channel 24

সর্বশেষ

  • একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোটকেন্দ্র ৪০ হাজার ১৮৩টি...

  • মোট ভোটার ১০ কোটি ৪২ লাখ ৩৮ হাজার ৬৭৩ জন...

  • পুরুষ ভোটার ৫ কোটি ২৫ লাখ ৭২ হাজার ৩৬২ জন...

  • নারী ভোটার ৫ কোটি ১৬ লাখ ৬৬ হাজার ৩১১ জন

  • আওয়ামী লীগের ২৫৮, ১৪ দলের ১৬ এবং...

  • জাতীয় পার্টির ২৬ জন প্রার্থীর চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ

  • বিএনপির ২৪২ এবং শরিকদের জন্য ৫৮টি আসন ছেড়ে...

  • জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ

  • প্রার্থিতা বাতিলের বিরুদ্ধে খালেদা জিয়ার রিটের শুনানি কাল

  • প্রথম ওয়ানডেতে উইন্ডিজকে ৫ উইকেটে হারিয়েছে বাংলাদেশ...

  • স্কোর: উইন্ডিজ ১৯৫/৯ (মাশরাফী ৩/৩০, মোস্তাফিজ ৩/৩৫), বাংলাদেশ ১৯৬/৫

  • ১৮ বছর ধরে খেলছি; কোন কিছুতেই মনযোগ হারানোর সুযোগ নেই: মাশরাফী

মেলা বা নির্দিষ্ট স্থানে আইসিটি পণ্যের মূল্যহ্রাসে নিষেধাজ্ঞা

মেলা বা নির্দিষ্ট স্থানে আইসিটি পণ্যের মূল্যহ্রাসে নিষেধাজ্ঞা

চাল ডাল তেলের পর এবার নীতিমালার মোড়কে সিন্ডিকেট হতে যাচ্ছে দেশের সবচেয়ে সম্ভাবনাময় খাত আইসিটিতে। আইনি অধিকার না থাকলেও পণ্য বিক্রির ক্ষেত্রে এমআরপি বেঁধে দিতে যাচ্ছে কম্পিউটার ব্যবসায়ীদের সংগঠন বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি।

এই বেঁধে দেয়া এমআরপির চেয়ে কম দামে কোন প্রতিষ্ঠানই পণ্য বিক্রি করতে পারবে না। এমনকি কোম্পানিই কোন নির্দিষ্ট স্থান বা মেলায় বিশেষ ছাড় দিতে পারবেনা। আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ডগুলো মনে করছে এটা ভোক্তা অধিকারের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন। আর কনজিওমার এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের মতে এই ধরনের মনোপলি উদ্যোগের কারণে সংগঠনটির বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়া উচিত।

এভাবেই বিভিন্ন তথ্যপ্রযুক্তি মেলায় ভিড় করেন অসংখ্য তরুণ। কারণ একটাই মেলা উপলক্ষ্যে কিছুটা কম দামে আইসিটি পণ্য কেনা। কিন্তু ভবিষ্যতে এ ধরনের আয়োজন কিংবা এসব আয়োজনে তরুণ প্রজন্মের ভিড় হওয়া নিয়ে দেখা দিয়েছে সংশয়। কারণ এখন থেকে কোন আন্তর্জাতিক পণ্য উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের এ ধরনের মেলা বা উৎসবে কোন ছাড় না দেয়ার ওপর বাধ্যবাধকতা আরোপ করেছে বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি। প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইটে দেয়া এ সংক্রান্ত নীতিমালায় বলা হয়েছে প্রতিটি পণ্যের এমআরপি থাকতে হবে। কোন প্রতিষ্ঠান এমআরপির চেয়ে কম দামে পণ্য বিক্রি করতে পারবেনা। এমনকি কোন স্থান বা মেলা উপলক্ষ্যে কোন আইসিটি কোম্পানিই তাদের পণ্যে বিশেষ ছাড় দিতে পারবেনা। কোন আইনী বৈধতা না থাকলেও সমিতির দাবি তারা কোম্পানিগুলোকে বাধ্য করতে পারবেন। 

এই ধরনের নীতিমালার ফলে ভোক্তা অধিকার ক্ষুন্ন হবে বলে মনে করছে আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ডগুলো। তাদের মতে, এতে ভোক্তারা ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার পাশাপাশি আইসিটি খাতের বিস্তার বাধাগ্রস্ত হবে। বিশ্বের কোথাও এ ধরনের উদ্ভট নীতিমালা নেই বলে দাবি করেন আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ড ডেলের এই কান্ট্রি প্রধান। 

আর এ ধরনের নীতিমালাকে দুষ্টু সিন্ডিকেট হিসেবে আবহিত করেছে কনজিওমারস এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ ক্যাব। ভোক্তার কম দামে পণ্য পাওয়ার অধিকার যারা ছিনিয়ে নিতে চায় তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়ার পরামর্শ দেন প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান। 

এমনকি এ ধরনের উদ্যোগ নেয়ায় প্রতিষ্ঠানটির লাইসেন্স বাতিলেরও সুপারিশ করেন তিনি।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

তথ্য প্রযুক্তি খবর