channel 24

সর্বশেষ

  • তথ্য প্রযুক্তি আইনের মামলায় গ্রেপ্তার অভিনেত্রী নওশাবার জামিন

  • ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় জিয়া পরিবার জড়িত: প্রধানমন্ত্রী...

  • বঙ্গবন্ধু ‌এভিনিউয়ে নিহতদের প্রতি অস্থায়ী বেদিতে শ্রদ্ধা

  • সড়ক দুর্ঘটনা: গোপালগঞ্জে আলাদা স্থানে ৫ জনসহ সারা দেশে নিহত ১২

  • সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যে উদযাপিত হচ্ছে ঈদুল আজহা

  • ঈদযাত্রায় সড়ক, রেল ও নৌপথে মানুষের উপচেপড়া ভিড়...

  • যানবাহন সংকটে যাত্রীদের ভোগান্তি; দেরিতে ছাড়ছে বেশিরভাগ ট্রেন

  • ঈদযাত্রা ভোগান্তিহীন ও নিরাপদ করতে ব্যর্থ সড়ক পরিবহনমন্ত্রী: রিজভী

  • পশুর হাটে চাঁদাবাজি বন্ধে তৎপর আইনশৃঙ্খলা বাহিনী: ডিএমপি

মোবাইল বা কম্পিউটারের টানা ব্যবহারে বাড়ছে চোখের শুষ্কতা রোগ

মোবাইল বা কম্পিউটারের টানা ব্যবহারে বাড়ছে চোখের শুষ্কতা রোগ

পরিচিত হলেও সহজেই শনাক্ত করা যায় না, চোখের শুষ্কতা রোগ। মোবাইল, ট্যাব বা কম্পিউটারের স্ক্রিনে দীর্ঘসময় তাকিয়ে থাকার কারণে তরুণদের মধ্যে বাড়ছে এটি। তাই কারও চোখের শুষ্কতার সমস্যা আছে কিনা, সেটি পরীক্ষায় অ্যাপ বানিয়েছেন গবেষকরা। যে কেউই এর মাধ্যমে নিজের চোখ পরীক্ষা করতে পারবেন।

চোখের শুষ্কতা আছে কিনা তাই পরীক্ষা করা হচ্ছে এখানে। রয়্যাল সোসাইটি আয়োজিত গ্রীষ্মকালীন বিজ্ঞান প্রদর্শনী, এমন একটি সুযোগ করে দিয়েছে দর্শনার্থীদের।

কান্নার সময় চোখ থেকে পর্যাপ্ত পানি না ঝরলে বা ঝরলেও খুব দ্রুত তা শুকিয়ে যাওয়ার লক্ষণকে বলা হয়, চোখের শুষ্কতা। আক্রান্ত ব্যাক্তির সবসময়ই চোখে কিছু একটা আটকে আছে বলে মনে হয়। এই শুষ্কতা পরিমাপক একটি অ্যাপ বানিয়েছেন গবেষকরা।    

অ্যাসটন বিশ্ববিদ্যালয়ের অপ্টোমেট্রি বিভাগের অধ্যাপক জেমস ওফসন বলেন, 'অ্যাপটিতে চোখের সমস্যা নিয়ে প্রথমে কিছু মৌলিক প্রশ্ন করা হয়। তারপর একটা পরীক্ষা থাকে। যাতে চোখ খোলা রেখে স্ক্রিনের দিকে একটানা তাকিয়ে থাকতে হয়। অস্বস্থি না লাগা পর্যন্ত কত সময় লাগল, ৩ দফায় তা রেকর্ড করে চোখের শুষ্কতা দেখা হয়।'

আগে এই রোগকে বার্ধক্যজনিত বলা হলেও বর্তমানে তরূণদের মধ্যে আক্রান্ত হবার প্রবণতা বেশি। গবেষকদের মতে,
পলক না ফেলে টানা মোবাইল, ট্যাবের মত প্রযুক্তি পণ্যের স্ক্রিনের দিকে তাকিয়ে থাকার কারণে বাড়ছে এই হার।  যুক্তরাজ্যে প্রতি ৫ জন পূর্ণ বয়স্কের মধ্যে একজন চোখের শুষ্কতার আক্রান্ত। পুরুষদের তুলনায় এই রোগে নারীরা আক্রান্ত হয় বেশি।

অ্যাসটন বিশ্ববিদ্যালয়ের অপ্টোমেট্রি বিভাগের অধ্যাপক জেমস ওফসন বলেন, 'বিষয়টা পরিহাসের। যে প্রযুক্তির কারণে সমস্যা তৈরি হয়, সেই সমস্যা কাটাতেই আবার প্রযুক্তির দ্বারস্থ হতে হচ্ছে। আমাদের উদ্দেশ্য, যেহেতু প্রযুক্তির ব্যবহার বন্ধ করা সম্ভব নয়, তাই এমন ব্যবস্থা নেয়া যাতে চিকিৎসকের কাছে না গিয়ে নিজেই চোখের শুষ্কতা রোধে পদক্ষেপ নিতে পারে।'

প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি না থাকলেও এই অ্যাপের সাহায্যে স্বাস্থ্যসেবা কর্মীরা সহজেই শুষ্কতা পরীক্ষা করতে পারেন। 

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

তথ্য প্রযুক্তি খবর