channel 24

সর্বশেষ

  • চ্যানেল 24 এ সংবাদ প্রচারের পর ৩০ বছর আগের...

  • সগিরা মোর্শেদ হত্যা মামলার তদন্তে নতুন মোড়...

  • তার স্বামীর বড় ভাই ও ভাবিসহ গ্রেপ্তার ৪, আদালতে স্বীকারোক্তি...

  • ভিকারুননিসা নূন স্কুল থেকে মেয়েকে আনতে গিয়ে খুন হন তিনি...

  • ছিনতাইকারীর হাতে এ হত্যাকাণ্ড বলে সেই সময় প্রচার হয় গণমাধ্যমে

  • প্রথমবারের মতো আয়কর মেলায় প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে...

  • রিটার্ন দাখিল ও কর পরিশোধ করেছেন তার প্রতিনিধি

  • কলকাতায় খেলা দেখতে প্রধানমন্ত্রীকে মোদির আনুষ্ঠানিক আমন্ত্রণ...

  • প্রবাসী নারী শ্রমিক নির্যাতন বন্ধে উদ্যোগ নেয়া হয়েছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

  • সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় রংপুর এক্সপ্রেসের ৯টি বগি লাইনচ্যুত...

  • ৩টি বগিতে আগুন, ঢাকার সাথে উত্তর ও দক্ষিণের যোগাযোগ বন্ধ...

  • আগুন নিয়ন্ত্রণে, কোনো হতাহত নেই: রেলসচিব

  • ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সংঘর্ষের আগে তূর্ণার গতি ছিল ঘণ্টায় ২০ কি.মি...

  • চালক ওভার ডিউটি করেনি: রেলমন্ত্রী

  • দেশীয় ও আন্তর্জাতিক আইন ভঙ্গ করে চলছে জাহাজভাঙা শিল্প: হাইকোর্ট

  • সাগর-রুনি হত্যা: আগামী বছরের ৪ মার্চের মধ্যে..

  • হাইকোর্টে অগ্রগতি রিপোর্ট দাখিলের নির্দেশ

  • ইন্দোর টেস্ট: প্রথম দিন প্রথম ইনিংসে ব্যাট করছে ভারত...

  • স্কোর: বাংলাদেশ ১৫০ (মুশফিক ৪৩, শামি ৩/২৭)

ফিরে দেখা বিশ্বকাপের প্রথম পর্ব

ফিরে দেখা বিশ্বকাপের প্রথম পর্ব

বিশ্বকাপের সেমিতে ওঠা হয়নি। উল্টো টেবিলের প্রায় তলানীতে বাংলাদেশ। দলগত নৈপুণ্য যে দলের শক্তি তারাই অতি নির্ভর ছিলো সাকিব আল হাসানের উপর। ব্যাটিং-বোলিং-ফিল্ডিং তিন ডিপার্টমেন্টে কখনোই ধারাবাহিকতা দেখাতে পারেনি বাংলাদেশ। সেটাই কার্যত সফল বলতে দিচ্ছে না মাশরাফীর দলের বিশ্বকাপ মিশন।

বিশ্বকাপে টাইগারদের পারফরম্যান্সে বুঁদ ছিলো বাংলাদেশের ১৬ কোটি মানুষ। প্রিয় দল বিদায় নিয়েছে। শেষ হয়েছে লিগ পর্বের লড়াই। পেছনে ফিরলে দেখবেন যারা বাংলাদেশকে শাসন করেছে, দাপট দেখিয়েছে মাশরাফী-সাকিবদের ওপর, তারাই বিশ্বকাপের শীর্ষে আসীন।

রান বন্যার পূর্বাভাস দিয়ে শুরু হওয়া বিশ্বকাপ শেষ পর্যন্ত বোলারদের পারফরম্যান্সে উজ্জ্বল। এখনো দলগত চারশ হয়নি, হয়নি ব্যক্তিগত ডাবল সেঞ্চুরি। ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ সেই ডেভিড ওয়ার্নারের। সেটাও বাংলাদেশের বিপক্ষে ১৬৬ রান।

লিগ পর্বে ৪৫ ম্যাচের ৪টি বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত হয়েছে। রান উঠেছে ২০ হাজার নয়শ বিরানব্বই। ইনিংসপ্রতি গড় রান ২৫৬।

সেরা জুটিতেও পক্ষে-বিপক্ষে আছে বাংলাদেশের উপস্থিতি। ওয়ার্নার-উসমান খাজা বাংলাদেশের বিপক্ষে করেছিলেন ১৯২ রান। যা এবারের বিশ্বকাপের সেরা জুটি। দ্বিতীয় সেরা জুটিটা সাকিব-লিটনের। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে অবিশ্বাস্য পারফরম্যান্সের সুখস্মৃতি।

বিশ্বকাপটা শুধুই রোহিত শর্মার। এক আসরে সবচেয়ে বেশি সেঞ্চুরির রেকর্ডটা নিজের করে নিয়েছেন, ৫ শতকে। আর ভাগ বসিয়েছেন শচীন টেন্ডুলকারের বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি ছয় সেঞ্চুরির রেকর্ডে।

শচীনের আরো একটি রেকর্ড হুমকির মুখে। ২০০৩ আসরে করা ৬৭৩ রান এবার যে ভেঙে যাচ্ছে তা বলেই দেয়া যায়। এক বিশ্বকাপে ছয়শ রান যেখানে মাত্র দুজনের ছিলো। সেখানে লিগ পর্ব শেষ না হতেই সংখ্যাটা পাঁচ। অপেক্ষায় আরো কজন।

সেঞ্চুরি যদি হয় রোহিতের দখলে। হাফ সেঞ্চুরি সাকিবের। এক বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি ছয় ফিফটি বাংলাদেশ সেরার। তবে তাকে ছাপিয়ে যাওয়ার সুযোগ থাকছে বিরাট কোহলির। এক ফিফটি কম ভারত অধিনায়কের।

তবে ছয় মারার পরিসংখ্যানে বাংলাদেশকে খুঁজে পাওয়া যাবে না। ৪৫ ম্যাচে ছয় হয়েছে ৩৪০টি। একাই ২২টি হাঁকিয়েছেন ওয়েন মরগ্যান। আফগানিস্তানের বিপক্ষে এক ম্যাচে ইংলিশ অধিনায়কের ছয় ১৭টি। যা বিশ্বকাপ শুধু নয় ওয়ানডেতেও রেকর্ড।

রোহিত যদি হন ব্যাটসম্যানদের নায়ক। বোলারদের মহানায়ক মিচেল স্টার্ক। শুধু এই বিশ্বকাপ পারফরম্যান্সে নয়, ধারাবাহিকতায়। ২৬ উইকেট নিয়ে ম্যাকগ্রার এক আসরে সবচেয়ে বেশি উইকেট শিকারের রেকর্ডে নিজের নাম লিখিয়েছেন অজি পেসার। গত বিশ্বকাপের মত এবারো টুর্নামেন্ট সেরার অন্যতম দাবিদার হয়ে আছেন। বোলিংয়ে স্টার্কের পর মোস্তাফিজুর রহমান, জাসপ্রিত বুমরাহ, মোহাম্মদ আমের।

ব্যক্তিগত সেরা বোলিং পারফরম্যান্সেও আছেন সাকিব আল হাসান। ৫ উইকেট নিয়েছেন অনেকেই, তবে ৬ উইকেট নিয়ে সবার ওপরে পাকিস্তান পেসার শাহীন শাহ আফ্রিদী।

যদিও মোহাম্মদ শামি আর ট্রেন্ট বোল্ট তাদের কীর্তির জন্য বিশ্বকাপকে মনে রাখতে বাধ্য হবেন। বিশ্বকাপের দুর্লভ হ্যাটট্রিকম্যান দুজন।

বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত চারটিকে বাদ দিয়ে ৪১ম্যাচে উইকেট পড়েছে ৬২৫টি। ইনিংস প্রতি গড়ে ৭ দশমিক ছয়শূন্য। ব্যাটসম্যান না বোলারদের আধিপত্যের বিশ্বকাপ?

ফিল্ডিংয়ে বাংলাদেশ যেমন ব্যর্থ, ঠিক তেমনি অসাধারণ কিছু ক্যাচও কিন্তু দেখেছে বিশ্ব। বেন স্টোকসকে দিয়ে শুরু। ফাফ ডু প্লেসি, ক্রিস ওকস, শেই হোপ, শেলডন কটরেল, গ্লেন ম্যাক্সওয়েলরা মুগ্ধ করেছেন। তবে জো রুট ব্যতিক্রম। নয় ম্যাচে নিয়েছেন ১১ ক্যাচ। এক ক্যাচ কম দক্ষিণ আফ্রিকান উইকেটরক্ষক ডু প্লেসির।

নয় ম্যাচ হেরে আফগানিস্তান যেমন বিশ্বকাপের ব্যর্থতম দল ঠিক তেমনি ভাগ্য বিশ্ব মঞ্চে আরো একবার প্রমাণ করলো দক্ষিণ আফ্রিকার সঙ্গে নেই। ২০০৩ বিশ্বকাপের ১৯-এ প্রথম পর্বে থামলো প্রোটিয়াদের বিশ্ব অভিযান।

পাকিস্তানের বিপক্ষে আফগানিস্তানের ম্যাচটা মাঠে যেমন উত্তেজনা ছড়িয়েছে। গ্যালারিতেও ততটাই উত্তেজনা ছিলো। দর্শকদের মারামারিতে কয়েকজনকে বের করে দিতে বাধ্য হন নিরাপত্তারক্ষীরা। স্টেডিয়ামের বাইরে তাতো থামেইনি বরং বড় হয়েছে। সেটাও বিশ্বকাপের প্রথম পর্বের এক ঝলক।

নিউজটি দেখুন ভিডিওতে-

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

স্পোর্টস 24 খবর