channel 24

সর্বশেষ

  • শুদ্ধি অভিযানে টার্গেটকৃতদের আইনের আওতায় আনা হবে: কাদের

  • সড়ক দুর্ঘটনা: ঝিনাইদহে ২, হবিগঞ্জে ২ ও মৌলভীবাজারে নারী নিহত

  • চট্টগ্রামের নিমতলীতে একটি বাসা থেকে বাবা-মেয়ের মরদেহ উদ্ধার

  • আর্থিক সংকট: শনি ও রোববার বন্ধ থাকবে জাতিসংঘ সদর দপ্তর

ভারতের বিপক্ষে জয় অধরাই রয়ে গেলো পাকিস্তানের

ভারতের বিপক্ষে জয় অধরাই রয়ে গেলো পাকিস্তানের

ভারতের কাছে আরও একটি বিশ্বকাপে হার পাকিস্তানের। সাতবারের চেষ্টায়ও সফল হলো না ৯২ এর চ্যাম্পিয়নরা। এ ম্যাচেই ওয়েনডেতে দ্রুততম সময়ে ১১ হাজার রানের মাইলফলকে পৌঁছান বিরাট কোহলি।

টস হেরে ব্যাট করতে নেমে রোহিত শর্মার সেঞ্চুরিতে ৩৩৬ রানের বড় স্কোর গড়ে ভারত। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ৬ উইকেটে পাকিস্তান ১৬৬ রান করার পর বৃষ্টিতে বন্ধ হয়ে যায় খেলা। নতুন টার্গেট দাঁড়ায় ৪০ ওভারে ৩০২ রান। পাকিস্তান ৬ উইকেটে করে ২১২ রান। ডি/এল মেথডে হারে ৮৯ রানে।

চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি থেকে যতই প্রেরণা নিক এটা বিশ্বকাপ। যে আসরে ভারতের বিপক্ষে স্নায়ুযুদ্ধে বরাবরই পরাজিত এক দল পাকিস্তান। সপ্তমবারের দেখায়ও হারের বৃত্ত ভাঙতে পারেনি ৯২ এর চ্যাম্পিয়নরা। 

তবে এ হারের নেপথ্যে আছে বহু প্রশ্ন। ভারতের শক্তিশালী ব্যাটিং লাইনআপ জেনেও কেনো টসে জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত? কেনইবা একাদশে শাহীন শাহ আফ্রিদির পরিবর্তে অফ ফর্মে থাকা হাসান আলী? সরফরাজের নেতৃত্বগুণ আবারো প্রশ্নবিদ্ধ। অভিজ্ঞ হাফিজ-মালিকের চরম ব্যর্থতা। সম্মিলিত ফল ভারতের বিপক্ষে আরেকটি পরাজয়। 

৩৩৭ রানের লক্ষ্য হয়তো অনেক বড় তবে সম্ভব। আর তা অসম্ভবে পরিণত করার চেষ্টা একেবারে শুরু থেকে। ভুবনেশ্বর কুমার তার তৃতীয় ওভারে হ্যামস্ট্রিং ইনজুরিতে পরলে মাঠ ছাড়েন। ওভারের বাকি বল পূর্ণ করতে এসেই প্রথম ব্রেক থ্রু আনেন বিজয় শঙ্কর।

ফখর জামান ও বাবর আজমের ধীরস্থির ব্যাটিং দলকে চাপে ফেলেছে। কুলদ্বীপ যাবদের অসাধারণ এক ডেলিভারিতে ১০৪ রানের জুটি ভাঙে। বাবর আজম ফেরেন ৪৮ রানে। কুলদ্বীপের পরের ওভারে বিদায় নেন ৬২ রান করা ফখর জামান। হারদিক পান্ডিয়া পরপর দুই বলে হাফিজ ও শোয়েব মালিককে ফিরিয়ে হ্যাটট্রিক সম্ভাবনা জাগান। তবে সফল হোননি। 

দুই দফা বৃষ্টি ম্যাচে প্রভাব ফেলতে না পারলেও, ৩৫তম ওভারে বন্ধ হয়ে যায় খেলা। তখনও পাকিস্তানের প্রয়োজন ৯০ বলে ১৭১ রান। ৪৫ মিনিটেরও বেশি সময় বন্ধ থাকার পর যখন খেলা পুনরায় শুরু হয়, তখন পাকিস্তানের সামনে নতুন টার্গেট ৪০ ওভারে ৩০২ রান। অর্থাৎ বাকি ৫ ওভারে প্রয়োজন ১৩০ রান। যা অন্তত সম্ভবের তালিকায় পরে না।

এদিকে শিখর ধাওয়ানের ইনজুরিতে রোহিত শর্মার ওপেনিং পার্টনার লোকেশ রাহুল। দুজনে ১৩৬ রানের জুটি গড়ে ভারতকে উড়ন্ত সূচনা এনে দেন। লোকেশ ৫৭ রানে ওয়াহাব রিয়াজের শিকার হলে, অধিনায়ক কোহলিকে নিয়ে জুটি গড়েন রোহিত। আসরে নিজের দ্বিতীয় সেঞ্চুরি তুলে নেন রোহিত শর্মা। হাসান আলীর বলে ফেরার আগে ১১৩ বলে করেন ১৪০ রান। 

৭৭ রান করে মোহাম্মদ আমেরের বলে কট বিহান্ড হবার আগে ওয়ানডেতে দ্রুততম সময়ে ১১ হাজার রানের মাইলফলকে পৌছান বিরাট কোহলি। শেষ দিকে আমেরের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে ভারতকে ৩৩৬ রানে বেধে রাখে পাকিস্তান। যদিও তা সরফরাজ বাহিনীর জন্য হয়ে ওঠে আনচেজেবল।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

স্পোর্টস 24 খবর