা শাবিপ্রবি

নাসা স্পেস অ্যাপস চ্যালেঞ্জে বিশ্বসেরা শাবিপ্রবি

প্রযুক্তির যাদুকরী আবিষ্কার দিয়ে এবার বিশ্বকে জানান দিলো শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞান গবেষণা ভিত্তিক গ্রুপ- সাস্ট অলিকের সদস্যরা। নাসার উদ্যোগে আয়োজিত- নাসা স্পেস অ্যাপস চ্যালেঞ্জের বৈশ্বিক পর্যায়ে অংশ নিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে তারা। যা বাংলাদেশকে প্রতিনিধিত্বকারী দল হিসেবে প্রথম।

'লুনার ভিআর' ভার্চুয়াল রিয়েলিটি অ্যাপ। যার মাধ্যমে নাসার অ্যাপোলো-ইলেভেন  মিশনের ল্যান্ডিং এরিয়া ভ্রমণ, চাঁদ থেকে সূর্যগ্রহণ দেখা এবং চাঁদকে একটি স্যাটেলাইটের মাধ্যমে ভার্চুয়ালভাবে আবর্তন করা যায়।

আরও জানতে: অজানা ফোনে হোঁচট খেলো উচ্ছেদ অভিযান

২২ বছর বয়সে সিইও

গ্রামীণফোন নতুন কোনও প্যাকেজ বা অফারের বিজ্ঞাপন দিতে পারবে না

নাসার দেয়া বিভিন্ন ডাটা ব্যবহার করে মাত্র এক মাসের চেষ্টায় এই অ্যাপটি তৈরি করেছেন, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থবিজ্ঞান এবং ভূগোল ও পরিবেশ বিদ্যা বিভাগের চার শিক্ষার্থী। তাদের দলটির নাম দেয়া হয় অলিক।

এই ভিআর ব্যবহার করে যে কেউ চাঁদে যাওয়ার অভিজ্ঞতা নেয়ার পাশাপাশি ১৯৫৯ সালে চাঁদে যাওয়া অ্যাপোলো ইলেভেনের সদস্য নিল আর্মস্ট্রং, মাইকেল কলিন্স ও অলড্রিন জুনিয়র কী করেছেন, সেটির প্রমাণও দেখা যাবে।

এ বছর নাসা স্পেল অ্যাপস চ্যালেঞ্জের সেরা প্রকল্প খুঁজে বের করতে, প্রতিযোগিতার আয়োজন করে নাসা। যেখানে যুক্তরাষ্ট্র, জাপান ও মালয়েশিয়ার তিনটি দলকে পেছনে ফেলে, বেস্ট ডাটা ইউজ ক্যাটাগরিতে চ্যাম্পিয়ন হয় অলিক। অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালের মতে, এই অর্জন শুধু বিশ্ববিদ্যালয়ের নয়, গোটা দেশের জন্যও গৌরবের।

প্রতিযোগিতায় বিশ্বের ৭৯টি দেশের বাছাইকৃত দুই হাজার ৭২৯টি দলের সাথে লড়াইয়ের চূড়ান্ত পর্ব অনুষ্ঠিত হয় যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ায়।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

তথ্য প্রযুক্তি খবর