channel 24

সর্বশেষ

  • আজ ২৬ শে মার্চ; মহান স্বাধীনতা দিবস...

  • জাতীয় স্মৃতিসৌধে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা...

  • ধানমন্ডিতে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা...

  • সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও মাদকমুক্ত দেশ গড়ার প্রত্যয় প্রধানমন্ত্রীর

  • গণতন্ত্র হরণের মাধ্যমে স্বাধীনতার চেতনা ভূলুন্ঠিত করা হয়েছে: ফখরুল

  • ঐক্যবদ্ধ থাকলে জনগণকে কেউ অধিকারবঞ্চিত করতে পারবে না: ড. কামাল

  • কুষ্টিয়ায় স্বাধীনতা দিবসে শ্রদ্ধা জানানো শেষে জেলা বিএনপির...

  • সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ ১১ জনকে আটকের অভিযোগ

  • মগবাজারে মনোয়ারা হাসপাতালে বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে ২ শ্রমিকের মৃত্যু

আমাদের ছায়াপথকে ধাক্কা মারবে আরেক ছায়াপথ, ছিটকে যাবে সৌরমণ্ডল!

আমাদের ছায়াপথকে ধাক্কা মারবে আরেক ছায়াপথ, ছিটকে যাবে সৌরমণ্ডল!

নতুন বছরের গোড়াতেই ভয়ঙ্কর এক খবর দিচ্ছেন বিজ্ঞানীরা। বিজ্ঞানীরা বলছেন, সূর্যের স্বাভাবিক মৃত্যু পর্যন্ত হয়ত অপেক্ষা করতে হবে না, তার অনেক আগেই গোটা সৌরমণ্ডলটা মহাশূন্যে ছিটকে বেরিয়ে যেতে পারে। কারণ আমাদের ছায়াপথে অন্য আর এক ছায়াপথের ধাক্কার ঘটনা ঘটতে পারে।

মহাকাশ থেকে আসা নানান তথ্য আর তার গতিপ্রকৃতি বিশ্লেষণ করে, সম্প্রতি এই বিপদের সম্ভাবনাটি নজরে এসেছে ডারহ্যাম ইউনিভার্সিটির জ্যোতির্পদার্থবিদদের।

তারা জানিয়েছেন, এই বিপদটির নাম হল লার্জ ম্যাজেলান্টিক ক্লাউড (এলএমসি) নামের একটি ছায়াপথ।

সমান মাপে কেক কাটার অঙ্ক কষলেন বিল গেটস!

শাহরুখের সাথে অভিনয় করবেন 'দঙ্গল' তারকা ফাতিমা সানা

আমাদের ছায়াপথ মিল্কি ওয়ে'র চারদিকে ঘুরে বেড়ায় একাধিক ছোট আকারের ছায়াপথ। তাদের মধ্যেই একটি হল এই এলএমসি। সাধারণত নির্দিষ্ট দূরত্ব থেকে মিল্কিওয়ে-কে প্রদক্ষিণ করে আকারে ছোট এই ধরণের ছায়াপথগুলি। কখনও কখনও মিল্কিওয়ে'র মাধ্যাকর্ষণ শক্তির বাইরেও বেরিয়ে যায় তারা।

এমএলসি-ও এখন মিল্কিওয়ে'র থেকে দূরে সরে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। এই মুহূর্তে মিল্কিওয়ে থেকে ১ লক্ষ ৬৩ হাজার আলোকবর্ষ দূরে রয়েছে এলএমসি। প্রতি সেকেন্ডে ২৫০ মাইল গতিতে দূরে সরে যাচ্ছে সেটি। কিন্তু একটা সময় ধীরে ধীরে তার এই দূরে সরে যাওয়া বন্ধ হয়ে যাবে। তখন আমাদের সৌরমণ্ডলের দিকে মুখ ফেরাবে সে। তারপর ছুটে আসতে আসতে, আগামী ২৫০ কোটি বছর পর আমাদের মিল্কিওয়ে-তে এসে ধাক্কা মারবে।

এমএলসি-র ওজন আমাদের সূর্যের ২৫ হাজার কোটি গুণ। মিল্কিওয়ের সঙ্গে তার সংঘর্ষে অবশ্য আলাদা করে গ্রহ এবং নক্ষত্রদের মধ্যে কোনও সংঘর্ষ বাঁধবে না। তবে সৌরমণ্ডলের উপর তার প্রভাব পড়বে ব্যাপক। সেটি মহাশূন্যে ছিটকে যেতে পারে বলে জানিয়েছেন ডারহ্যামের ইনস্টিটিউট ফর কম্পিউটেশনাল কসমোলজি বিভাগের ডিরেক্টর কার্লোস ফ্রেঙ্ক।

মিল্কিওয়ে-র মাঝখানে যে ব্ল্যাকহোল সুপ্ত অবস্থায় রয়েছে, এই সংঘর্ষের ফলে তাও সক্রিয় হয়ে উঠবে। বর্তমানের চেয়ে ১০ গুণ বড় আকার ধারণ করবে। তাতে রেডিয়েশনের মাত্রা বেড়ে যাবে বলেও ধারণা বিজ্ঞানীদের।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

তথ্য প্রযুক্তি খবর