channel 24

সর্বশেষ

  • বিশ্বের শীর্ষ চতুর্থ উপার্জনকারী ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো

  • কভিড-নাইনটিন মোকাবিলায় চিকিৎসা সামগ্রি কেনাকাটায় অনিয়মের অভিযোগ

  • করোনায় ঢাবি অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সদস্য আজিজুর রহমানের মৃত্যু

  • করোনার উপসর্গ নিয়ে প্রাণ গেলো ১০ জনের

  • অর্থের অভাবে চিকিৎসা বঞ্চিত দেশের দীর্ঘদেহী মানব সুবেল হোসেন

  • 'উন্নয়ন প্রকল্প গ্রহন করতে হবে প্রকৃতি ও প্রতিবেশকে রক্ষা করেই'

  • ডিএমপি কমিশনারকে ঘুষের প্রস্তাব যুগ্ম কমিশনারের; প্রত্যাখান করে আইজিপিকে চিঠি

  • ডা. জাফরুল্লাহর কিছুটা শারীরিক অবনতি ঘটেছে

  • সুনামগঞ্জে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মুক্তিযোদ্ধার মৃত্যু

  • খাগড়াছড়িতে অবৈধ ইটভাটা ও শতাধিক তামাক চুল্লিসহ পরিবেশ বিপর্যয়কর কর্মকাণ্ড চলছে

  • সড়কে ছবি একে করোনায় সচেতনতা বৃদ্ধি করেছ 'চেতনায় চাটমোহর'

  • বাজারে সরবরাহ কম কাঁচাপণ্যের; দাম নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া

  • ঈদ যাত্রায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১'শ ৬৮ জন: যাত্রী কল্যাণ সমিতি

  • ইংলিশ লিগে বদল করা যাবে ৫ ফুটবলার

  • করোনায় বিশ্বজুড়ে প্রাণহানি ৩ লাখ ৯১ হাজার; আক্রান্ত ৬৬ লাখ

সেমির স্বপ্ন শেষ হয়ে যাওয়ায় হতাশ বাংলাদেশ অধিনায়ক ও কোচ

সেমির স্বপ্ন শেষ হয়ে যাওয়ায় হতাশ বাংলাদেশ অধিনায়ক ও কোচ

এক ম্যাচ আগেই বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিশ্চিত হয়ে যাওয়ায় হতাশ বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা ও কোচ স্টিভ রোডস। তাঁরা মনে করেন সেমিফাইনালে খেলার সব যোগ্যতাই ছিলো দলের, তবে ভাগ্যের সহায়তা মেলেনি। প্রথমবার দলকে ব্যাট হাতে জেতানোর সুযোগ হাতছাড়া হওয়ায় অতৃপ্ত মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন।

বারবার কেন ভারতের সঙ্গেই এমন হচ্ছে। কেন শ্বাসরুদ্ধকর পরিস্থিতি সামলে জয়ের দেখা মিলছে না। প্রাপ্তির হাতছানিগুলো মিলিয়ে যাচ্ছে হতাশায়। এজবাস্টনে নিজের আক্ষেপ লুকিয়ে রাখতে পারলেন না অধিনায়ক মাশরাফী। আর সেমির স্বপ্ন শেষ হয়ে যাওয়ায় ভাগ্যকে দুষছেন কোন স্টিভ রোডস।

বিশ্বকাপে ভালো করতে বদ্ধপরিকর ছিলাম। কিন্তু টুর্নামেন্ট শেষ হয়ে যাওয়ায় হতাশ আমরা। ম্যাচে এত ভুল করে এমন ভালো দলের সাথে জেতা যায়না।  হয়তো তিনটা ম্যাচ জিতেছি। তবে বড় দলগুলোকে আমরা ঝাকুনি দিতে পেরেছি। ভাগ্য থাকলে হয়তো সেরা চারে থাকতে পারতাম।

এদিকে সাইফুদ্দিনের সুযোগ ছিলো অবিশ্বাস্য জয়ের নেপথ্য নায়ক হওয়ার। শেষ পর্যন্ত চেষ্টাও করে গিয়েছিলেন কিন্তু টেল এন্ডারদের কাছ থেকে পর্যাপ্ত সহায়তা পাননি এই অলরাউন্ডার। ইনফর্ম রোহিত শর্মাআর ক্যাচ ছেড়ে সমালোচিত তামিম। পরে সেই রোহিত শর্মা সেঞ্চুরি করেছেন।

নিজের ২০০ তম ম্যাচে ব্যাট হাতেও সফল হতে পারেননি। পুরো টুর্নামেন্টেই ছিলেন ছন্দহীন। তামিমের মত অধিনায়ক মাশরাফীও এবারের বিশ্বকাপে দৃষ্টান্ত হতে পারলেন না লিডিং ফ্রম দ্য ফ্রন্টের। তবে ব্যর্থতায় দলের দুই যোদ্ধার পাশে ঢাল হলেন কোচ।

তামিম পুরো হৃদয় দিয়ে খেলে। সে তার সেরাটা দিয়েছে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত হয়তো পারেনি। তবে আমি নিশ্চিত পরের বিশ্বকাপে সে সেটা পুষিয়ে দেবে। মাশরাফী অবশ্যই হতাশ তার পারফরম্যান্সে। কিন্তু কজন অধিনায়ক নিজেকে বোলিং থেকে সরিয়ে নেয়ার সৎসাহস দেখাতে পারে? আমি যদি জানতাম সে চেষ্টা করেনি তবে ম্যাশকে দোষ দিতে পারতাম। সে দেশের প্রতি একজন দায়বদ্ধ ক্রিকেটার। এত বছর এমনিতেই খেলেনি।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

স্পোর্টস 24 খবর