channel 24

সর্বশেষ

  • ঢাবি ভর্তি পরীক্ষায় প্রশ্নফাঁস: বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীসহ...

  • পলাতক ৭৮ জনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি

  • রোহিঙ্গাদের দ্রুত ফেরত না পাঠালে নিরাপত্তা ও...

  • স্থিতিশীলতা ব্যাহত হওয়ার শঙ্কা প্রধানমন্ত্রীর

  • ঋণখেলাপিদের সুবিধা দিতে পাগল হয়ে গেছে...

  • বাংলাদেশ ব্যাংক: হাইকোর্ট; প্রজ্ঞাপনের বিষয়ে আদেশ কাল

  • ১৯৮৯ সালের হত্যা মামলা: ৩ মাসের মধ্যে নিস্পত্তির নির্দেশ হাইকোর্টের...

  • ২৮ বছর পর মামলা সচল হওয়ায় সাগেরা মোর্শেদের পরিবারের সন্তুষ্টি

  • ডিআইজি মিজানের বিরুদ্ধে আইনানুযায়ী ব্যবস্থা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী...

  • অস্ত্রের লাইসেন্স বাতিল ও জব্দে দুদকের চিঠি

  • দুই সাংবাদিককে ভিন্ন ভাষায় তলবকারী কর্মকর্তার বিরুদ্ধে...

  • বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ কমিশনের; চিঠির অবমাননাকর অংশ...

  • বাদ না দিলে আরও কঠোর কর্মসূচির ঘোষণা গণমাধ্যমকর্মীদের

  • আসামে নাগরিকত্ব ইস্যু: খসড়া তালিকা থেকে ১ লাখ ২ হাজার...

  • ৪৬২ জনকে বাদ দিয়ে নতুন তালিকা প্রকাশ

সালাহর হাত ধরে ১৪ বছর পর চ্যাম্পিয়ন লিভারপুল

সালাহর হাত ধরে ১৪ বছর পর চ্যাম্পিয়ন লিভারপুল

ফাইনাল হলো একপেশে। টটেনহ্যামকে ২-০ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন লিভারপুল। বার্সেলোনা ও বায়ার্নকে টপকে ষষ্ঠ শিরোপা জিতলো অলরেডরা। যা কোনো ইংলিশ ক্লাবের সর্বোচ্চ। এই ম্যাচে টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় দ্রুততম গোল করেন, মোহাম্মদ সালাহ।

ফাইনাল শেষে চোখ বেয়ে অশ্রু ঝড়তে চায় মোহামেদ সালাহর। কিন্তু আনন্দের আতিশায্য তাতে বাধ দেয়।

গেলবার হৃদয়ভাঙ্গা মিশরীয় রাজা শুধু চ্যাম্পিয়ন্স লিগই হারাননি, বিশ্বকাপ স্বপ্নও এক অর্থে শেষ হয়ে গিয়েছিলো।
 
ভাগ্য কি দারুনভাবেই না সালাহর প্রাপ্য ফিরিয়ে দিলো। ফাইনালে গোল করে, লিভারপুলকে আবারো ইউরোপসেরা করার নায়ক হলেন।

৬ বারের শ্রেষ্ঠত্বে রিয়াল মাদ্রিদ আর এসি মিলানের পর ইউরোপের সবচেয়ে সফল ক্লাব এখন লিভারপুল।  

সাবেক স্প্যানিশ ফুটবলার হোসে অ্যান্তোনিও রেয়েসকে স্মরণ করে মাঠে গড়ায় ফাইনাল। অশ্রুসিক্ত ছিলেন সাবেক সতীর্থ ফার্নান্দো ইয়োরেন্তে।

মুহূর্তেই সেই আবেগ হারিয়ে গেল। কিক অফের ২৫ সেকেন্ড না পেরুতেই পেনাল্টি পায় লিভারপুল। সাদিও মানের শট বক্সে মুসা সিসোকো হ্যান্ডবল করলে।

স্পটকিক থেকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনাল ইতিহাসের দ্রততম গোলটি করেন মোহামেদ সালাহ। ঘড়িতে কাটায় দেড় মিনিট।

গেলবারের ফাইনাল অভিজ্ঞতাকে পুঁজি করে লিভারপুল ম্যাচ জুড়ে খেললো পরিণত ফুটবল। প্রতিপক্ষের মেজাজ বুখে আক্রমন আর রক্ষণ সামলেছে।

বিপরীতে প্রথম ফাইনাল খেলার চাপ থেকেই বেরুতে পারেনি টটেনহ্যাম।

সেমিফাইনাল হিরো লুকাস মৌরাকে বসিয়ে, হ্যারি কেনকে নামান পচেত্তিনো। তবে ইনজুরি থেকে দুমাস পর ফেরা যেন নিজের ছায়া হয়েই রইলেন। তবুও সুযোগ এসেছিলো।

তবে সন, এরিকসনদের সামনে দেয়াল হয়ে ছিলেন ভার্জিল ফন ডাইক।

ম্যাচের শেষভাগে গোরক্ষক অ্যালিসন বেকারের দৃঢ়তায় স্পার্স থাকে গোলবঞ্চিত।

খেলা শেষের তিন মিনিট আগে ফিরমিনোর পরিবর্তে নামা দিভক ওরিগির গোলে, ম্যাচ থেকে ছিটকে যায় স্পার্স।

অলরেডদের হয়ে প্রথম কোন শিরোপার স্বাদ পেলেন ইয়ুর্গেন ক্লপ। ক্যারিয়ারে ছয় ফাইনাল হারের পর জার্মান কোচের প্রথম সাফল্য।

আর ১৪ বছর পর চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফিরলো ইউরোপে ইংল্যান্ডের সবচেয়ে সফল ক্লাব লিভারপুলে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

স্পোর্টস 24 খবর